ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০২ জুন ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

মুজিববর্ষে সংসদে বিশেষ অধিবেশন

আসাদ আল মাহমুদ : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০৩-০৫ ৯:৩০:১৮ এএম     ||     আপডেট: ২০২০-০৩-০৫ ৯:৩৪:১২ এএম

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী তথা মুজিববর্ষ যথাযোগ্য মর্যাদায় উদযাপনে বছরব্যাপী কর্মপরিকল্পনা নিয়েছে জাতীয় সংসদ।

কর্মপরিকল্পনার মধ‌্যে রয়েছে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে আলোচনার জন্য বিশেষ সংসদ অধিবেশনের আয়োজন। যা আগামী ২২-২৩ মার্চ অনুষ্ঠিত হবে।

ভারতের সাবেক রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জিসহ বঙ্গবন্ধুকে চেনেন-জানেন এমন অতিথিদের বিশেষ অধিবেশনে যোগ দিতে আমন্ত্রণ জানানো হচ্ছে। এছাড়া ভারতের লোকসভার স্পিকার ওম বিরলাকে দাওয়াত দেওয়া হয়েছে। ভারতরের স্পিকার বিশেষ এ অধিবেশনে অংশ নেওয়ার আগ্রহ ব্যক্ত করেছেন।

আগামী ১৯ মার্চ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে জাতীয় সংসদ আয়োজিত বর্ষব্যাপী মুজিববর্ষের অনুষ্ঠানমালার উদ্বোধন করবেন। ওইদিন জাতীয় সংসদের ওয়েবসাইটও উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী। উদ্বোধন অনুষ্ঠানটি বিকেল ৪.৩০ মিনিটে শুরু হয়ে ৭.৩০ মিনিট পর্যন্ত চলবে। মুজিববর্ষ উপলক্ষে আগামী ২২-২৩ মার্চ বিশেষ অধিবেশন আয়োজন করা হচ্ছে। সাংবিধানিক ক্ষমতাবলে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ বিশেষ এই অধিবেশন আহ্বান করবেন। একজন বিশ্বখ্যাত ব্যক্তিত্বকে বিশেষ অধিবেশনে বক্তা হিসেবে আমন্ত্রণ জানানো হচ্ছে। ২২ মার্চ অধিবেশন শুরুর দুই ঘণ্টা পূর্বে একাদশ জাতীয় সংসদের সংসদ সদস্যরা ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করবেন।

সূত্র জানায়, মুজিববর্ষে সংসদের বিশেষ অধিবেশনে যোগদানের জন্য এরই মধ্যে পার্শবর্তী দেশসমূহের রাষ্ট্র প্রধান ও মন্ত্রী এমপিদরে আমন্ত্রণ জানানো শুরু হয়েছে।

এছাড়া সম্প্রতি সার্বিয়ার বেলগ্রেডে অনুষ্ঠিত আইপিইউর ১৪১তম সম্মেলনে উপস্থিত অতিথিদের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। সংসদীয় গণতন্ত্রের অন্যতম বৃহত্তম আইপিইউ সম্মেলনে ১৪০টি দেশের ৮০ জন স্পিকার, ৬০ জন ডেপুটি স্পিকারকে চিঠি দেওয়া হচ্ছে।

এছাড়া জাতীয় সংসদের উদ্যোগে পৃথকভাবে দেশি-বিদেশি অতিথিদের অংশ গ্রহণে সভা-সমাবেশ, বঙ্গবন্ধুর ওপর বিশেষ সেমিনারসহ বছরব্যাপী নানা আয়োজন হবে। অনুষ্ঠানের জন্য সংসদ ভবনের দক্ষিণ প্লাজায় বঙ্গবন্ধু স্মরণে বিশেষ মঞ্চ তৈরি করা হবে। যেখানে বছরব্যাপী অনুষ্ঠান হবে। সেখানে ছবি ও ভিডিও প্রদর্শনী থাকবে। প্রদর্শনীতে আরো থাকবে পাকিস্তানের গণপরিষদ, স্বাধীন দেশে নতুন সংবিধান প্রণয়ন ও জাতীয় সংসদে বঙ্গবন্ধুর বিভিন্ন কর্মকাণ্ড।

এছাড়াও বৃক্ষরোপন ও বিজয় মেলার আয়‌োজন করা হব‌ে। ফোকাস করা হবে বাংলাদেশ নামের একটি রাষ্ট্রের কিভাব‌ে জন্ম হলো, সংবিধান প্রণয়ন ও সংসদীয় গণতন্ত্রের জন্য বঙ্গবন্ধু যা যা করেছেন তা তুলে ধরা হবে। সংসদে বঙ্গবন্ধুর দেওয়া বক্তব্যও তুলে ধরা হবে।

এছাড়া মুজিববর্ষ উপলক্ষে স্পিকারের পক্ষ থেকে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের স্পিকারের কাছে বিশেষ উপহার পাঠানো হবে। বিশেষ উপহারে থাকবে বঙ্গবন্ধুর আত্মজীবনীর ইংরেজি ভার্সন, বিভিন্ন প্রকাশনা।

জাতীয় সংসদের একজন কর্মকর্তা জানিয়েছেন, জাতির পিতার প্রতি শ্রদ্ধা  জানানোর জন্য এ বিশেষ অধিবেশন হবে। বঙ্গবন্ধুর সংগ্রাম, কর্মময় জীবন ও দেশকে এগিয়ে নিতে তার বহুমুখী অবদান এবং পরিকল্পনা ও স্বপ্নের বিষয়ে বিশেষ অধিবেশনের পাশাপাশি সেমিনারে আলোকপাত করা হবে।

তিনি বলেন, ফিলিস্তিনের মহান নেতা ইয়াসির আরাফাত বাংলাদেশে আগমণ উপলক্ষ‌ে বিশেষ অধিবেশন ডাকা হয়েছিল। ইয়াসির আরাফাত ওই অধিবেশনে ভাষণ দিয়েছিলেন। এরপর মুজিববর্ষ উপলক্ষে দ্বিতীয়বার বিশেষ অধিবেশন আহ্বান করা হচ্ছে। উদ্দেশ‌্য হলো বাঙালির প্রাণের নেতা ও স্বাধীনতার মহানায়ক বঙ্গবন্ধুকে স্মরণ করা ও বিশ্ববাসীকে জানানো।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুকে ঘিরে বছরজুড়ে কর্মসূচি পালন নিয়ে একটি কর্মপরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। সংগ্রহ করা হয়েছে সংসদে, সংসদের বাইরে এবং দেশ-বিদেশে দেওয়া বঙ্গবন্ধুর আলোচিত বক্তব্য যা প্রকাশনা আকারে বের হবে।

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, মুজিববর্ষ যথাযোগ্য মর্যাদায় উদযাপন উপলক্ষে জাতীয় সংসদের পক্ষ থেকে বর্ষব্যাপী কর্মপরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে।

তিনি বলেন, জাতীয় সংসদ দক্ষিণ প্লাজায় মুজিববর্ষ কার্যক্রম ১৯ মার্চ শিশু মেলা আয়োজনের মধ্য দিয়ে মুজিববর্ষ কার্যক্রম শুরু হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে জাতীয় সংসদ  আয়োজিত বর্ষব্যাপী মুজিববর্ষের অনুষ্ঠানমালার উদ্বোধন করবেন।


ঢাকা/আসাদ/সাইফ