ঢাকা, শুক্রবার, ৮ ফাল্গুন ১৪২৬, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

দেশ স্বাধীন করলেও এলাকা ছাড়া মুক্তিযোদ্ধা

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০১-২৮ ৬:২৬:২৮ পিএম     ||     আপডেট: ২০২০-০১-২৮ ৬:২৬:২৮ পিএম

যৌবনে অস্ত্র হাতে যুদ্ধ করে দেশ স্বাধীন করলেও বার্ধক‌্যে আজ ভূমিদস‌্যুর ভয়ে এলাকা ছাড়া হয়ে পরিবার নিয়ে অনশন করছেন মুক্তিযোদ্ধা।

জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে অনশন করছেন ঝালকাঠির পিপলিতা গ্রামের মৃত হোসেন আলী খানের ছেলে মুক্তিযোদ্ধা মো. জাহাঙ্গীর আলম খান।

তিনি একজন সরকারি গেজেটেড ভাতাপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধা। তার গেজেট নং- ৪০১, যুদ্ধ করে দেশ স্বাধীন করলেও নিজ গ্রামেই তিনি এখন পরাধীন। স্থানীয় একটি ভূমিদস্যুচক্র তার ভিটেমাটিসহ পৈত্রিক সম্পত্তি দখল করে নিয়েছে। পৈত্রিক সম্পত্তি যাতে উদ্ধার করতে না পারেন, সেজন্য ওই মুক্তিযোদ্ধা ও তার পরিবারকে হয়রানি করে, একের পর এক হুমকি দিয়ে ভিটেমাটি ছাড়া করেছে চক্রটি। হুমকির মুখে ১৫ দিন ধরে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন ওই মুক্তিযোদ্ধা ও তার পরিবার।

ভূমিদস্যুর কাছ থেকে পৈত্রিক জমি পুনরুদ্ধার এবং নিরাপত্তার দাবিতে স্ত্রী ও দুই মেয়েসহ পরিবার নিয়ে এই শীতের মধ্যেও আমরণ অনশনে বসেছেন এই বীর মুক্তিযোদ্ধা।

মঙ্গলবার সকাল থেকে অনশন শুরু করে এই মুক্তিযোদ্ধা প্রতিজ্ঞা করেছেন, ভূমিদস্যুর কাছ থেকে ভিটেমাটি উদ্ধার ও পরিবারের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার আগ পর্যন্ত অনশন চালিয়ে যাবেন।

ভূমিদস্যুর কবল থেকে বাঁচতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ঝালকাঠির সাংসদ, আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মণ্ডলীর সদস্য আমির হোসেন আমু এমপির জরুরি হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন বীর এই মুক্তিযোদ্ধা।

মুক্তিযোদ্ধা জাহাঙ্গীর আলমের মেয়ে নুসরাত জাহান বলেন, ‘আমার বাবা একজন মুক্তিযোদ্ধা হলেও স্থানীয় ভূমিদস্যু আব্দুল খালেক ডাকুয়া তার সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে আমাদের পৈত্রিক সহায় সম্পত্তি দখল করে নিয়েছে। তারপর হুমকি ও একের পর এক মিথ্যা মামলায় মা ও চারবোনকে নিয়ে আমার বাবা পালিয়ে বেড়াচ্ছেন। মুক্তিযোদ্ধা বাবা যাতে আমাদের নিয়ে বাড়ি-ঘরে যেতে না পারেন, সেজন্য ভূমিদস্যু ডাকুয়া তার লাটিয়াল বাহিনী দিয়ে আমাদের মেরে ফেলার হুমকি দিচ্ছে। আমরা মৃত্যুভয়ে এলাকায় পর্যন্ত যেতে পারছি না।’

মুক্তিযোদ্ধা জাহাঙ্গীর আলম খান কান্নাজড়িত কণ্ঠে বলেন, ‘এজন্যই কি আমরা যুদ্ধ করে দেশ স্বাধীন করেছিলাম? ভূমিদস্যু ডাকুয়া আমার পৈত্রিক সহায় সম্পত্তি সব দখল করে নিয়েছে। আমি এখন আমার বাড়িতে যেতে পারছি না। আমার কোন ছেলে সন্তান নেই। তারা আমার চার মেয়েকে হুমকি দিচ্ছে। তাদের নামে কুৎসা রটাচ্ছে। ভিটেমাটি ছাড়া হয়ে আমি বাধ্য হয়ে পরিবার নিয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছি।’

তিনি বলেন, ‘আমি একজন মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ কামনা করছি।’

বীর মুক্তিযোদ্ধা জাহাঙ্গীর আলম খানের সঙ্গে আমরণ অনশনে বসেছেন তার স্ত্রী ইসরাত জাহান, মেয়ে নুসরাত জাহান, তায়েবা জাহান, বোন রুনু বেগম, ভাই দুলাল খান,  স্ত্রী কলি বেগম।


ঢাকা/নঈমুদ্দীন/সাজেদ