ঢাকা, বুধবার, ৬ ফাল্গুন ১৪২৬, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

‘আইসিজের রায় রোহিঙ্গাদের বিজয়, বাংলাদেশের বিজয়’

কূটনৈতিক প্রতিবেদক : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০১-২৩ ৭:৩০:০৬ পিএম     ||     আপডেট: ২০২০-০১-২৩ ৭:৩০:০৬ পিএম

মিয়ানমারের রাখাইনে রোহিঙ্গাদের সুরক্ষায় অন্তর্বর্তীকালীন পদক্ষেপ নেয়ার নির্দেশ দিয়েছে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালত (আইসিজে)। এতে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন।

আন্তর্জাতিক আদালতের এ আদেশকে ‘রোহিঙ্গা, মানবতা, গাম্বিয়া ও বাংলাদেশের বিজয়’ বলে অভিহিত করেছেন এ কে আবদুল মোমেন।

বৃহস্পতিবার বিকেলে নেদারল্যান্ডসের রাজধানী হেগে আইসিজে উল্লিখিত আদেশ দেয়ার পর এক বার্তায় এ অভিমত ব‌্যক্ত করেন বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

ইকুয়েডর সফররত ড. মোমেন বার্তায় বলেন, ‘এটা মানবতার বিজয় এবং সারা বিশ্বের মানবাধিকারকর্মীদের জন্য মাইলফলক। এটা গাম্বিয়ার বিজয়, ওআইসির বিজয়, রোহিঙ্গাদের বিজয় এবং অবশ্যই বাংলাদেশের বিজয়। স্রষ্টা মানবতা এবং মানবতার জননী শেখ হাসিনার কল্যাণ করুন।’

গাম্বিয়ার করা মামলার বিচারিক এখতিয়ার আইসিজের রয়েছে, উল্লেখ করে মিয়ানমারকে চারটি অন্তর্বর্তী আদেশ দিয়েছে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালত। সেগুলো হচ্ছে- মিয়ানমারকে জেনোসাইড কনভেনশন মেনে চলতে হবে, রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে গণহত্যা তৎপরতা চালানো যাবে না, তাদের বিরুদ্ধে যেসব অপরাধ করা হয়েছে মিয়ানমারকে অবশ্যই সেসব প্রমাণ সংরক্ষণ করতে হবে এবং রোহিঙ্গাদের সুরক্ষায় যেসব পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে তা চার মাসের মধ্যে আদালতকে জানাতে হবে। মিয়ানমারকে তার পদক্ষেপের ব্যাপারে প্রতি ছয় মাস পর আদালতে প্রতিবেদন জমা দেবে।

আন্তর্জাতিক বিচার আদালতে গাম্বিয়ার মামলা করার অধিকার এবং আদালতের বিচারিক এখতিয়ার নিয়ে গত ডিসেম্বরে শুনানিকালে প্রশ্ন তুলেছিল মিয়ানমার। এর জবাবে আদালত বলেছে, জেনেভা কনভেনশন অনুযায়ী মিয়ানমারের বিরুদ্ধে গণহত্যার অভিযোগে যে মামলা করা হয়েছে তার বিচারিক এখতিয়ার আদালতের রয়েছে।

মিয়ানমারের বিরুদ্ধে রোহিঙ্গা গণহত্যার অভিযোগ এনে গত বছরের নভেম্বরে মামলা করে গাম্বিয়া। গত ১০ থেকে ১২ ডিসেম্বর এ মামলার শুনানি হয়। মিয়ানমারের পক্ষে শুনানিতে অংশ নেন দেশটির নোবেলজয়ী নেত্রী অং সান সু চি। গাম্বিয়ার পক্ষে মামলার শুনানিতে নেতৃত্ব দেন দেশটির বিচারমন্ত্রী আবুবকর তামবাদু।


ঢাকা/হাসান/রফিক