RisingBD Online Bangla News Portal

ঢাকা     বৃহস্পতিবার   ০১ অক্টোবর ২০২০ ||  আশ্বিন ১৬ ১৪২৭ ||  ১৩ সফর ১৪৪২

আওয়ামী লীগের স্বাধীনতার চেতনা মানে ভোট চুরি: মওদুদ

নিজস্ব প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৩:১২, ১২ নভেম্বর ২০১৯   আপডেট: ০৫:২২, ৩১ আগস্ট ২০২০
আওয়ামী লীগের স্বাধীনতার চেতনা মানে ভোট চুরি: মওদুদ

স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনার কথা বলে আওয়ামী লীগ নাগরিক অধিকার হরণ করছে বলে মন্তব্য করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ বলেছেন, এটাই এখন তাদের চেতনা।

মঙ্গলবার বিকেলে জাতীয় প্রেসক্লাবে এক আলোচনা সভায় তিনি বলেন, তারা স্বাধীনতা  ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে নতুন ভাবে সংঙ্গায়িত করছে।

৭ নভেম্বর জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস উপলক্ষে বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি, বর্তমান সরকারের পদত্যাগ ও অবিলম্বে নিরপেক্ষ নির্বাচনের দাবীতে জাতীয়তাবাদী মুক্তিযোদ্ধা দল এ সভার আয়োজন করে।

সভায় ব্যারিস্টার মওদুদ বলেন, ‘আজকে বাংলাদেশের মানুষের কাছে স্পষ্ট হয়ে গেছে, এই স্বাধীনতার চেতনা মানে হলো একদলীয় শাসন, স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা মানে হল ভোট চুরি করে ক্ষমতা দখল করে রাষ্ট্র পরিচালনা করা,স্বাধীনতার চেতনা মনে হলো বিচার বিভাগের স্বাধীনতা থাকতে পারবে না, আইনের শাসন থাকতে পারবে না, আমাদের গণমাধ্যমের স্বাধীনতা থাকতে পারবে না। এই হলো স্বাধীনতার চেতনা, তাদের নতুন সংজ্ঞা অনুযায়ী এই হল স্বাধীনতার চেতনা। তারা বারবার এই চেতনার কথা বলছে।’

তিনি বলেন, আজকে কথা বলার অধিকার নেই, ভোটের অধিকার নেই।’

জাতীয়তাবাদী দলে যত মুক্তিযোদ্ধা আছে, আওয়ামী লীগে তত মুক্তিযোদ্ধা নেই বলেও উল্লেখ করেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির এ সদস্য।

দেশে কোনো রাজনীতি নেই, বিরোধীদলও নেই-এমন মন্তব্য করে তিনি বলেন, ‘কিন্তু আমরা লক্ষ করেছি, সরকারের মধ্যে এক ধরনের বিরাট অস্থিরতা বিরাজ করছে। এর কারণটা কি? তাদের দু:শাসন, অপশাসন, দুর্নীতি, অত্যাচার, নির্যাতন, নিপীড়ন এগুলো এমন পর্যায়ে চলে গেছে যে, আজকে তাদের এ অপকর্মের ভারে তাদের পতন ঘটবে।’

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন নাগরিক ঐক্যের আহবায়ক মাহামুদুর রহমান মান্না, সাংবাদিক শওকত মাহমুদ, বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, বিএনপির সহ প্রচার সম্পাদক শামীমুর রহমান শামীম প্রমুখ।

সভায় বিএনপির যুগ্ন মহাসচিব ও যুবদলের সাবেক সভাপতি এডভোকেট সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল বলেন, এই আওয়ামী লীগ শেখ মুজিবুর রহমানের আওয়ামী লীগ নয়, হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দীর, মাওলানা ভাসানীর আওয়ামী লীগ না। এই আওয়ামী লীগের ডিএনএ টেস্ট করা দরকার। কারণ আওয়ামী লীগের নেতারা বলেন, দলে অনুপ্রবেশকারী ঢুকেছে। তাই ডিএনএ টেস্ট করে দেখা দরকার, এটা আসল আওয়ামী লীগ কিনা।


ঢাকা/সাওন/সাজেদ

রাইজিংবিডি.কম

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়