Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     সোমবার   ২৯ নভেম্বর ২০২১ ||  অগ্রহায়ণ ১৫ ১৪২৮ ||  ২২ রবিউস সানি ১৪৪৩

শখের বাগানে গাছে গাছে পাকা ফল

মেহেদী হাসান শিয়াম, চাঁপাইনবাবগঞ্জ || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ০৯:১৩, ২৪ অক্টোবর ২০২১   আপডেট: ১২:৫১, ২৪ অক্টোবর ২০২১

মাহবুবুর রহমান বাচ্চু। চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌর এলাকার টিকরামপুর মহল্লার বাসিন্দা। তিনি ১৯৯৪ সালে সড়ক ও জনপথ বিভাগে সহকারি প্রকৌশলী পদে চাকরিতে যোগ দেন। দীর্ঘ চব্বিশ বছরের চাকরিজীবন শেষ করেন ২০১৮ সালে। অবসরের পর থেকেই প্রকৃতির সঙ্গে বাকি জীবনটা কাটানোর ইচ্ছা ছিল তার। এ চেতনাকে সামনে রেখে গোদাগাড়ী মাস্টার পাড়ায় প্রায় ১৩ বিঘা জমি কেনেন। সেখানে ২০১৬ সালে ফল গাছের বাগান করেন।

বাগানের ভেতর ঢুকতে প্রধান সড়কের ঠিক বরাবর একটি দোতলা বাড়ি নির্মাণ করা আছে। এ বাগান আর বাড়িকে শখ করে ওই এলাকার মানুষ ডাকেন প্রকৌশলীর বাগান বাড়ি নামে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, বাগান বাড়িতে ঢুকতেই চোখ পড়ে বারোমাসি নাবি জাতের আম গাছের দিকে। দেখা মেলে একটি ছোট পুকুরে মাছ আর পানিতে হাঁসের খেলা। বাগানে আছে মাল্টা, চায়না কমলা, বেদানা, বারি-৪, কাটিমন, আমড়া, জলপাই, মিষ্টি জলপাই, পেঁপে, বরই, দেশি পেয়ারা, স্ট্রবেরি, পেয়ারা, জামরুল, দেশি-বিদেশি জাতের লেবুসহ নানা জাতের ফলের গাছ। বাগান বাড়িটি দেখাশোনার জন্য দুজন কর্মচারি নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। ফলে তারা সার্বক্ষণিক দেখভাল করেন।

প্রকৌশলী মাহবুবুর রহমান বলেন, ‘আমি সহকারী প্রকৌশলীর চাকরি থেকে অবসরে আসছি ২০১৮ সালে।অবসর পরবর্তী জীবন ভালোভাবে প্রকৃতির সঙ্গে কাটানোর জন্য একটি সখের বাগান গড়ে তুলেছি। এখানে বিভিন্ন প্রজাতির গাছ, হাঁস, ছাগল, মাছ আছে। এসব নিয়ে এখন প্রকৃতির সঙ্গে মিলেমিশে জীবনযাপন করছি।এখন শুধু স্বপ্ন দেখি উদ্যোক্তা হওয়ার।’

তিনি আরও বলেন, ‘এ বাগান থেকে মাল্টা, পেয়ারা ও পেঁপেসহ আরও অনেক ফল সংগ্রহ করে তিন মৌসুমে ৭ লাখ টাকা বিক্রি করেছি। বাগানটাকে আরেকটু সম্প্রসারণ করে ভিনদেশি আরও কিছু ফলের গাছ লাগানোর ইচ্ছা আছে।’

রমজান নামে বাগানের এক কর্মচারী বলেন, ‘এ বাগান বাড়িতে ছাগল আর ৬০০ হাস আছে। আমরা এগুলা দেখাশুনা করি। মালিক শখ নিয়ে এগুলো করেছেন। তবে, এখন আয়ও হয়।’

 
ওই বাগানের রিয়াল নামের আরেক কর্মচারী বলেন, ‘এ বাগানে মাল্টার গাছ আছে ৩০০, পেয়ারা গাছ সাড়ে ৩০০, বাবি-৪ আম গাছ সাড়ে ৪০০, কাটিমন আম গাছ আছে ৩০০, আম্রপালি গাছ ৫০০। ভিন্ন জাতের চকলেট জলপাই, স্ট্রবেরি, পেয়ারা, জামরুল, চায়না কমলা, বিলাতি আমড়া, পেঁপেসহ আরও বিভিন্ন প্রজাতির ফলের গাছ। সব মিলিয়ে বাগানে প্রায় আড়াই হাজার ফলের গাছ আছে।’

/মাহি/

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়