RisingBD Online Bangla News Portal

ঢাকা     বুধবার   ২০ জানুয়ারি ২০২১ ||  মাঘ ৬ ১৪২৭ ||  ০৫ জমাদিউস সানি ১৪৪২

শীতকালে মশা কোথায় যায়?

লাইফস্টাইল ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১১:৩১, ২ ডিসেম্বর ২০২০   আপডেট: ১১:৩২, ২ ডিসেম্বর ২০২০
শীতকালে মশা কোথায় যায়?

গরমকালে মশার উপদ্রবে যেখানে অতিষ্ঠ হওয়া লাগে, সেখানে শীতকালে মশা একপ্রকার অদৃশ্যই হয়ে যায়। শীতকালে মশা মারা যায় নাকি অন্য স্থানে চলে যায়?- এমন প্রশ্ন অনেকের মনেই হয়তো উঁকি দেয়।

আসলে ঠান্ডা আবহাওয়া মশার খুবই অপছন্দ। ‘মশা শীতল রক্তের পোকামাকড়, যার অর্থ তারা শীত পছন্দ করে না। মশা ৮০ ডিগ্রি ফারেনহাইট বা তার চেয়ে বেশি উষ্ণ আবহাওয়া পছন্দ করে।’- বলেন ইনসেক্টকপ ডটনেটের ডিজিটাল অ্যান্ড কনটেন্ট মার্কেটিং ডিরেক্টর ক্রিশিয়ানা ক্রাইপেনা।

শীতে মশা কোথায় যায়?

মশা পাখির মতো কম শীতের দেশে উড়ে চলে যায় না। খুব বেশি উড়ার সক্ষমতা নেই মশার। ‘শীতে মশা কোথায় যায়?’ এই প্রশ্নের প্রকৃত উত্তর- পুরুষ ও স্ত্রী মশার ক্ষেত্রে ভিন্ন। পুরুষ মশারা মারা যায়। তবে বিশেষত শীতজনিত কারণ হিসেবে নয়। স্ত্রী মশার তুলনায় পুরুষ মশার জীবনকাল অনেক কম থাকে এবং তারা শরৎকাল শেষে বা সঙ্গম করার পরে মারা যায়।

স্ত্রী মশারা শীতকালে বসবাস করতে পারে। কিন্তু তারা কীভাবে তা করে? এর উত্তর হলো, তারা হাইবারনেশন বা শীতনিদ্রায় চলে যায়। শরৎকালে স্ত্রী মশারা মাটি বা দেয়ালের ফাঁটলের ভেতর প্রবেশ করে এবং হাইবারনেট শুরু করে। ‘তারা হিমশীতল বা পানিহীন পরিস্থিতিতে ছয় মাস পর্যন্ত হাইবারনেট করতে পারে।’- বলেন গ্রিনারওয়েজ অর্গানিকের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী জাইমে বেলা। তার মতে, ‘স্ত্রী মশা তাদের বিকাশ কয়েকমাসের জন্য ধীরগতির করে এবং যখন পর্যাপ্ত পানি বা উষ্ণতা পায়, তখন নিজেদের জীবন এগিয়ে নেওয়া শুরু করে।’

বসন্তকালে প্রকৃতি উষ্ণ হয়ে ওঠলে স্ত্রী মশারা হাইবারনেশন ভেঙে বেরিয়ে আসে এবং তাদের রক্ত পানের সময় শুরু হয়। এ সময়টায় স্ত্রী মশারা ডিম পাড়ার জন্য প্রস্তুতি নেয়। ফলে ডিমগুলো বিকাশে সহায়তার জন্য তাদের যথাসম্ভব রক্তের প্রয়োজন দেখা দেয়।

বেলা বলেন, ‘ডিমগুলো বিকাশের জন্য ডিমে প্রয়োজনীয় প্রোটিন সরবরাহ করতে স্ত্রী মশাদের খাবার হিসেবে রক্তের সন্ধান করতে হয়।’ আর এসময়টায় মানুষজন হাফহাতা পোশাকে প্রকৃতির উষ্ণ আবহাওয়া উপভোগ করতে বাইরে বেশি বের হয়। আর হ্যাঁ, স্ত্রী মশাদের কামড়ই কিন্তু আপনি খান।

অতিরিক্তি ঠান্ডা আবহাওয়ায় কী ঘটে?

তাপমাত্রা যখন প্রায় ৫০ ডিগ্রি ফারেনহাইটে নেমে আসে তখন বেশিরভাগ প্রজাতির মশা হাইবারনেশনে যেতে শুরু করে। ক্রাইপেনা বলেন, ‘৫০ ডিগ্রি ফারেনহাইটের নিচের যেকোনো কিছু বেশিরভাগ প্রজাতির মশার জন্য খুব শীতল তাপমাত্রা। এক্ষেত্রে স্ত্রী মশারা ডায়াপজের জন্য উপযুক্ত জায়গা খোঁজা শুরু করে।’

তার মতে, কিছু মশার প্রজাতি রয়েছে যাদের প্রাপ্তবয়স্করা (পুরুষ এবং স্ত্রী উভয়ই) শরত্কালে মারা যায়, ফলে শীত মৌসুমে তারা হাইবারনেট করে না। এর মধ্যে জিকা ভাইরাস বহনকারী এডিস ইজিপ্টি প্রজাতির মশাও রয়েছে।

ঢাকা/ফিরোজ

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়