ঢাকা     মঙ্গলবার   ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ ||  আশ্বিন ১৪ ১৪২৭ ||  ১১ সফর ১৪৪২

সরকারের ভারত সফরের ব্যর্থতা নিয়ে কথা বলায় আবরারকে হত্যা

সংসদ প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৭:৩৩, ১১ নভেম্বর ২০১৯   আপডেট: ০৫:২২, ৩১ আগস্ট ২০২০
সরকারের ভারত সফরের ব্যর্থতা নিয়ে কথা বলায় আবরারকে হত্যা

সরকারের ভারত সফরের ব্যর্থতা নিয়ে কথা বলায় আবরারকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে।

সোমবার জাতীয় সংসদে জরুরি জনগুরুত্ব সম্পন্ন বিষয়ে মনোযোগ আকর্ষণ নোটিশের আলোচনায় অংশ নিয়ে বিএনপির সংরক্ষিত নারী আসনের সাংসদ রুমিন ফারহানা এ কথা বলেন।

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যার ঘটনার সমালোচনা করে সাংসদ রুমিন ফারহানা বলেন, পরিস্থিতি এমন যে রাষ্ট্রের স্বার্থে কথা বলা যাবে না, যদি তা সরকারের বিপক্ষে যায়।

তিনি বলেন, বর্তমান সরকারের ভারত সফরের ব্যর্থতা নিয়ে দেশের স্বার্থে কথা বলায় আবরারকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। কারো ওপর নির্যাতন করার আগে তাঁকে জামায়াত-শিবির নাম দেয়া, তারপর হত্যা পর্যন্ত জায়েজ।

তিনি আরো বলেন, প্রাচ্যের অক্সফোর্ড খ্যাত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র হলে আছে শতাধিক টর্চারসেল। সেখানে ক্ষমতাসীন ছাত্রসংগঠনের নিরঙ্কুশ আধিপত্য। র‍্যাগিংয়ের নামে চলে দানবীয় অত্যাচার। বিশ্ববিদ্যালয়ের অভিভাবক উপাচার্য দক্ষ প্রশাসক, না দলীয় কর্মী, তা এখন বোঝা দায়। সন্তান তুল্য আবরার হত্যার ৩৮ ঘণ্টা পর উপাচার্য সামনে এসেছেন। তিনি জানাজায় অনুপস্থিত ছিলেন। পুলিশ প্রশাসন ও দলীয় ক্যাডারদের নিয়ে কুষ্টিয়া যান পরিবারের সদস্যদের সান্ত্বনা দিতে। সেখানে দুই মিনিটের মধ্যে দোয়া শেষ করার নির্দেশনা আসে। হামলা হয় আবরারের পরিবারের সদস্যদের ওপর। নৃশংস এই হত্যাকাণ্ড অনাকাঙ্ক্ষিত বলে একটি জিডি করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন দায় সারে। মামলা করতে হয় আবরার ফাহাদের বাবাকে। শিক্ষার পরিবেশ নিশ্চিত করার জন্য প্রভোস্ট, প্রক্টর, ছাত্রকল্যাণ পরিচালক আছেন, তাঁরা দায়িত্ব পালনে সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়েছেন।
 

ঢাকা/আসাদ/নাসিম

রাইজিংবিডি.কম

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়