Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     রোববার   ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১ ||  আশ্বিন ১১ ১৪২৮ ||  ১৭ সফর ১৪৪৩

পরিত্যক্ত প্লাস্টিকে আসছে অর্থ, রক্ষা পাচ্ছে পরিবেশ

মো. মামুন চৌধুরী || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১২:৩৮, ২৭ জুলাই ২০২১   আপডেট: ১২:৪৭, ২৭ জুলাই ২০২১
পরিত্যক্ত প্লাস্টিকে আসছে অর্থ, রক্ষা পাচ্ছে পরিবেশ

মাসুক মিয়া। হবিগঞ্জ জেলার চুনারুঘাট উপজেলার কালিনগর গ্রামের বাসিন্দা। জীবিকা নির্বাহে তিনি প্লাস্টিকের পরিত্যক্ত মালামাল সংগ্রহ করে ভাঙারি দোকানে বিক্রি করেন। এখান থেকে উপার্জনের অর্থে তার পরিবার চলে। উপজেলার দেউন্দি চা বাগানে আলাপকালে মাসুক মিয়া এসব কথা জানান।

তিনি জানান, দেউন্দি চা বাগানের পাশেই কালিনগর গ্রামে প্রায় ২ শতক জমিতে ছোট্ট একটি ঘরে তার বাস। জীবিকা নির্বাহে তিনি কর্মস্থল পাচ্ছিলেন না। চা বাগানে ঘুরতে ঘুরতে চোখে পড়ে পরিত্যক্ত প্লাস্টিকের মালামালের দিকে। বাগানের শ্রমিকদের সঙ্গে কথা বলেন তিনি। শ্রমিকদের তিনি পরামর্শ দেন ব্যবহার করার পর প্লাস্টিকের খালি মালামাল ফেলে বাগানের পরিবেশ নষ্ট না করে জমিয়ে রাখার জন্য। পরে তিনি তাদের কাছ থেকে চানাচুর, পেঁয়াজসহ অন্যান্য পণ্যের মাধ্যমে কিনে নেবেন। সেই থেকে প্রতিদিন রিকশাভ্যানে করে কয়েক বছর ধরে তিনি দেউন্দি, লালচান্দ, গেলানীয়া, কাপাই, লস্করপুরসহ বিভিন্ন বাগানের শ্রমিকদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে প্লাস্টিকের পরিত্যক্ত মালামালগুলো সংগ্রহ করে নিয়ে ভাঙারি দোকানে বিক্রি করছেন। এতে তার দৈনিক ২০০ থেকে ৩০০ টাকা আয় হচ্ছে। এ টাকায় তিনি পরিবার নিয়ে জীবিকা নির্বাহ করছেন।

মাসুক মিয়া বলেন, প্লাস্টিকের মালামাল বাগানের প্রাকৃতিক পরিবেশের ক্ষতির কারণ হতে পারে। সেই চিন্তা থেকে পরিবেশ রক্ষার পাশাপাশি নিজের চলার পথ তৈরি করতে পেরে আমি আনন্দিত।  

চা শ্রমিক সূর্য মাল বলেন, বাগানের শ্রমিকরা ব্যবহারের পর প্লাস্টিকের বোতলগুলো ফেলে দিতেন। এতে পরিবেশের জন্য বিরাট ক্ষতি হতো। এখানে মাসুক মিয়া পরিত্যক্ত প্লাস্টিকের মালামাল চানাচুরসহ অন্যান্য পণ্যের মাধ্যমে ক্রয় করে নিয়ে বিক্রির মাধ্যমে নিজে লাভবান হচ্ছেন। তার সাথে রক্ষা পাচ্ছে প্রাকৃতিক পরিবেশ।

চা শ্রমিকদের জীবনমান উন্নয়নে গান-নাটকের মাধ্যমে কাজ করে আসা দেউন্দির প্রতীক থিয়েটারের সভাপতি সুনীল বিশ্বাস বলেন, প্লাস্টিকের বোতল মাটির উপরে দীর্ঘদিন থেকে পরিবেশের ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়ায়। মাটির উর্বরতা নষ্ট করে। এখানে মাসুক মিয়া বাগানে শ্রমিকদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে পরিত্যক্ত প্লাস্টিকের মালামাল সংগ্রহ করছে। এতে সে নিজেও লাভবান, সেইসঙ্গে বাগানের প্রাকৃতিক পরিবেশ রক্ষা পাচ্ছে।  

বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক তোফাজ্জল সোহেল বলেন, মাসুক মিয়ার কথা শুনে অত্যন্ত ভালো লেগেছে। পরিত্যক্ত প্লাস্টিকের বোতল সংগ্রহ করে তিনি নিজের চলার পথ তৈরি করেছেন। সেইসঙ্গে প্লাস্টিকের বোতল না ফেলে বিক্রি করায় বাগানের প্রাকৃতিক পরিবেশ রক্ষা পাচ্ছে।

হবিগঞ্জ/মাহি  

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়