Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     মঙ্গলবার   ১৩ এপ্রিল ২০২১ ||  চৈত্র ৩০ ১৪২৭ ||  ২৮ শা'বান ১৪৪২

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার পরিস্থিতি পর্যালোচনায় বিশেষ সভা আজ

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ০২:১৭, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১   আপডেট: ০৬:৩৪, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১
শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার পরিস্থিতি পর্যালোচনায় বিশেষ সভা আজ

ফাইল ছবি

মহামারি করোনার প্রকোপ কমে যাওয়ায় স্কুল-কলেজ খুলে দেওয়ার পরিস্থিতি হয়েছে কিনা তা পর্যালোচনা করার নির্দেশ দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তার নির্দেশে পর্যালোচনাসভা ডেকেছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। 

জানা গেছে, স্কুল-কলেজ খুলে দেওয়ার পরিস্থিতি নিয়ে আন্তঃমন্ত্রণালয় সভায় আলোচনা হবে। সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়গুলোর পরামর্শ ও সার্বিক বিষয় চিন্তা করে স্কুল-কলেজ খুলে দেওয়ার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

আজ শনিবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) বিকেল ৩টায় মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে শিক্ষা মন্ত্রণালয়, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়কে নিয়ে সভা অনুষ্ঠিত হবে বলে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ ও সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় থেকে জানা গেছে। বৈঠকে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেন, শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী এবং সংশ্নিষ্ট সচিবরা বৈঠকে উপস্থিত থাকবেন।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা জানান, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা হলেও শুরুতে এসএসসি ও এইচএসসি শিক্ষার্থীরা এ সুবিধা পাবে। পর্যায়ক্রমে অন্যান্য শ্রেণির ক্লাস-পরীক্ষাও চালু হবে। সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় ও করোনা সংক্রান্ত জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটির সঙ্গে আলোচনা করে এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

তবে এসএসসি ও এইচএসসির পরই স্কুল, কলেজ ও মাদ্রাসার অন্যান্য ক্লাস চালুর সিদ্ধান্ত আসতে পারে। শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি জানান, আজকের পর্যালোচনা বৈঠক শেষে স্কুল-কলেজ খোলার বিষয়ে সরকারের সিদ্ধান্ত জানানো হবে।

করোনাভাইরাস মহামারির কারণে গত বছরের ১৭ মার্চ থেকে কওমি মাদ্রাসা বাদে বাকি সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। তবে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো আগামী ২৪ মে খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।

হাসান/আমিনুল

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়

শিরোনাম

Bulletলকডাউন: ১৪-২১ এপ্রিল। যা যা চলবে: ১. বিমান, সমুদ্র, নৌ ও স্থল বন্দর এবং তৎসংশ্লিষ্ট অফিস। ২. পণ্য পরিবহন, উৎপাদন ব্যবস্থা ও জরুরি সেবাদানের ক্ষেত্রে এ আদেশ প্রযোজ্য হবে না ৩. শিল্প-কারখানা ৪. আইনশৃঙ্খলা এবং জরুরি পরিসেবা, যেমন, কৃষি উপকরণ (সার, বীজ, কীটনাশক, কৃষি যন্ত্রপাতি ইত্যাদি), খাদ্যশস্য ও খাদ্যদ্রব্য পরিবহন, ত্রাণ বিতরণ, স্বাস্থ্যসেবা, কোভিড-১৯ টিকা প্রদান, বিদ্যুৎ, পানি, গ্যাস/জ্বালানি, ফায়ার সার্ভিস, বন্দরগুলোর (স্থল, নদী ও সমুদ্রবন্দর) কার্যক্রম, টেলিফোন ও ইন্টারনেট (সরকারি-বেসরকারি), গণমাধ্যম (প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়া), বেসরকারি নিরাপত্তা ব্যবস্থা, ডাক সেবাসহ অন্যান্য জরুরি ও অত্যাবশ্যকীয় পণ্য ও সেবার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট অফিসসমূহ, তাদের কর্মচারী ও যানবাহন এ নিষেধাজ্ঞার আওতা বর্হিভূত থাকবে। ৫. ওষুধ ও নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি ক্রয়, চিকিৎসা সেবা, মৃতদেহ দাফন/সৎকার ৬. খাবারের দোকান ও হোটেল-রেস্তোরাঁয় দুপুর ১২টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা এবং রাত ১২টা থেকে ভোর ৬টা পর্যন্ত কেবল খাদ্য বিক্রয়/সরবরাহ করা যাবে। ৭. কাঁচাবাজার এবং নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি সকাল ৯টা থেকে বেলা ৩টা পর্যন্ত উন্মুক্ত স্থানে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ক্রয়-বিক্রয় করা যাবে || যা যা বন্ধ থাকবে: ১. সব সরকারি, আধাসরকারি, সায়ত্ত্বশাসিত ও বেসরকারি অফিস, আর্থিক প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে ২. সব ধরনের পরিবহন (সড়ক, নৌ, অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক ফ্লাইট) বন্ধ থাকবে ৩. শপিংমলসহ অন্যান্য দোকান বন্ধ থাকবে