RisingBD Online Bangla News Portal

ঢাকা     সোমবার   ২৩ নভেম্বর ২০২০ ||  অগ্রাহায়ণ ৯ ১৪২৭ ||  ০৬ রবিউস সানি ১৪৪২

কারিগরি শিক্ষার্থীদের প্রস্তুতির নির্দেশ,পরীক্ষা হবে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়েও

নিজস্ব প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৪:৩০, ২৯ অক্টোবর ২০২০   আপডেট: ১৪:৩০, ২৯ অক্টোবর ২০২০
কারিগরি শিক্ষার্থীদের প্রস্তুতির নির্দেশ,পরীক্ষা হবে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়েও

ফাইল ফটো

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনার্স চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা ছাড়া মূল্যায়ন সম্ভব নয়। একইসঙ্গে কারিগরি শিক্ষার্থীদের পরীক্ষার জন্য প্রস্তুতি নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

বৃহস্পতিবার (২৯ অক্টোবর) এক ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানান তিনি।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনার্স চতুর্থ বর্ষের এটি চূড়ান্ত পরীক্ষা। তাদের সঠিকভাবে মূল্যায়ন না হলে পরে চাকরি বা কর্মসংস্থানে সমস্যা হতে পারে। কারিগরি শিক্ষার্থীদের বিশেষ মূল্যায়নের সুযোগ নেই। কারণ তাদের প্রায়োগিক বিভিন্ন পরীক্ষা রয়েছে। যেগুলোর হাতে কলমে নেওয়া জরুরি।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, অনেকে অনুরোধ করছেন, এইচএসির মতো জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় এবং কারিগরি শিক্ষার্থীদের পাস করানোর জন্য। আবার অনেকে অটো পাস চায় না বলেও জানিয়েছেন। কেউ কেউ বলছেন তারা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় যে ৫ টি পরীক্ষা দিয়েছি, সেই পরীক্ষার ভিত্তিতে তাদের রেজাল্ট দিয়ে দিতে। কিন্তু এটি চূড়ান্ত একটি পরীক্ষা।  শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা ছাড়া মূল্যায়ন হলে পরে চাকরি বা কর্মসংস্থানে সমস্যায় পড়তে পারেন। 

কারিগরির বিষয়ে তিনি বলেন, এইচএসসির ক্ষেত্রে আমরা অনেক মাস অপেক্ষা করেছি। তারপর বাধ্য হয়ে এই সিদ্ধান্ত নিতে হয়েছে। কিন্তু পলিটেকনিকে আছে তাদের বিষয়টা ভিন্ন। কারণ এদের প্র্যাক্টিক্যাল পরীক্ষার প্রয়োজন আছে। এক্ষেত্রে সঠিকভাবে মূল্যায়ন না হয় তবে পরবর্তীতে চাকরি বা কর্মসংস্থানে তাদের সমস্যা হতে পারে।

তিনি আরও বলেন, এই জায়গায় পরীক্ষা ছাড়া মূল্যায়ন করাটা মনে হয় না সঠিক হবে। পরিস্থিতি যা আমরা এখনও মনে করছি পরীক্ষা নেওয়া সম্ভব হবে। যেহেতু এইচএসসির তুলনায় কারিগরিতে শিক্ষার্থীদের সংখ্যা অনেক কম সেহেতু পরিস্থিতি বিবেচনায় তাদের এই পরীক্ষা আমরা নিয়ে নিতে পারব। সে বিষয়ে পরবর্তীতে জানিয়ে দেওয়া হবে।

শিক্ষকদের কাদা ছোড়াছুড়ি দুঃখজনক
শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যায়ের  উপাচার্যের দুর্নীতি ও শিক্ষকদের কাদা ছোড়াছুড়িকে দুঃখজনক।

তিনি বলেন, দেশের একটি সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠ, বড় পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে বিভিন্ন নিয়োগ ও অন্যান্য প্রক্রিয়া নিয়ে অনেক ধরনের অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। এটি নতুন-পুরোনোর বিষয় নয়। যখন কোনো ধরনের অনিয়ম নিয়ে সংবাদ আসে, অভিযোগ ওঠে, তখন অবশ্যই সেটি নিয়মানুয়ায়ী তদন্ত করে দেখা হয়। সত্য প্রমাণিত হলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়।

তিনি আরও বলেন, আমাদের কাছে লিখিতভাবে অভিযোগ এসেছে। ইউজিসি এ ধরনের তদন্তগুলো করার জন্য দায়িত্বপ্রাপ্ত। তারা সেই তদন্ত করে একটা প্রতিবেদন তৈরি করেছে। এটি আমার কাছে এখনো পৌঁছায়নি। এছাড়া সচিব অসুস্থ থাকায় বিষয়টি বিবেচনায় আনতে পারিনি। আমরা বিষয়টি নিয়ে বসবো। এই কাদা ছোড়াছুড়িটি হওয়া উচিৎ ছিল না।

'আমি আশা করি, বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে যারা জড়িত আছেন, সবাই তাদের সম্মান প্রতিষ্ঠানের সম্মান পেশার সম্মান এটিকে মাথায় রেখে যেখানেই কথা বলবেন, এগুলো মাথায় রেখে যেন বলেন।'

ইয়ামিন /সাইফ

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়