ঢাকা     শনিবার   ০৮ আগস্ট ২০২০ ||  শ্রাবণ ২৪ ১৪২৭ ||  ১৮ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

ই-পেমেন্টে হবে ভ্যাট পরিশোধ

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৩:৪২, ১৪ জুলাই ২০২০  

ট্রেজারি চালান, চেক ও পে-অর্ডারে ভ্যাট জমার দিন শেষ। এতে সময় অপচয়ের পাশাপাশি  থাকে নগদ লেনদেনের নিরাপত্তার ঝুঁকি।

এসব ঝামেলা থেকে করদাতাদের মুক্তি দিতে ই-পেমেন্ট ব্যবস্থা চালু করছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)।

এনবিআর থেকে এ সংক্রান্ত আদেশ জারি করেছে। মঙ্গলবার (জুলাই ১৪) সংস্থাটির জনসংযোগ কর্মকর্তা সৈয়দ এ মু'মেন এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এ আদেশের ফলে করদাতারা এখন যেকোন সময় যেকোন জায়গা থেকে যেকোন ব্যাংকের মাধ্যমে অনলাইনে ভ্যাট জমা দিতে পারবেন। ফলে টাকা সরাসরি সরকারি কোষাগারে জমা হয়ে যাবে। ভ্যাট জমা হয়েছে কিনা, ভ্যাট অফিস অনলাইনে তা শুধু যাচাই করবে।

ইন্টিগ্রেটেড ভ্যাট অ্যাডমিনিস্ট্রেশন সিস্টেম (আইভাস) হতে প্রেরিত কর পরিশোধ সংক্রান্ত ইলেট্রনিক নোটিফিকেশনকে ট্রেজারি চালানের বিকল্প হিসেবে বিবেচনা করার বিষয়ে এনবিআরের দ্বিতীয় সচিব (মূসক আইন ও বিধি) কাজী রেজাউল হাসান সই করা এমন আদেশ জারি করা হয়।

এনবিআর সূত্র জানায়, ই-পেমেন্ট ব্যবস্থা চালু করতে এর আগে ভ্যাট অনলাইন প্রকল্পের আওতায় মডিউল তৈরি করা হয়। এছাড়া দেশি-বিদেশি কয়েকটি ব্যাংকের মাধ্যমে ব্যবস্থাটি গ্রাহক পর‌্যায়ে পরীক্ষামূলক যাচাই-বাছাই করা হয়েছে। এর আগে অনলাইনে রিটার্ন ব্যবস্থা চালু করা হয়েছে। ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলো অনলাইনে রিটার্ন জমা দিতে পারলেও ট্রেজারি চালান জমা দিতে ভ্যাট অফিসে আসতে হয়। ফলে অনলাইনে পুরো সুবিধা পাচ্ছেন না। ই-পেমেন্ট ব্যবস্থা চালুর ফলে করদাতাদের প্রয়োজন ছাড়া অফিসে আসতে হবে না। এর ফলে করদাতাদের হয়রানি কমে যাবে। সারা দেশে বর্তমানে এক লাখ ৭৮ হাজার প্রতিষ্ঠান অনলাইনে ভ্যাট নিবন্ধন নিয়েছে।

এনবিআরের আদেশে বলা হয়, ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ বির্নিমাণের প্রত্যয়ে এবং ব্যবসাবান্ধব ও করদাতাবান্ধব ব্যবসার পরিবেশ সৃষ্টির লক্ষ্যে এনবিআর প্রতিনিয়ত স্বয়ংক্রিয় এবং অনলাইনভিত্তিক কর ব্যবস্থা প্রবর্তনের জন্য কাজ করছে। তারই ধারাবাহিকতায় করদাতাদের অনলাইনে কর পরিশোধ করার সুবিধার্থে ভ্যাট অনলাইন প্রকল্প হতে ইতোমধ্যে ইন্টিগ্রেটেড ভ্যাট অ্যাডমিন্ট্রিসেশন সিস্টেম (আইভাস) এর মাধ্যমে ই-পেমেন্ট ব্যবস্থা প্রবর্তন করা হয়েছে। এ স্বয়ংক্রিয় ব্যবস্থার ফলে করদাতাদেরকে ব্যাংকে উপস্থিত হয়ে ট্রেজারি চালানের মাধ্যমে সরকারি কোষাগারে অর্থ জমা প্রদান করতে হবে না। বরং দ্রুততম সময়ের মধ্যে করদাতারা যেকোন স্থান হতে অনলাইনে কর পরিশোধ করতে পারবেন। এতে করদাতাদের সময় ও ব্যয় উভয়ই সাশ্রয় হবে।’

আদেশে আরও বলা হয়, ‘ই-পেমেন্ট কার‌্যক্রমকে গতিশীল করার লক্ষ্যে আইভাস সিস্টেম হতে করদাতার অনুকূলে প্রেরিত কর পরিশোধ সংক্রান্ত ইলেক্ট্রনিক নোটিফিকেশনে উল্লিখিত চালান নাম্বার, তারিখ, কমিশনারেটের কোড এবং জমা করা অর্থের পরিমাণ হিসাব মহানিয়ন্ত্রক এর কার‌্যালয়ের অনলাইন সিস্টেম হতে যাচাইপূর্বক সঠিক পাওয়া গেলে সেক্ষেত্রে তা ট্রেজারি চালানের বিকল্প হিসেবে গ্রহণ করার অনুমোদন প্রদান করা হলো।’

এ বিষয়ে এনবিআর সদস্য (মূসক বাস্তবায়ন ও আইটি) মো. জামাল হোসেন বলেন, ‘এর মাধ্যমে ভ্যাট অনলাইনকরণের ক্ষেত্রে আরও এক ধাপ এগিয়ে গেল। এতে করদাতার শ্রম ও সময় বাঁচবে। এখন করদাতাকে ব্যাংকে গিয়ে ট্রেজারি চালানে ভ্যাট পরিশোধ করতে হয়। এ মডিউল কার‌্যকর হলে করদাতা অফিস বা ঘরে বসে ব্যাংকের মাধ্যমে ভ্যাট পরিশোধ করতে পারবেন।’


ঢাকা/এম এ রহমান/নাসিম

রাইজিংবিডি.কম

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়