Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     বৃহস্পতিবার   ০২ ডিসেম্বর ২০২১ ||  অগ্রহায়ণ ১৮ ১৪২৮ ||  ২৫ রবিউস সানি ১৪৪৩

লক্ষ্মীপুর-২ উপনির্বাচনসহ প্রথম ধাপের ২০৪ ইউপিতে ভোটগ্রহণ চলছে

নিউজ ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ০৮:৪২, ২১ জুন ২০২১   আপডেট: ০৮:৪৫, ২১ জুন ২০২১
লক্ষ্মীপুর-২ উপনির্বাচনসহ প্রথম ধাপের ২০৪ ইউপিতে ভোটগ্রহণ চলছে

করোনাভাইরাস সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউয়ের মধ্যে স্থানীয় সরকার পর্যায়ের জনপ্রতিনিধি নির্বাচন শুরু হয়েছে। একইসঙ্গে অনুষ্ঠিত হচ্ছে লক্ষ্মীপুর-২ আসনের উপনির্বাচনও।

এদিন প্রথম ধাপে ২০৪ ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) পাশাপাশি দুই পৌরসভার ভোটও হচ্ছে।

সোমবার (২১ জুন) যথারীতি সকাল ৮টা থেকে এই নির্বাচন শুরু হয়েছে ভোটগ্রহণ; চলবে একটানা বিকেল ৪টা পর্যন্ত।

ইসির জনসংযোগ পরিচালক যুগ্মসচিব এস এম আসাদুজ্জামান বিষয়টি জানিয়েছেন।

এস এম আসাদুজ্জামান জানান, প্রথম ধাপে ২০৪ ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) পাশাপাশি দুই পৌরসভার ভোট হচ্ছে। এর মধ্যে সংসদীয় আসনের উপনির্বাচন এবং দুটি পৌরসভা ও ২০ ইউপিতে ইভিএমে ভোট হবে। এই ২০৪ ইউপির মধ্যে চেয়ারম্যান পদে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন ২৮ জন। এখন লড়াইয়ে রয়েছেন চেয়ারম্যান পদে ৮৫৯ জন, সাধারণ ওয়ার্ডে সদস্য ৬৯৬০ জন ও সংরক্ষিত সদস্য ওয়ার্ডে ২১৫৪ জন প্রার্থী। দলীয় প্রতীকের এই নির্বাচনে আওয়ামী লীগ, জাতীয় পার্টি, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশসহ কয়েকটি দল অংশ নিচ্ছে। বিএনপি অংশ না নেওয়ায় দলটির যারা প্রার্থী হয়েছেন তারা ভোটে লড়ছেন স্বতন্ত্র হিসেবে।

অন্যদিকে, কুয়েতে কারাদণ্ড পাওয়া কাজী শহীদ ইসলাম পাপুলের সংসদ সদস্য পদ শূন্য ঘোষণা করা হলে লক্ষ্মীপুর-২ আসনে উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এই আসনে আওয়ামী লীগের নুর উদ্দিন চৌধুরী নয়ন এবং জাতীয় পার্টির শেখ মোহা. ফায়িজ উল্যাহ শিপন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

দেশের প্রায় সাড়ে চার হাজার ইউপির মধ্যে প্রথম ধাপে ভাইরাস সংক্রমণের ঝুঁকি তুলনামূলক কম রয়েছে এমন এলাকায় নির্বাচন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কমিশন। পরিস্থিতির উন্নতি হলে ধাপে ধাপে বাকিগুলোয় নির্বাচনের কথা রয়েছে।

এসব নির্বাচন ১১ এপ্রিল হওয়ার কথা ছিল। ভাইরাস সংক্রমণ উদ্বেগজনক হারে বাড়ার কারণে ভোটের ১০ দিন আগে তা স্থগিত করা হয়। পরে ফের ভোটের তারিখ নির্ধারণ করা হয় ২১ জুন। সর্বশেষ দ্বিতীয় ঢেউয়ে সীমান্ত জেলাগুলোতে সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতি বজায় থাকলে ১৬৩ ইউপি ও ৯ পৌরসভার ভোট স্থগিত করা হয়। অন্যদিকে সোমবার যেসব স্থানে ভোট হচ্ছে, সেখানে সংক্রমণ অপেক্ষাকৃত কম হওয়ায় তা বহাল রাখা হয়।

