RisingBD Online Bangla News Portal

ঢাকা     বৃহস্পতিবার   ০১ অক্টোবর ২০২০ ||  আশ্বিন ১৬ ১৪২৭ ||  ১৩ সফর ১৪৪২

প্রত্নস্থল সংরক্ষণে সহযোগিতার আশ্বাস ভারতের

নিজস্ব প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৫:৩৫, ১০ আগস্ট ২০২০   আপডেট: ১০:৩৯, ২৫ আগস্ট ২০২০
প্রত্নস্থল সংরক্ষণে সহযোগিতার আশ্বাস ভারতের

ভারতের বিদায়ী রাষ্ট্রদূত রীভা গাঙ্গুলী দাশ ও সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ

পানাম সিটিসহ প্রত্নস্থল সংরক্ষণে সর্বাত্মক সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছেন বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতের বিদায়ী রাষ্ট্রদূত রীভা গাঙ্গুলী দাশ। 

সোমবার (১০ আগস্ট) দুপুরে সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদের সঙ্গে সচিবালয়ে তার নিজ দপ্তরে বিদায়ী সাক্ষাৎকালে তিনি এ আশ্বাস দেন।

সাক্ষাতে বন্ধুপ্রতীম প্রতিবেশী দু’দেশের মধ্যে সাংস্কৃতিক সম্পর্ক বৃদ্ধিসহ গুরুত্বপূর্ণ প্রত্নস্থল সংরক্ষণ ও জাদুঘর ব্যবস্থাপনায় ভারতের সহযোগিতার বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়।

প্রতিমন্ত্রী প্রত্নস্থল, জাদুঘরসহ বিভিন্ন সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যবাহী স্থাপনা সংরক্ষণ ও পুনরুদ্ধারে ভারতের কারিগরি সহযোগিতার কথা বলেন। প্রতিমন্ত্রীকে আশ্বস্ত করে ভারতের বিদায়ী রাষ্ট্রদূত বলেন, প্রশিক্ষণ, সেমিনার, ওয়ার্কশপ প্রভৃতি আয়োজনের মাধ্যমে এক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় সহযোগিতা দিতে ভারত প্রস্তুত। এমনকি করোনা মহামারির এ সময়ে অনলাইনে এ ধরনের প্রশিক্ষণ, সেমিনার, ওয়ার্কশপ আয়োজিত হতে পারে।

কে এম খালিদ বলেন, ঐতিহাসিক পানাম সিটি সংরক্ষণ ও পুনরুদ্ধারে ভারতের একদল বিশেষজ্ঞ সম্প্রতি পানাম সিটি পরিদর্শন করে গেছেন এবং আমরা তাদের প্রতিবেদনের অপেক্ষায় আছি।  প্রতিবেদন পেলে এর ওপর ভিত্তি করে আমরা দ্রুত কাজ শুরু করতে চাই। অভ্যন্তরীণ সম্পদ ব্যবহার করে পানাম সিটি সংরক্ষণে বিশেষজ্ঞ দল মতামত দিয়েছে বলে রীভা গাঙ্গুলী প্রতিমন্ত্রীকে অবহিত করেন।

প্রতিমন্ত্রী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী  ‘মুজিববর্ষ’ উপলক্ষে ভারতের বিভিন্ন প্রদেশে বঙ্গবন্ধুর জীবন ও কর্মভিত্তিক যেসব সাংস্কৃতিক কর্মসূচির উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে সেগুলো করোনার প্রাদুর্ভাব কমে গেলে বাস্তবায়িত হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

বিদায়ী রাষ্ট্রদূত বলেন, ভারতীয় অনুদানে রবীন্দ্র স্মৃতিবিজড়িত কুষ্টিয়ার শিলাইদহ কুঠিবাড়ির অবকাঠামো উন্নয়নের কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে। এটি সমাপ্ত হলে বদলে যাবে কুঠিবাড়ির চিত্র।  মূল স্থাপনার বাইরে ভারতীয় অর্থে নির্মিত হচ্ছে উন্নতমানের রেস্ট হাউজ, আধুনিক লাইব্রেরি ও ক্যাফেটরিয়া কাম ডকুমেন্টেশন সেন্টার, উন্মুক্ত মঞ্চসহ আরও কয়েকটি কাজ। 

প্রতিমন্ত্রীকে অবহিত করে রীভা গাঙ্গুলী বলেন, মুজিববর্ষ উপলক্ষে আমরা অনলাইনে বিভিন্ন সাংস্কৃতিক কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছি।

সংস্কৃতির বিভিন্ন ক্ষেত্রে সহযোগিতার জন্য বিদায়ী রাষ্ট্রদূতকে ধন্যবাদ জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমরা সৌভাগ্যবান যে আপনার মতো একজন যোগ্য, দক্ষ ও আন্তরিক রাষ্ট্রদূতকে পেয়েছি। প্রতিমন্ত্রী রীভা গাঙ্গুলীর ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সচিব হিসাবে পরবর্তী পদায়নের জন্য অভিনন্দন এবং শুভকামনা জানান। 

সাক্ষাতের সময় সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য) সাবিহা পারভীন, যুগ্মসচিব মো. ফাহিমুল ইসলাম ও সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রীর একান্ত সচিব মো. জাহিদুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।

ঢাকা/ হাসিবুল/জেডআর

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়