Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     বৃহস্পতিবার   ২৮ অক্টোবর ২০২১ ||  কার্তিক ১২ ১৪২৮ ||  ২০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

Risingbd Online Bangla News Portal

মৌসুমের শেষ আম ‘আশ্বিনা’

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৫:০০, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১  
মৌসুমের শেষ আম ‘আশ্বিনা’

চাঁপাইনবাবগঞ্জের আমের বাজারে আরো মাস খানেক ধরে পাওয়া যাবে এ মৌসুমের শেষ আম ‘আশ্বিনা’। 

অন্যান্য বছরে সেপ্টেম্বর মাসের মাঝামঝিতে বাগান থেকে আম শেষ হয়ে যেতো। জেলার আম ব্যবসায়ীরা বলছেন, এবার আমের ফলন ভালো হওয়ায় আরো মাসখানেক বাজারে আম পাওয়া যাবে।

জেলার চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলা, ভোলাহাট, গোমস্তাপুর এলাকায় আড়তগুলো এখন আমশূন্য। তবে ব্যতিক্রম শুধু কানসাটের আমবাজার। সেখানে সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত ক্রেতা-বিক্রেতার ভিড় ও জমজমাট বেচাকেনা। 

সংশ্লিষ্টরা জানান, করোনার প্রাদুর্ভাবে মৌসুমের প্রথম দিকে আমের দাম ভালো না পাওয়ায় হতাশায় ভুগছিলেন ব্যবসায়ীরা। করোনার প্রকোপ কমলে আমের কিছুটা দাম বাড়ে। আর তখন বাইরের আম ব্যপারীরাও জেলায় আসতে শুরু করে। ফলে আমের দাম বেড়ে দ্বিগুণ হয়।  বর্তমান বাজারে আশ্বিনা জাতের আম প্রায় ৭ হাজার টাকা মণ দরে বিক্রি করছেন বাগানীরা। 

শিবগঞ্জ উপজেলার সায়েদুল আলম বলেন, এ বছর আমার প্রায় সাড়ে ৪শ মণ আম ছিল। গত সপ্তাহ থেকে কানসাট বাজারে বিক্রি শুরু করেছি। প্রথমে ৩ হাজার থেকে প্রায় সাড়ে ৩ হাজার টাকা মণ দরে বিক্রি করলেও এখন দ্বিগুণ দাম পাচ্ছি। বাগানে আরও প্রায় মাসখানেক আম থাকবে। এখনও ২০ মণ আম আছে। দাম বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বিক্রি করবো।

নাচোলের সর্জন এলাকার আমচাষি আবু সালেহ বলেন, আমার বাগানে এখন প্রায় ৩০ মণ আম আছে। বেশি লাভবান হওয়ার আশায়, আমগুলো এখনও বাজারে বিক্রি করিনি। 

চাঁপাইনবাবগঞ্জ কৃষি বিভাগের উপ-পরিচালক মুহাম্মদ নজরুল ইসলাম জানান, আমের সময় প্রায় শেষ। কিন্তু শিবগঞ্জ, গোমস্তাপুর, ভোলাহাট উপজেলার কিছু বাগানে আশ্বিনা জাতের আম আছে।এ এলাকাগুলোর মাটি ভালো হওয়ায় আম নষ্ট কম হয়, তাই রাখা যায় বেশিদিন। এই আম বাজারে পাওয়া যাবে প্রায় আরও এক মাস। তবে এখন আমের বেশি দাম পেয়ে খুশি চাষিরা।

তিনি বলেন, এবার জেলায় মোট ৩৩ হাজার ৩৫ হেক্টর জমিতে আমের চাষ হয়। যেখানে প্রায় ২৬ লাখ গাছ রয়েছে। তার ভেতর শতকরা প্রায় ১৫ ভাগ আশ্বিনা জাতের আমের গাছ রয়েছে।'

শিয়াম/টিপু

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়