ইসির অতিরিক্ত সচিব অশোক কুমার দেবনাথ জানান, বরাবরের মত পর্যাপ্ত সংখ্যক আইন শৃঙ্খলাবাহিনীর সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে। সুষ্ঠু ভোটের জন্য রিটার্নিং কর্মকর্তা ও স্থানীয় প্রশাসনকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। আইন শঙ্খলা রক্ষায় বিভিন্ন বাহিনীর প্রায় ৪৫ হাজার সদস্য মাঠে রয়েছেন।

যে ২০৪ ইউনিয়ন পরিষদে নির্বাচন হবে:

পটুয়াখালীর দুমকী উপজেলার পাংগাশিয়া, আংগারিয়া (ইভিএম) ও মুরাদিয়া। বাউফল উপজেলার ধুলিয়া, কেশবপুর, বগা (ইভিএম), চন্দ্রদ্বীপ, কালিশ্বরী, কনকদিয়া, আদাবাড়িয়া, কালাইয়া ও কাছিপাড়া। দশমিনা উপজেলায় আলীপুর, বহরমপুর ও বাঁশবাড়িয়া। গলাচিপা উপজেলায় আমখলা, গোলখালী, চিকনিকান্দি ও রতনদী তালতলী। রংপুর জেলার পীরগাছা উপজেলার কল্যাণী। বগুড়ার দুপচাঁচিয়ার তালোড়া। বরিশাল সদরের কাশিপুর, চরবাড়িয়া (ইভিএম), জাগুয়া ও টংগীবাড়ীয়া। বাকেরগঞ্জের চরাদি, দাড়িয়াল, দুধল, ফরিদপুর, কবাই, নলুয়া, কলসকাঠি, গারুড়িয়া, ভরপাশা, রঙ্গাশ্রী ও পাদ্রীশিবপুর। উজিরপুরের সাতলা, জল্লা, ওটরা, শোলক ও বোরোকোঠা। মুলাদীর নাজিরপুর, সফিপুর, গাছুয়া (ইভিএম), চরকালেখা, মুলাদী ও কাজিরচর। মেহেন্দিগঞ্জের মেহেন্দিগঞ্জ ও ভাষানচর। বাবুগঞ্জের বীরশ্রেষ্ঠ জাহাঙ্গীরনগর (ইভিএম), কেদারপুর, দেহেরগতি ও মাধবপাশা। গৌরনদীর বাটাজোড় (ইভিএম), সরিকল, খানজাপুর, বার্থি, চাদশী ও মহিলারা। হিজলার নলচিরা, মেমানিয়া, গুয়াবাড়িয়া ও বড়জালিয়া। বানারীপাড়ার বিশারকান্দি, ইলুহার, চাখার, সালিয়াবাকপুর, বাইশারি, বানারীপাড়া ও উদয়কাঠি। বরগুনা সদরের বদরখালী, গৌরিচন্না, ফুলঝুড়ি, কেওড়াবুনিয়া, আয়লাপাতাকাটা, বুড়িরচর, ঢলুয়া(ইভিএম), বরগুনা (ইভিএম) ও নলটোনা। আমতলীর গুলিশাখালী, কুকুয়া, আঠারগাছিয়া, হলদিয়া, চাওড়া (ইভিএম) ও আরপাঙ্গাশিয়া। বেতাগীর বিবিচিনি, বেতাগী (ইভিএম), হোসনাবাদ, মোকামিয়া, বুড়ামজুমদার, কাজিরাবাদ ও সরিষামুড়ি। বামনার বুকাবুনিয়া, বামনা, রামনা ও ডৌয়াতলা। পাথরঘাটার কালমেঘা, কাঁকচিড়া