ঢাকা     বুধবার   ২৬ জানুয়ারি ২০২২ ||  মাঘ ১২ ১৪২৮ ||  ২২ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

দৈনিক ৪ হাজার বাংলাদেশিকে ভিসা দিচ্ছে সৌদি আরব

কূটনৈতিক প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৯:০৯, ১৬ নভেম্বর ২০২১  
দৈনিক ৪ হাজার বাংলাদেশিকে ভিসা দিচ্ছে সৌদি আরব

ঢাকাস্থ সৌদি দূতাবাস প্রতিদিন ৪ হাজার বাংলাদেশিকে ভিসা দিচ্ছে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশে নিযুক্ত দেশটির রাষ্ট্রদূত ইসা ইউসেফ ইসা আলদুহাইলান। তিনি বলেন, এক দিনে সর্বোচ্চ ৮ হাজার ৬০০ ভিসাও দেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৬ নভেম্বর) রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় সৌদি বাদশাহ সালমান ফাউন্ডেশনের দেওয়া ১৫ লাখ ডোজ করোনার টিকা হস্তান্তর অনুষ্ঠানে এ তথ্য জানান সৌদি রাষ্ট্রদূত।

তিনি বলেন, ‘বর্তমানে ঢাকা দূতাবাস থেকে দিনে ৪ হাজার বাংলাদেশিকে ভিসা দেওয়া হচ্ছে। কোনো কোনো দিন এ সংখ্যা অনেক বেড়ে যায়। এক দিনে ৮ হাজার ৬০০ জনকে ভিসা দেওয়ারও রেকর্ড আছে।’

তিনি বলেন, ‘করোনা বৈশ্বিক সংকট। এ মহামারির বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে একসঙ্গে লড়তে হবে। বন্ধুত্বের নিদর্শন হিসেবে বাংলাদেশের জনগণের প্রতি সৌদি সরকারের এই উপহার।’

বাংলাদেশে বেশিরভাগ মানুষকে দেওয়া হচ্ছে চীনের সিনোফার্মের উদ্ভাবিত বিবিআইবিপি-করভি টিকা। এ টিকা ব্যবহারের অনুমোদন এখনও দেয়নি সৌদি সরকার। ফলে, এই টিকা নিয়ে গেলেও মধ্যপ্রাচ্যের দেশটিতে কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হচ্ছে প্রবাসীদের।

এ সমস্যা সমাধানে সৌদি রাষ্ট্রদূতের কাছে প্রস্তাব দিয়েছেন বাংলাদেশের স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। তিনি জানিয়েছেন, সৌদি আরব বর্তমানে মডার্না, ফাইজার, জনসন অ্যান্ড জনসন ও অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা অনুমোদন করছে। সেজন্য বাংলাদেশ থেকে সিনোফার্ম বা সিনোভেকের টিকা নিয়ে গেলে সেখানে কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হয়।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘এ বিষয়ে আজও আমি কথা বলেছি। তাদের বলেছি, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার অনুমোদন পাওয়া সব টিকা অনুমোদন দিতে। তারা এ বিষয়ে কাজ করছে। তবে, যতদিন এটা অনুমোদন না হবে, ততদিন তাদের আইন মানতে হবে।’

সৌদি রাষ্ট্রদূত বলেন, ‘টিকার নিয়ম সব দেশের জন্য সমানভাবে প্রযোজ্য। চীনের ভ্যাকসিন সৌদি আরবে অনুমোদনের বিষয়টি সৌদি সরকারের সক্রিয় বিবেচনায় আছে। এটা সময়সাপেক্ষ।’

সৌদি সরকার বাংলাদেশে টিকা উৎপাদনেও সহায়তা করতে চায় বলে জানিয়েছেন জাহিদ মালেক। তিনি বলেন, ‘আজও সৌদি রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে আমার কথা হয়েছে। তারা বাংলাদেশে টিকা উৎপাদনে সহায়তা করতে চায়। দ্রুত সময়ের মধ্যে তারা বাংলাদেশে টিকা উৎপাদন শুরু করতে চায়।’

করোনা মোকাবিলায় সহায়তার জন্য সৌদি সরকারের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন বলেন, ‘সবচেয়ে বড় কথা হলো, ১৫ লাখ টিকা উপহার হিসেবে দিয়েছে তারা। সেই সঙ্গে ১ লাখ ডলারের চিকিৎসা সরঞ্জাম সরবরাহ করেছে। আমরা কৃতজ্ঞতা জানাই।’

তিনি বলেন, ‘করোনাকালে সৌদি আরবে অবস্থানরত প্রবাসী বাংলাদেশিদের টিকা দিয়েছে দেশটি। এছাড়া, করোনার দুঃসময়ে কোনো প্রবাসী বাংলাদেশিকে ফেরত পাঠায়নি সৌদি আরব। এজন্য আমরা তাদের প্রতি কৃতজ্ঞ।’

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন—পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব লোকমান হোসেন মিয়া প্রমুখ।

ঢাকা/হাসান/রফিক

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়