ঢাকা     রোববার   ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ ||  আশ্বিন ১২ ১৪২৭ ||  ০৯ সফর ১৪৪২

‘সাম্প্রদায়িকতার বিভেদ গড়ার অপচেষ্টা সফল হবে না’

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৫:৩৮, ১১ আগস্ট ২০২০   আপডেট: ১০:৩৯, ২৫ আগস্ট ২০২০
‘সাম্প্রদায়িকতার বিভেদ গড়ার অপচেষ্টা সফল হবে না’

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের (ফাইল ছবি)

অসাম্প্রদায়িক চেতনা দিয়েই দেশের সমৃদ্ধির সোপান গড়ে তোলার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, ‘বিভেদের কৃত্রিম প্রাচীর যারা গড়তে অপচেষ্টা করে, তারা কোনোদিন সফল হবে না।’

মঙ্গলবার (১১ আগস্ট) ঢাকেশ্বরী মন্দিরে জন্মাষ্টমী পালন উপলক্ষে বাংলাদেশ পূজা উদযাপন কমিটির অনুষ্ঠানে সরকারি বাসভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হয়ে তিনি এ কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘সনাতন ধর্মাবলম্বীদের জন্য আজ উৎসবের দিন, ভগবান শ্রীকৃষ্ণের জন্মদিন। আজ এ আনন্দের দিনে, সনাতন ধর্মের অনুসারীদের আমি আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে জানাচ্ছি আন্তরিক শুভেচ্ছা এবং অভিনন্দন।’

সংখ্যালঘুদের ভয়ের কোনো কারণ নেই জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘মাঝে মধ্যে বিচ্ছিন্নভাবে একটি অশুভ চক্র, একটি সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠী এদেশের হাজার বছরের ঐতিহ্যে আঘাত হানার অপচেষ্টা করে। আমি আপনাদের আশ্বস্ত করতে চাই, শেখ হাসিনা যতদিন আছেন, আপনাদের কোনো ভয় নেই। আপনারা এদেশের উন্নয়নের অংশীদার।  বিভেদের কৃত্রিম প্রাচীর যারা গড়তে অপচেষ্টা করে তারা কোনোদিন সফল হবে না।’

‘এদেশ সৌহার্দ্যের দেশ, এদেশে প্রতিবেশীর মধ্যে সহযোগিতার যে সম্পর্ক-তা সামাজিক বন্ধন থেকেই উৎসারিত।  আমাদের এগিয়ে যাওয়ার মূলমন্ত্র হচ্ছে, সামাজিক সখ্য এবং ঐক্য। আমরা এ একতা ধরে রেখেই বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ে তুলতে চাই । গড়ে তুলতে চাই দেশরত্ন শেখ হাসিনার সমৃদ্ধ বাংলাদেশ।’ 

সাম্প্রদায়িক অপশক্তি থেকে সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়ে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘সুযোগ পেলেই সাম্প্রদায়িক অপশক্তি আঘাত হানে বিভিন্ন কৌশলে। তাদের অপচেষ্টা এখনও চলছে, তারা এখনও সক্রিয়। বিষদাঁত ভেঙে দেওয়া হয়েছে বলে আত্মতুষ্টির সুযোগ নেই। তাই আমাদের সতর্ক থাকতে হবে। থাকতে হবে সচেতন।’ 

তিনি বলেন, ‘শ্রীকৃষ্ণের প্রতিটি উপদেশ আজ এত বছর পরেও প্রাসঙ্গিক। প্রতিটি ধর্মই নীতিবোধের ওপর প্রতিষ্ঠিত। প্রত্যেকে নিজ নিজ ধর্মের অনুশাসন মেনে চললে ব্যক্তি জীবন যেমনি আলোকিত হবে, তেমনি সামাজিক হানাহানি বন্ধ হয়ে গড়ে উঠবে শান্তিময় মানবিক সমাজ। আসুন আমরা, সে সমাজ গড়ার প্রত্যয়ে কাজ করি সবাই সম্মিলিতভাবে।’ 

ঢাকা/পারভেজ/জেডআর

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়