ও কাঁঠালতলী। পিরোজপুরের ভাণ্ডারিয়ার ভিটাবাড়িয়া, নদমুলা-শিয়ালকাঠী, তেলিখালী (ইভিএম), ধাওয়া ও গৌরিপুর। ইন্দুরকানীর বালিপাড়া। পিরোজপুর সদরের কদমতলা (ইভিএম), কলাখালী, টোনা ও শারিকতলা। মঠবাড়িয়ার তুষখালী (ইভিএম), মিরুখালী, বেতমোর রাজপাড়া, আমড়াগাছিয়া, সাপলেজা, হলতাগুলিশাখালী। নেছারাবাদের আটঘর কুড়িয়ানা, বলদিয়া, গুয়ারেখা, দৈহারী, সোহাগদল, সারেংকাঠী, সুটিয়াকাঠী, স্বরুপকাঠী, সমুদয়কাঠী ও জলাবাড়ী। কাউখালীর আমড়াজুড়ি ও কাউখালী। নাজিরপুরের মাটিভাংগা, মালিখালী, নাজিরপুর ও সেখমাটিয়া (ইভিএম)। ঝালকাঠি সদরের গাভারামচন্দ্রপুর, বিনয়কাঠী (ইভিএম), নবগ্রাম, কীর্তিপাশা, বাসন্ডা, গাবখান, ধানসিড়ি, শেখেরহাট, নথুল্লাবাদ (ইভিএম) ও কেওড়া। নলছিটির ভৈরবপাশা (ইভিএম), মগড়, কুলকাঠি, কুশঙ্গল, নাচনমহল, রানপাশা, সুবিদপুর, সিদ্ধকাঠি, দপদপিয়া (ইভিএম) ও মোল্লারহাট। রাজাপুরের সাতুরিয়া, শুক্তগড় (ইভিএম), রাজাপুর, গালুয়া, বড়ইয়া ও মঠবাড়ী। কাঠালিয়ার চেচরীরামপুর, পাটিখালঘাটা, আমুয়া, কাঠালিয়া, শৌলজালিয়া ও আওরাবুনিয়া। ভোলার বোরহানউদ্দিনের গঙ্গাপুর ও সাচরা। তজুমদ্দিনের চাঁদপুর, চাচরা ও সম্ভুপুর। চরফ্যাশনের চরমাদ্রাজ, চরকলমি, হাজারীগঞ্জ, এওয়াজপুর ও জাহানপুর। মনপুরার হাজিরহাট ও দক্ষিণ সাকুচিয়া। নরসিংদী পলাশের গজারিয়া ও ডাংগা। গাজীপুরের কালীগঞ্জের তুমুলিয়া, বক্তারপুর, জাঙ্গালিয়া, বাহাদুসাদী, জামালপুর ও মোক্তারপুর। গাজীপুর জেলার কালীগঞ্জ উপজেলার ডাঙ্গা, তুমুলিয়া, বক্তারপুর, জাঙ্গালিয়া, বাহাদুসাদী, জামালপুর ও মোক্তারপুর। মাদারীপুর শিবপুরের শিবচর, পাঁচ্চর, মাদবরেরচর, কুতুবপুর, কাদিরপুর (ইভিএম) দ্বিতীয় খণ্ড, ভান্ডারীকান্দি, বাঁশকান্দি, বহেরাতলা উত্তর, বহেরাতলা দক্ষিণ, নিলখী, শিরুয়াইল ও দত্তপাড়া। সুনামগঞ্জ ছাতকের ভাতগাও, নোয়ারাই ও সিংচাপইড়। লক্ষ্মীপুরের রামগতির চর বাদাম, চর পোড়াগাছা ও চর রমিজ। কমলনগরের চর ফলকন, হাজিরহাট ও তোরাবগঞ্জ।

ঢাকা/বুলাকী

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়