ঢাকা     বুধবার   ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ||  মাঘ ২৫ ১৪২৯

জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ফখরুল-আব্বাস ডিবি কার্যালয়ে: হারুন

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১২:২৮, ৯ ডিসেম্বর ২০২২   আপডেট: ১৩:০৯, ৯ ডিসেম্বর ২০২২
জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ফখরুল-আব্বাস ডিবি কার্যালয়ে: হারুন

ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) প্রধান মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ

ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) প্রধান মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ বলেছেন, রাজধানীর নয়াপল্টনে পুলিশ ও বিএনপি নেতাদের সঙ্গে  উদ্ভূত পরিস্থিতি ও ১০ ডিসেম্বরের সমাবেশ নিয়ে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ও স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাসকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

শুক্রবার (৯ ডিসেম্বর) দুপুরে মিন্টু রোডের নিজ কার্যালয়ে তিনি সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন।

ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) প্রধান বলেন, তাদের হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। পরবর্তীতে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত জানানো হবে। তাদের কমলাপুর স্টেডিয়াম নয়, মিরপুর সরকারি বাঙলা কলেজেই সমাবেশ করতে হবে।

তারা কি গ্রেপ্তার না আটক-সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) প্রধান বলেন, এখনই এ বিষয়ে আমরা কিছু বলতে পারবো না। জিজ্ঞাসাবাদ চলছে, জিজ্ঞাসাবাদে সেদিনের ঘটনার তাদের কোনো সংশ্লিষ্টতা আছে কিনা আমরা সে বিষয়ে নিশ্চিত হতেই জিজ্ঞাসাবাদ করছি। মূলত এসব বিষয় পরিষ্কার হওয়ার পরই তাদের বিষয়ে আনুষ্ঠানিক সিদ্ধান্ত জানানো হবে।

উল্লেখ্য, ১০ ডিসেম্বর বিএনপির ঢাকা বিভাগীয় গণসমাবেশ নিয়ে উদ্ভূত পরিস্থিতি তৈরি হয়। এ সময় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পক্ষ থেকে তাদের সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশের অনুমতি দেওয়া হলেও দলটির পক্ষ থেকে বলা হয়, তারা নয়াপল্টনে দলীয় কার্যালয়ের সামনে সমাবেশ করবে। এ নিয়ে বিএনপির শীর্ষ নেতা ও পুলিশ কর্মকর্তাদের সঙ্গে দফায় দফায় বৈঠক হয়। সবশেষ বৃহস্পতিবার (৮ ডিসেম্বর) সন্ধ্যার পর ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার খন্দকার গোলাম ফারুকের সঙ্গে বিএনপির নেতারা বৈঠক করেন। সেখানে কমলাপুর স্টেডিয়াম মাঠ এবং মিরপুর বাঙলা কলেজের মাঠ সমাবেশ করা নিয়ে আলোচনা হয়। তারই অংশ হিসেবে বৃহস্পতিবার রাতেই বিএনপি নেতাদের এ দুটি স্থান দেখার কথা ছিল। তবে এর আগে বুধবার (৭ ডিসেম্বর) পল্টন কার্যালয়ের সামনে বিএনপি ও পুলিশের সঙ্গে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় একজন নিহতসহ অর্ধশতাধিক আহত হন। বিএনপির নেতাকর্মীসহ প্রায় দুই হাজার জনকে আসামি করে মামলা করে পুলিশ। এসব মামলায় রুহুল কবির রিজভী, শহীদ উদ্দিন চৌধুরী অ্যানিসহ প্রায় সাড়ে ৪০০ জনকে গ্রেপ্তার করে। পরে তাদের আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়।

আরও পড়ুন

মির্জা ফখরুল ও মির্জা আব্বাসকে আটকের অভিযোগ

বিএনপির স্থায়ী কমিটির জরুরি বৈঠক চলছে

/মাকসুদ/সাইফ/

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়