Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     বুধবার   ২০ অক্টোবর ২০২১ ||  কার্তিক ৪ ১৪২৮ ||  ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

মুশতাকের স্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৪:৪৬, ৪ মার্চ ২০২১   আপডেট: ১৮:১১, ৪ মার্চ ২০২১
মুশতাকের স্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

কারাগারে লেখক মুশতাক আহমেদের স্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে, দাবি করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, ‘ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন পেলে বিস্তারিত জানাব।’

বৃহস্পতিবার (৪ মার্চ) সচিবালয়ে নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘লেখক মুশতাকের মৃত্যুর পর আমাদের মন্ত্রণালয় থেকে পাঁচ সদস্যের তদন্ত কমিটি করে দিয়েছিলাম। গাজীপুরের ডিসি, তিনিও একটি কমিটি করেছিলেন। আইজি প্রিজনও তাৎক্ষণিকভাবে একটি কমিটি করেছিলেন। সবগুলো কমিটির অভিমত এক রকম। তারা ভিডিও ফুটেজ ও সহবন্দি-চিকিৎসকদের অভিমত নিয়ে যে রিপোর্ট দিয়েছেন, সে রিপোর্ট বলেছে, এটা ন্যাচারাল ডেথ।’

তিনি বলেন, ‘আমরা সবগুলো রিপোর্টেই এখন পর্যন্ত এটুকুই পেয়েছি। পোস্টমর্টেম রিপোর্টের পর আরও বিস্তারিত জানতে পারব। এ পর্যন্ত আমাদের কাছে যা আসছে, এর মূল হলো—এটা ন্যাচারাল ডেথ। তিনি (মুশতাক আহমেদ) বাথরুমে গিয়েছিলেন। ওয়াশরুমে যাওয়ার পর সেখানেই তিনি অজ্ঞান হয়েছিলেন। তারপর তাকে কারাগারে চিকিৎসাসেবা দেওয়া হয়েছে। এরপর তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ মেডিক‌্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে।’

‘সুরতহাল রিপোর্টেও মুশতাকের শরীরে আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি। পোস্টমর্টেমের রিপোর্ট আসলেই আমরা চূড়ান্তভাবে জানতে পারব। প্রাথমিকভাবে ডাক্তাররা যে অভিমত ব্যক্ত করেছেন, সেটাই আমাদের রিপোর্টে আসছে। সেটাই আমি আপনাদের জানালাম। এর বাইরে যদি কিছু থাকে, সেটা পোস্টমর্টেম রিপোর্টে এলে আপনাদের জানিয়ে দেবো,’ বলেন আসাদুজ্জামান খান কামাল।

মুশতাকের ঘটনায় অধিকতর তদন্ত কিংবা বিচার বিভাগীয় তদন্তের দাবি প্রসঙ্গে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘এটা মাথায় রেখেই আমরা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিবের নেতৃত্বে একটি টিম করে দিয়েছিলাম। ডিসি ও কারা কর্তৃপক্ষও তদন্ত কমিটি করেছিল আসল ঘটনা জানার জন্য। এখানে যদি কারও অনিয়ম বা গাফিলতি থাকত, তাহলে নিশ্চয়ই জানাতো।’

গত ২৫ ফেব্রুয়ারি রাতে গাজীপুরের কাশিমপুর হাই সিকিউরিটি কারাগারে মৃত্যু হয় ৫৩ বছর বয়সী লেখক মুশতাক আহমেদের। পরদিন সুরতহাল ও ময়নাতদন্ত শেষে মুশতাকের মরদেহ তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়। এ ঘটনায় গাজীপুর সদর থানায় অপমৃত্যুর মামলা দায়ের করে কারা কর্তৃপক্ষ।

সমালোচনার মুখে গাজীপুর জেলা প্রশাসক দুই সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ৫ সদস্যের কমিটি গঠন করে।

গত বছরের ৬ মে মুশতাককে গ্রেপ্তার করার পর ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে তার বিরুদ্ধে মামলা করা হয়। গত দশ মাসে কয়েকবার আবেদন করেও জামিন পাননি মুশতাক।

নঈমুদ্দীন/সাইফ/রফিক

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়