ঢাকা     বুধবার   ৩০ নভেম্বর ২০২২ ||  অগ্রহায়ণ ১৬ ১৪২৯ ||  ০৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪১৪

পহেলা বৈশাখেও ফাঁকা রাজধানীর বিনোদনকেন্দ্র

মেসবাহ য়াযাদ || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৭:১৩, ১৪ এপ্রিল ২০২২   আপডেট: ১৮:০৯, ১৪ এপ্রিল ২০২২
পহেলা বৈশাখেও ফাঁকা রাজধানীর বিনোদনকেন্দ্র

পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে আজ সরকারি ছুটি। এর পাশাপাশি আগামী শুক্রবার ও পরশু শনিবারও ছুটি। টানা তিন দিনের ছুটি উপভোগ করতে অনেক মানুষ চলে গেছেন গ্রামের বাড়িতে বা অন্য কোথাও বেড়াতে। সে কারণে রাজধানী বেশ ফাঁকা।

আজ বাংলা বছরের প্রথম দিনে সকাল থেকে রমনা বটমূল, শাহবাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় টিএসসিসহ আশপাশের এলাকা লোকে লোকারণ্য। রমনার বটমূলে ছায়ানটের অনুষ্ঠান শেষে মানুষের ঢল নামে টিএসসি এলাকায়। এবারের মঙ্গল শোভাযাত্রা টিএসসি থেকে শুরু হয়ে ঢাবির ভিসির বাড়ির সামনে দিয়ে ঘুরে আবারও টিএসসিতে এসে শেষ হয়েছে।

এসব এলাকার বাইরে ঢাকার চিত্র একদম ভিন্ন। বিশেষ করে রাজধানীর বিনোদনকেন্দ্রগুলোতে নেই মানুষ। অন্যান্য দিনে সাধারণত যে পরিমাণ মানুষ বিনোদনকেন্দ্রগুলোতে বেড়াতে যায়, সে পরিমাণ মানুষজনেরও দেখা মেলেনি রাজধানীর কয়েকটি বিনোদনকেন্দ্রে।

সচরাচর ছুটির দিনে ধানমন্ডির রবীন্দ্র সরোবর, চন্দ্রিমা উদ্যান এলাকা, সংসদ ভবনের দক্ষিণ প্লাজা এবং হাতিরঝিল থাকে দর্শনার্থীতে ভরপুর। অথচ আজকের চিত্র পুরোই ভিন্ন। এসব এলাকা একেবারে জনমানবশূন্য বলা যায়।

সরেজমিনে সকাল ১১টা থেকে দুপুর একটা পর্যন্ত রবীন্দ্র সরোবর, সংসদ ভবন, চন্দ্রিমা লেক ও উদ্যান এবং হাতিরঝিল ঘুরে দর্শনার্থীদের দেখা পাওয়া যায়নি।

পহেলা বৈশাখকে কেন্দ্র করে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী সতর্ক অবস্থায় আছে। নিরাপদে পহেলা বৈশাখের মূল দুটি অনুষ্ঠান (রমনা বটমূলে ছায়ানটের অনুষ্ঠান ও চারুকলার মঙ্গল শোভাযাত্রা) শেষ করতে পারার লক্ষ্যে গত মধ্যরাত থেকে রাজধানীর ১৭টি পয়েন্টে যান চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়। অনেকগুলো এলাকায় যান চলাচল সীমিত করা হয়। ফলে, রাজধানীর মানুষ পহেলা বৈশাখ উদযাপনের জন্য চলে আসে শাহবাগ ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায়।

আইনশৃঙ্খলার স্বার্থে গতকালই ঘোষণা করা হয়, পহেলা বৈশাখের সকল অনুষ্ঠান আজ (১৪ এপ্রিল) দুপুরের মধ্যে শেষ করতে হবে। ফলে, রাজধানীবাসী সকালে ছায়ানটের অনুষ্ঠান এবং চারুকলার মঙ্গল শোভাযাত্রা শেষে বাড়ির পথ ধরে। ব্যাপকভাবে রাজধানীতে যানবাহন বন্ধ থাকাতে মানুষজনের চলাচলেও অনেক ভোগান্তি পোহাতে হয়।

অন্য বছরগুলোতে পহেলা বৈশাখের দিন মানুষ সকালের অনুষ্ঠান শেষ করে বিভিন্ন বিনোদনকেন্দ্রে ঘুরে একবারে সন্ধ্যায় বা রাতে বাসায় ফিরে যেতো। এবার দুপুরের মধ্যে অনুষ্ঠান শেষ করার ঘোষণা এবং যানবাহন না পাওয়াতে মানুষজন বাসায় ফিরে গেছেন। ফলে, রাজধানীর বিভিন্ন বিনোদনকেন্দ্রে গিয়েও দর্শনার্থীদের দেখা পাওয়া যায়নি।

মেয়া/রফিক

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়