Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     বৃহস্পতিবার   ০৬ মে ২০২১ ||  বৈশাখ ২৩ ১৪২৮ ||  ২৩ রমজান ১৪৪২

পুলিশ-ড্রাইভারে চলছে ‘লুকোচুরি’

নিজস্ব প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৫:২৪, ১৩ এপ্রিল ২০২১   আপডেট: ১৫:২৫, ১৩ এপ্রিল ২০২১
পুলিশ-ড্রাইভারে চলছে ‘লুকোচুরি’

পুলিশের সঙ্গে লুকোচুরি চলছে মাইক্রোবাস-প্রাইভেটকার ও মোটরসাইকেল-চালকদের। রাজধানীর গাবতলী বাস টার্মিনাল এলাকায়  মঙ্গলবার (১৩ এপ্রিল)সকাল থেকেই হাজার হাজার যাত্রী দেশের বিভিন্ন স্থানে যাওয়ার জন্য অপেক্ষা করছেন। এই অপেক্ষমাণ যাত্রীদের গন্তব‌্যস্থলে পৌঁছে দেওয়ার মতো দূরপাল্লার বাস নেই। তাই তারা বাধ‌্য হয়ে  অতিরিক্ত ভাড়া গুনে উঠছেন  প্রাইভেটকার-মাইক্রোবাসে। তবে, এসব বাহনকে যাত্রী বহন করতে দেখলেই পুলিশ জরিমানা করছে। আর এই জরিমানা এড়ানোর জন‌্য চালকরা নির্দিষ্ট দূরত্ব পার হয়েই যাত্রী  তুলছেন গাড়িতে। 

মঙ্গলবার রাজধানীর গাবতলী এলাকা ঘুরে দেখা গেছে,  সরকারের নির্দেশনা অমান্য করে ব্যক্তিগত পরিবহনে এখন যাত্রী পরিবহন করছেন চালকরা। আর পুলিশ সদস্যরাও এই অনিয়ম ঠেকাতে কঠোর অবস্থানে রয়েছেন। গাবতলী বাস টার্মিনাল এলাকা থেকে কোনো ব্যক্তিগত পরিবহনে যাত্রী নিতে দিচ্ছেন না তারা। ড্রাইভাররাও কৌশলী অবস্থানে রয়েছেন। তারা পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে আমিনবাজার ব্রিজের ওপারে গিয়ে যাত্রী তুলছেন। কারণ এপার থেকে যাত্রী তুললেই তিন হাজার টাকা জরিমানা গুনতে হচ্ছে।

কথা হয় প্রাইভেটকারচালক মাইদুল ইসলামের সঙ্গে। তিনি রাইজিংবিডিকে বলেন, ‘করোনার কারণে দূরপাল্লার বাস বন্ধ থাকায় আমরা ঢাকা থেকে পাটুরিয়া পর্যন্ত যাত্রী আনা নেওয়া করছি। কিন্তু পুলিশ গাবতলী এলাকায় খুব ঝামেলা করছে। মামলা দিচ্ছে। তাই আমিনবাজার ব্রিজের এপারে এসে যাত্রী নিচ্ছি।’তিনি বলেন, ‘কী করবো বলুন? লকডাউনে সব বন্ধ থাকবে। কিভাবে সংসার চালাবো, সেটাই ভেবে পাচ্ছি না। তাই কঠোর লকডাউনের আগে একটু ইনকাম করে নিচ্ছি। গত কয়েকদিনে ভালোই টাকা রোজগার হয়েছে। আসলে আমাদের অবস্থা এমন হয়েছে যে, সরকারের সব নির্দেশনা মেনে চললে  খেতে পারবো না। তাই কিছু নির্দেশনা না চাইলেও ভাঙতে হচ্ছে। তাই পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে আমিনবাজার ব্রিজের ওপারে এসে দাঁড়িয়েছি যাত্রী নেওয়ার জন্য।’ 

পুলিশের সার্জেন্ট মো.হাসনাত বলেন, ‘সকাল থেকে নিষেধাজ্ঞা অমান্য করা যারাই সামনে পড়েছেন, তাদের বিরুদ্ধেই মামলা দিয়েছি। এখন পর্যন্ত ৮ জনকে যাত্রী পরিবহনের দায়ে মামলা দিয়েছি। আমরা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সর্বাত্মক চেষ্টা করছি। তরপরও কিছু কিছু মানুষ বের হয়ে যাচ্ছে।’

ঢাকা/হাসিবুল/এনই/ 

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়