RisingBD Online Bangla News Portal

ঢাকা     বুধবার   ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ ||  আশ্বিন ১৫ ১৪২৭ ||  ১২ সফর ১৪৪২

ঘরবন্দি জীবনযাপনে কোষ্ঠকাঠিন্য এড়াতে করণীয়

আহমেদ শরীফ || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ০৭:১৬, ১৭ মে ২০২০   আপডেট: ১০:৩৯, ২৫ আগস্ট ২০২০
ঘরবন্দি জীবনযাপনে কোষ্ঠকাঠিন্য এড়াতে করণীয়

কোষ্ঠকাঠিন্য একটি খুব পরিচিত সমস্যা। হজম প্রক্রিয়ায় জটিলতা দেখা দিলে কোষ্ঠকাঠিন্য দেখা দেয়, এতে শরীর থেকে মল বের হতে অনেক সময় নেয়। আমাদের লাইফস্টাইল, অর্থাৎ সময়মতো না খাওয়া, ঘুম কম হওয়া, ব্যায়াম কম করা, ডিহাইড্রেশন, ওষুধের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া এমন সব কারণ কোষ্ঠকাঠিন্য জটিলতা সৃষ্টি করে।

ঘরবন্দি জীবনযাপন ও কোষ্ঠকাঠিন্য: করোনাভাইরাসের কারণে যেহেতু আমাদেরকে এখন বেশিরভাগ সময় বাসায় বন্দি অবস্থায় থাকতে হচ্ছে, এ অবস্থায় অনেকেই কোষ্ঠকাঠিন্য সমস্যায় ভুগছেন।

কোয়ারেন্টাইনের সময়ে কেন কোষ্ঠকাঠিন্য বাড়ছে, তা ব্যাখ্যা করতে গিয়ে সাউথ ক্যারোলিনার গ্যাস্ট্রোঅ্যানটেরোলজিস্ট উইলিয়াম জে. বুলসিজ বলেছেন, ‘বাসায় থাকাকালে আমরা খুব একটা শারীরিক কাজ করি না এবং হয়তো বেশি আঁশযুক্ত খাবার খাচ্ছি না বা পানি কম পান করছি। মহামারির এই সময়ে মানসিক চাপের কারণেও অনেকে কোষ্ঠকাঠিন্যে আবার কেউ কেউ ডায়রিয়াতে ভুগছেন।’

করোনার কারণে অনিশ্চিত ভবিষ্যত, আর্থিক ঘাটতি, মহামারির ভয়, এসব কারণে আমাদের পাকস্থলী ঠিকঠাক মতো কাজ করতে পারছে না। ঘরবন্দি এ সময়ে কোষ্ঠকাঠিন্য থেকে রেহাই পেতে যা করবেন-

শারীরিক পরিশ্রম করতে হবে: নিউইয়র্কের আরেক গ্যাস্ট্রোঅ্যানটেরোলজিস্ট এলেনা এ. আইভানিনা বলেছেন, ঘরবন্দি থাকার এই সময়টাতে কোষ্ঠকাঠিন্য থেকে মুক্ত থাকতে হলে আমাদেরকে শারীরিকভাবে পরিশ্রম করতে হবে। আগে অফিসে বা বাইরে যাওয়ার সময় হয়তো আমরা বেশ খানিকটা হাঁটতাম, হয়তো অনেকেই ব্যায়াম করতাম নিয়মিত, কেউ কেউ সিঁড়ি বেয়ে অফিসে ঢুকতেন হয়তো। এসব যেহেতু এখন হচ্ছে না, তাই ঘরে নিয়মিত ব্যায়াম করতে হবে আপনাকে। ঘরে হালকা ব্যায়াম করা বা খালি জায়গায় দৌড়ানো, হাঁটা আপনার শরীরকে ঝরঝরে রাখবে। এতে মাংসপেশি শিথিল হয়ে কোষ্ঠকাঠিন্য দূর হবে।

পানি বেশি পান করতে হবে: ডিহাইড্রেশন বা শরীরে পানি স্বল্পতার কারণে কোষ্ঠকাঠিন্য দেখা দেয়। তাই ঘরে থাকা অবস্থায় আপনি হয়তো পানি পানে উদাসীন হয়ে পড়েছেন। এমনটা যেন না হয়, বরং পূর্ণ বয়স্ক মানুষকে দিনে ৮/১০ গ্লাস পানি পান করতে পরামর্শ দেন ডাক্তাররা। ঘন ঘন পানি পানে বিরক্ত লাগলে পানিপূর্ণ ফল শসা, তরমুজ, কমলা এসব খেতেও ডাক্তাররা পরামর্শ দেন।

আঁশযুক্ত খাবার খান: ইন্টারন্যাশনাল ফুড ইনফরমেশন কাউন্সিল গত মাসে একটি জরিপ চালিয়েছে। এতে দেখা গেছে করোনার এই সময়ে বাসায় থাকা মানুষদের ২৭ শতাংশই এখন স্ন্যাকস খাচ্ছে বেশি। এ ধরনের খাবার কোষ্ঠকাঠিন্য বাড়িয়ে দেয়। বাওয়েল মুভমেন্ট ঠিক রাখতে ও কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করতে আপনাকে আঁশযুক্ত খাবার খেতে হবে বেশি। আমেরিকার ন্যাশনাল ইনস্টিটিউটস অথ হেলথের মতে, প্রতিদিন একজন পুরুষের ৩৮ গ্রাম ও নারীর ২৫ গ্রাম আঁশযুক্ত খাবার খাওয়া জরুরি। তাই ফল ও সবজি খেতে হবে, এসব খাবারে আঁশ থাকে বেশি।

পাকস্থলী সুস্থ তো রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বেশি: ডা. বুলসিজ বলেছেন আপনার পাকস্থলী সুস্থ রাখলে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়বে। তার মতে, আঁশ সমৃদ্ধ খাবার যেমন- ফল, সবজি, খাদ্যশস্য, শিম এসব খাবার পাকস্থলীকে সুস্থ রাখে।

নিজের যত্ন নিন: মহামারির মতো দুর্যোগকালীন সময়ে মানুষের মাঝে মানসিক চাপ বেড়ে যায় বলে হজম প্রক্রিয়ায় গন্ডগোল দেখা দেয়। এ কারণে কোষ্ঠকাঠিন্য হয়। করোনা পরিস্থিতি যদি আপনার মানসিক চাপ বাড়ায়, তাহলে খবর দেখা ও সোশ্যাল মিডিয়ায় কম থাকার চেষ্টা করুন। পাশাপাশি যোগব্যায়াম, মেডিটেশন করতে পারেন।

কখন চিকিৎসকের শরণাপন্ন হবেন: ডা. বুলসিজ জানিয়েছেন, যদি কোষ্ঠকাঠিন্যের কারণে মলের সাথে রক্ত বের হয়, মল ত্যাগ করতে গিয়ে শ্বাসকষ্ট হয়, দ্রুত যদি ওজন কমে যায়, এমন কিছু উপসর্গ দেখা দিলে চিকিৎসকের শরণাপন্ন হওয়া উচিত।

পড়ুন: * কোষ্ঠকাঠিন্যের ১০ ঘরোয়া চিকিৎসা

 

ঢাকা/ফিরোজ

রাইজিংবিডি.কম

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়