Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     শুক্রবার   ৩০ জুলাই ২০২১ ||  শ্রাবণ ১৫ ১৪২৮ ||  ১৮ জিলহজ ১৪৪২

স্বাস্থ্য খাতের বিষয়ে ভুল তথ্য দিয়েছে টিআইবি: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২২:৩৮, ১২ জুন ২০২১  
স্বাস্থ্য খাতের বিষয়ে ভুল তথ্য দিয়েছে টিআইবি: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

স্বাস্থ্য খাত বিষয়ে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন‌্যাশনাল বাংলাদেশের (টিআিইবি) প্রকাশিত প্রতিবেদন মিথ্যা ও ভুল তথ্যসম্বলিত, এ অভিযোগ করে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, ‘করোনা সংকটকালে বাংলাদেশের স্বাস্থ্য খাত যখন বিশ্বব্যাপী প্রশংসিত, তখন টিআইবি দেশের স্বাস্থ্য খাতকে নিয়ে অসত্য রিপোর্ট তুলে ধরেছে।‘

শনিবার (১২ জুন) রাজধানীর জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে করোনায় মৃত ডা. মাহমুদ মনোয়ারের প্রথম মৃত‌্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত দোয়া মাহফিলে ভার্চুয়ালি অংশ নিয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘করোনার দুঃসময়ে টিআইবি মাঠে নেমে কোনো কাজ করেনি। মাঠে কাজ করেছেন চিকিৎসক, নার্সসহ অন্যান্য ফ্রন্টলাইন যোদ্ধারা। শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত রুমে বসে তারা মুখস্থ বিদ্যার মতো ঢালাওভাবে স্বাস্থ্য খাতের সমালোচনা করেছে।‘

টিআইবির বিভিন্ন অভিযোগের জবাবে তিনি বলেন, ‘টিআইবি বলেছে, দেশে কোভিড টেস্টিং সুবিধা বৃদ্ধি করা হয়নি। অথচ, দেশে কোভিড টেস্টিং কেন্দ্র মাত্র একটি থেকে এখন ৫১০টি করা হয়েছে। টিআইবি বলেছে, হাসপাতালগুলোতে করোনা বেড বৃদ্ধি করা হয়নি। অথচ, এখন দেশে করোনা বেড ১৫ হাজারেরও বেশি। কিছু দিন আগেও ঢাকা নর্থ সিটি করপোরেশন হাসপাতালে প্রায় ১ হাজার নতুন কোভিড ডেডিকেটেড বেড করা হয়েছে। যেখানে প্রায় সবই সেন্ট্রাল অক্সিজেন সুবিধাপ্রাপ্ত এবং সেখানকার অর্ধেকেই আইসিইউ সুবিধা আছে। টিআইবি বলেছে, দেশে আইসিইউ বেড সংখ্যা বাড়েনি। অথচ, আগে দেশে মাত্র ২০০টির মতো আইসিইউ বেড ছিল, এখন আইসিইউ বেড সংখ্যা ১ হাজারের বেশি। টিআইবি ভারতের সাথে ভ্যাক্সিন ক্রয় চুক্তিতে অস্বচ্ছতার কথা বলেছে, যা মোটেও সত্য নয়। ভারতের সাথে চুক্তি থেকে শুরু করে সবকিছু ছিল স্বচ্ছ পানির মতো পরিষ্কার ও উন্মুক্ত। দেশের সব মানুষই জানে, ভারতের সাথে কী কী ছিল চুক্তিতে এবং কেন ভারত চুক্তির অবশিষ্ট টিকা দিতে পারেনি।’

জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউটের পরিচালক মীর জামাল উদ্দিনের সভাপতিত্বে দোয়া মাহফিলে বিশেষ অতিথি ছিলেন স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিব লোকমান হোসেন মিয়া, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক এবিএম খুরশিদ আলম, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্যবিষয়ক সম্পাদক রোকেয়া সুলতানা প্রমুখ।

ঢাকা/সাওন/রফিক

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়