ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ আষাঢ় ১৪২৭, ০৭ জুলাই ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

ওরা দুর্গতিনাশিনী

খায়রুল বাশার আশিক : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০৫-৩০ ১০:২৮:৪৯ এএম     ||     আপডেট: ২০২০-০৫-৩০ ৫:০৪:০৫ পিএম

পারিবারিক নিষেধাজ্ঞা, সামাজিক বিধিনিষেধের দেয়াল তাদের ঘরে আটকে রাখতে পারেনি। তারা বেরিয়ে এসেছেন। দাঁড়িয়েছেন সমাজের অসহায়, দুস্থ মানুষের পাশে। সমাজের নিম্নবিত্ত মানুষের দুর্গতি দূর করার তাদের এই মহৎ প্রচেষ্টা সমাজে দৃষ্টান্ত তৈরি করেছে।

এই করোনাকালে মানব সেবার প্রেরণা নিয়ে দলবদ্ধ হয়ে কয়েকজন তরুণী গড়ে তুলেছেন ছোট্ট একটি দল। নাম ‘বরগুনা গার্লস ভয়েস’। দলের অধিকাংশ সদস্যা কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ছেন। সমুদ্রঘেঁষা জনপদ বরগুনার এই স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন আজ বেগম রোকেয়ার স্বপ্ন যেন পূরণ করেছে, হয়েছে প্রশংসিত।   

সংগঠনের স্বেচ্ছাসেবীরা ছোট ছোট দলে বিভক্ত হয়ে সেবা দিয়ে যাচ্ছেন বরগুনার বিভিন্ন স্থানে। অভুক্ত মানুষের মুখে সাধ্য অনুযায়ী খাবার তুলে দিচ্ছেন তারা। রাস্তার অভুক্ত কুকুরগুলোর প্রতিও তাদের রয়েছে বিশেষ নজর। পাশাপাশি সমাজের নারীদের করোনা প্রতিরোধে সচেতন করতে নিচ্ছেন বিভিন্ন পদক্ষেপ। দরিদ্র পল্লীর গর্ভবতী নারীদের স্বাস্থ্যসেবার ব্যবস্থাও করছেন তারা। ঘরবন্দী বয়ঃসন্ধিকালীন কিশোরীদের দিচ্ছেন স্যানিটারি ন্যাপকিন।  

গত ২০ মার্চ দুস্থদের খাদ্য সহায়তা দেওয়ার মধ্য দিয়ে আত্মপ্রকাশ করে ‘বরগুনা গার্লস ভয়েস’। সংগঠনের সদস্যাদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, উল্লেখিত সামাজিক সহায়তার পাশাপাশি সংগঠন থেকে ইফতার সামগ্রী, শিশুখাদ্য বিতরণ, অনলাইন কিংবা অফলাইনে মানুষের মধ্যে করোনা নিয়ে সচেতনতা সৃষ্টি, মাইকের মাধ্যমে প্রচারণা, লিফলেট বিতরণসহ একাধিক পদক্ষেপ তারা নিয়েছে। সংগঠন-প্রধান বরগুনা সরকারি কলেজের বাংলা বিভাগের শিক্ষার্থী রিমা স্মৃতি জানান, দলে যারা আছেন সবাই স্বেচ্ছাশ্রম দিচ্ছে। এই তালিকায় রয়েছে নুসরাত জাহান শিমু, মরিয়ম রোজি, সিলভিয়া রুমা, আশা, সানজিদা ফেরদৌসী, ফারজানা কেয়া, নাজিয়া, সোনিয়া, রুবি আক্তার, লিজা আক্তার ও সিনথিয়াসহ আরো অনেকেই।
 


শুরুর দিকে সংগঠনের সবাই হাত খরচের টাকা দিয়ে মানুষকে সাহায্য করতে শুরু করে। ধীরে ধীরে তাদের এই কর্মযজ্ঞ সমাজে প্রশংসিত হতে থাকে। প্রশাসনের নজরে আসে। ফলে একাধিক ব্যক্তি, প্রতিষ্ঠান এগিয়ে আসে সহযোগিতার মনোভাব নিয়ে।

রিমা স্মৃতি বলেন, করোনা পরবর্তী সময়েও আমাদের এই সংগঠন দেশের যে কোনো দুর্যোগে বা সংকটে সাধারণ মানুষের পাশে থাকবে।

এ প্রসঙ্গে স্থানীয় উন্নয়ন সংগঠন ‘জাগো নারী’র কমিউনিটি ডিরেক্টর ডিউক ইবনে আমিন বলেন, ‘করোনায় কর্মহীন হয়ে পড়েছে বরগুনার অনেক মানুষ। তাদের বিভিন্নভাবে সহায়তা দেওয়া হচ্ছে। কিন্তু লকডাউনের এমন পরিস্থিতিতে সেই সহায়তা মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেওয়াটাই চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে। সেই চ্যালেঞ্জ নিয়ে কাজ করছে বরগুনা গার্লস ভয়েস।’ 

বরগুনা পাবলিক পলিসি ফোরামের আহ্বায়ক মোহাসানুর রহমান ঝন্টু বলেন, ‘এই দুর্যোগে ঘর থেকে বেরিয়ে এসে নারীরাও যে সমাজের জন্য কাজ করতে পারে সেটি দেখিয়েছে বরগুনা গার্লস ভয়েস। তারা অন্যদের জন্য অনুপ্রেরণা হয়ে থাকবে।

 

ঢাকা/তারা