ঢাকা     রোববার   ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ ||  আশ্বিন ৫ ১৪২৭ ||  ০২ সফর ১৪৪২

ঢাকা ফিরছে পুরনো চেহারায়, স্বাস্থ্যবিধি মানছে না কেউ

হাসিবুল ইসলাম মিথুন || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৮:৫৩, ৮ আগস্ট ২০২০   আপডেট: ১০:৩৯, ২৫ আগস্ট ২০২০
ঢাকা ফিরছে পুরনো চেহারায়, স্বাস্থ্যবিধি মানছে না কেউ

পুরনো চেহারায় ফিরছে ঢাকা

ঈদের ছুটি শেষে কর্মজীবীরা রাজধানীতে ফেরা শুরু করেছেন।  এরফলে রাজধানীর সড়কগুলোয় ধীরে ধীরে বেড়েই চলেছে বাস-প্রাইভেটকার-অটোরিকশার সংখ‌্যাও।  তবে, এখনো তীব্র যানজট সৃষ্টি না হলেও গণপরিবহণ-সিএনজিচালিত অটোরিকশায় স্বাস্থ্যবিধি না মানার প্রবণতাও দেখা গেছে।

শনিবার (৮ আগস্ট) রাজধানীর মিরপুর ১, ২, ১০ নম্বর, শ্যামলী, ধানমন্ডি, নিউমার্কেট, কারওয়ানবাজার ও ফার্মগেট এলাকা ঘুরে গেছে, কর্মস্থল, বাজার ও বিপণিবিতানগুলোয় মানুষের উপস্থিতি বেড়েছে।  একইসঙ্গে অধিকাংশ বাসে অর্ধেক যাত্রী নিলেও বাসে ওঠার সময় আগে মতো হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করতে দেখা যায়নি।  যাত্রীরাও বাসে উঠছেন গা-ঘেঁষাঘেঁষি করে।

এদিকে, সকাল থেকেই রাজধানীর গাবতলী, কল্যাণপুর, শ্যামলী ও মহাখালী বাস টার্মিনাল ঘুরে দেখা গেছে, সকাল থেকে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে বাসে করে রাজধানীতে মানুষ আসছেন।  শনিবার রাত ও রোববার সকাল পর্যন্ত ঢাকামুখী যাত্রীচাপ থাকবে বলে জানিয়েছেন পরিবহন সংশ্লিষ্টরা।

ঢাকার রাস্তায় যানবাহন চলার দৃশ্য

ঢাকায় আসা যাত্রীদের সঙ্গে আলাপ করে জানা গেছে, পদ্মা নদীতে তীব্র স্রোত থাকায় শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি ও পাটুরিয়া-দৌলতদিয়ায় ফেরি ও লঞ্চ চলাচল ব্যাহত হওয়ায় অনেকটাই ভোগান্তিতে পড়েন দক্ষিণাঞ্চলের মানুষ।  এই দুই নৌরুট পার হতে স্বাভাবিক সময়ের চেয়ে দ্বিগুণ-তিনগুণ বেশি সময় লেগেছে। সড়কপথে  স্বাস্থ্যবিধি না মানা ও বেশি ভাড়া নেওয়ার অভিযোগ করেছেন যাত্রীরা।

সরেজমিনে দেখা গেছে, অন‌্য দিনের চেয়ে রাজধানীর রাস্তায় যানবাহনের সংখ্যা বেড়েছে। অনেক জায়গায় থেমে থেমে যানজটও দেখা গেছে।  মিরপুর, মোহাম্মদপুরসহ বিভিন্ন পয়েন্টে যাত্রীসংখ্যাও বেড়েছে।

মিরপুর ১ থেকে আজিমপুর যাওয়ার জন্য অপেক্ষা করছিলেন মোহাম্মদ ইলিয়াস হোসেন। তিনি রাইজিংবিডিকে বলেন, ‘ঈদের পরে আজ যাত্রী অনেক বেড়েছে।  করোনার কারণে বাসে অর্ধেক যাত্রী নিয়ে চলাচল করায় অনেকক্ষণ ধরেই অপেক্ষা করছি বাসে ওঠার জন্য।  কিন্তু বাসে সিট খালি না থাকায় ফাঁকা বাসের জন্য অপেক্ষা করছি। ’

কয়েকদিনের জন্য ফাঁকা হয়ে যাওয়া ঢাকা এখন আবার কর্মব্যস্ত হতে চলেছে

এই যাত্রী আরও বলেন, ‘অনেক বাসেই দেখেছি স্বাস্থ্যবিধি মানা হচ্ছে না। অর্ধেক যাত্রী নিয়ে চলাচলের কথা থাকলেও অনেক পরিবহনে অতিরিক্ত যাত্রী বহন করছে। বাসের সুপারভাইজারের সঙ্গে-সঙ্গে যাত্রীরাও স্বাস্থ্যবিধি না মেনে তড়িঘড়ি করে বাসে উঠছেন। এভাবে চললে করোনার ঝুঁকি আরও বাড়বে। ’

ধানমন্ডির জিগাতলা থেকে মতিঝিল যাওয়ার জন্য অপেক্ষা করা আফরিন জাহান বলেন, ‘দুই দিন আগেও বাস একদম খালি ছিল। কিন্তু ঈদের পরে আজ সেখানে প্রায় ৩০ মিনিটের মতো দাঁড়িয়ে আছি কিন্তু ফাঁকা বাস পাচ্ছি না।’

সংশ্লিষ্টরা জানান, কয়েকদিনের জন্য ফাঁকা হয়ে যাওয়া ঢাকা এখন আবার কর্মব্যস্ত হতে চলেছে। রাজধানীর স্টেশন ও টার্মিনালগুলোয় মানুষের ভিড় ছিল চোখে পড়ার মতো। রোববার থেকে আবারও আগের রূপে ফিরে যাবে কর্মব্যস্ত রাজধানী।

হাসিবুল/এনই

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়