Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     বুধবার   ০৪ আগস্ট ২০২১ ||  শ্রাবণ ২০ ১৪২৮ ||  ২৩ জিলহজ ১৪৪২

ঈদের দ্বিতীয় দিনেও চলছে চামড়া কেনাবেচা, মিলছে না দাম

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৩:১৬, ২২ জুলাই ২০২১   আপডেট: ১৪:১৩, ২২ জুলাই ২০২১

পবিত্র ঈদুল আজহার দ্বিতীয় দিনেও (২২ জুলাই) রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় পশু কোরবানি চলছে। এরই ধারাবাহিকতায় ঈদের দ্বিতীয় দিনে জবাই করা পশুর চামড়া কেনবেচাও হচ্ছে।

তবে চামড়ার ন্যায্য দাম দেওয়া হচ্ছে না বলে অভিযোগ করছেন মৌসুমি ব্যবসায়ীরা। ঈদের প্রথমদিনও একই অভিযোগ করেছিলেন তারা। তাদের অভিযোগ, ট্যানারি মালিকরা সিন্ডিকেট করে চামড়ার দাম কমিয়ে রেখেছেন। ফলে লোকসান গুনতে হচ্ছে মৌসুমি ব্যবসায়ীদের। তবে ট্যানারি ব্যবসায়ীরা বলেছেন, সরকারের নির্ধারন করে দেওয়া দামের চেয়ে বেশি দামে তারা চামড়া কিনছেন না।

রাজধানীর স্যাইন্সল্যাব এলাকা ঘুরে এমন চিত্র দেখা গেছে।

ট্যানারি কর্তৃপক্ষের প্রতিনিধিরা জানান, অন্যান্য বারের তুলনায় এবারের ঈদের চামড়ার পরিমাণ কম। আর ঈদের দ্বিতীয় দিনে আরো কম চামড়া আসছে। এবার তুলনামূলক দামও কম রয়েছে। ট্যানারি কর্তৃপক্ষের বেঁধে দেওয়া দাম অনুযায়ী, বড় সাইজের গরুর প্রতিপিস চামড়া কেনা হচ্ছে ৭০০ থেকে ৮৫০ টাকায়। আর মাঝারি সাইজের প্রতিপিস গরুর চামড়া কেনা হচ্ছে ৪০০ থেকে ৬০০ টাকায়। এছাড়া ছোট গরুর প্রতিপিস চামড়া ৩০০ থেকে ৪০০ টাকায় কেনা হচ্ছে।

ঈদের দ্বিতীয় দিন সকালে রাজধানীর ধানমন্ডি এলাকা থেকে চামড়া সংগ্রহ করেছেন আমজাদ হোসেন। পরে তা বিক্রির জন্য এনেছেন সাইন্সল্যাব এলাকায়। তিনি বলেন, ‘মাঝারি সাইজের গরুর তিন পিস চামড়া কিনেছি ৪৫০ টাকা করে মোট ১২৫০ টাকায়। এছাড়া রিকশা ভাড়া ১৫০ টাকা। সে হিসেবে তিনপিস চামড়া আনতে খরচ পড়েছে ১৪০০ টাকা। কিন্তু এখানে ট্যানারি মালিকা তিনটি চামড়ার দাম বলছে মাত্র ১০০০ টাকা। ১৮০০ টাকা হলে বিক্রি করতাম। তাই চামড়া ফেরত নিয়ে যাচ্ছি। লবন দিয়ে রেখে দিব। পরে বিক্রি করব। এবার চামড়া কিনে লোকসান হচ্ছে। এলাকা গুলোতে মৌসুমি ব্যবসায়িদের চামড়া কেনার প্রতিযোগিতা চলে। তাই কিছু বেশি দামে চামড়া কেনা লাগে। সরকারে নির্ধারিত রেটের সঙ্গে মিল রাখা যায় না।’  

চামড়া ক্রেতা আয়েশা লেদারের কর্মকর্তা জহির উদ্দিন বলেন, ‘চামড়াগুলো ছোট সাইজের। তাই দাম বেশি দেওয়া যাচ্ছে না। আর আমাদের এখানে যে চামড়া আসছে তা লবনবিহীন। তাই আমরা ট্যানারি কর্তৃপক্ষের নির্ধারিত দামে চামড়া কিনছি।’

এবার ঢাকায় লবণযুক্ত প্রতি বর্গফুট গরুর কাঁচা চামড়ার মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ৪০ থেকে ৪৫ টাকা।  ঢাকার বাইরে ৩৩ থেকে ৩৭ টাকায় নির্ধারণ করা হয়েছে। পাশাপাশি সারাদেশে খাসির কাঁচা চামড়া ১৫ থেকে ১৭ টাকা এবং বকরির কাঁচা চামড়া ১২ থেকে ১৪ টাকায় কেনা হবে।

ঢাকা/এনটি/এমএম

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়