Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     শনিবার   ২৭ নভেম্বর ২০২১ ||  অগ্রহায়ণ ১৩ ১৪২৮ ||  ২০ রবিউস সানি ১৪৪৩

প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ে শেখ রাসেল দিবস পালিত

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৭:২০, ১৮ অক্টোবর ২০২১  
প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ে শেখ রাসেল দিবস পালিত

ছবি: আইএসপিআর

গভীর শ্রদ্ধা আর অফুরন্ত ভালোবাসার সাথে শেখ রাসেলের ৫৮তম জন্মদিন উপলক্ষে শেখ রাসেল দিবস উদযাপন করেছে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়।

‘শেখ রাসেল দীপ্ত জয়োল্লাস অদম্য আত্মবিশ্বাস’ প্রতিপাদ্য সামনে রেখে শেখ রাসেল দিবস উদযাপন উপলক্ষে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় কর্তৃক সোমবার দিনব্যাপী কর্মসূচির আয়োজন করা হয়।  প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব ড. মো. আবু হেনা মোস্তফা কামাল, এনডিসি ‘শেখ রাসেল সম্পর্কে জানি ও জানাই’ প্রত্যয়ে বিএনসিসি ক্যাডেট এবং মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন দপ্তর ও সংস্থা প্রধানদের হাতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার লেখা ‘আমাদের ছোট রাসেল সোনা’ সহ শেখ রাসেলকে নিয়ে লেখা বেশকিছুসংখ্যক বই উপহার হিসেবে তুলে দিয়ে দিনের কর্মসূচির সূচনা করেন।

পরবর্তী সময়ে শেখ রাসেল দিবসের প্রতিপাদ্য নিয়ে আলোচনা সভা হয়। সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে সিনিয়র সচিব ড. মো. আবু হেনা মোস্তফা কামাল  এনডিসি বলেন, ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট কালোরাতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের সঙ্গে ঘাতকদের হাতে নির্মম হত্যাকাণ্ডের শিকার হন জাতির পিতার কনিষ্ঠ সন্তান ইউনিভার্সিটি ল্যাবরেটরি স্কুলের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র শেখ রাসেল। সেদিন শিশু রাসেলকে হত্য করার মধ্য দিয়ে ঘাতকরা রাসেলের জীবনকেই শুধু কেড়ে নেয়নি, সেই সঙ্গে ধ্বংস করেছে তার অবিকশিত অপার সম্ভাবনা যা সুন্দর ও শান্তিময় বাংলাদেশ এবং বিশ্ব গড়ার ক্ষেত্রে অগ্রণি ভূমিকা পালন করতে পারতো।  বাঙালির হৃদয়জুড়ে রয়েছে শিশু শেখ রাসেল। শেখ রাসেল আজ বাংলাদেশের শিশু-কিশোরসহ সবার কাছে ভালোবাসা ও অনুপ্রেরণার নাম। যারা এদেশকে ভালোবাসে, যারা জাতির পিতাকে ভালোবাসে, যারা এদেশের উন্নয়ন এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণের অংশিদার তারা সবাই শিশু শেখ রাসেলের মর্মান্তিক জীবনাবসানের বেদনা হৃদয়ে ধারণ করে বাংলার প্রতিটি শিশু-কিশোর তরুণের মুখে হাসি ফোটাতে আজ বদ্ধপরিকর।

সভায় অংশগ্রহণকারী অন্যান্য বক্তারা শেখ রাসেল সম্পর্কে আবেগঘন আলোচনা করেন।  পরিশেষে, শেখ রাসেলসহ ১৯৭১ সালের ১৫ আগস্টে শাহাদাত বরণকারী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব ও অন্যান্য শহীদদের আত্মার মাগফিরাত কামনা দোয়া করা হয়।

এদিকে আন্ত:বাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর (আইএসপিআর) এ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কনিষ্ঠ পুত্র শেখ রাসেলের ওপর আলোচনা ও তার আত্মার শান্তি কামনা করে দোয়ার মাধ্যমে শেখ রাসেল দিবস পালিত হয়েছে। আইএসপিআর পরিদপ্তরের পরিচালক লে. কর্নেল আবদুল্লাহ ইবনে জায়েদ শেখ রাসেল দিবসের তাৎপর্য তুলে ধরে আলোচনা করেন। পরিদপ্তরের সব স্তরের কর্মকর্তা কর্মচারীরা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

হাসান/এসবি

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়