ঢাকা     বৃহস্পতিবার   ০৬ আগস্ট ২০২০ ||  শ্রাবণ ২১ ১৪২৭ ||  ১৬ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

ছয় মাসেও পূরণ হয়নি ইউজিসির শূন‌্য ২ পদ

আবু বকর ইয়ামিন || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৬:০১, ১২ জুলাই ২০২০  

গুরুত্বপূর্ণ ‘সদস্য’ পদ শূন্য রেখেই চলছে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি)।  কমিশনে পূর্ণকালীন ৫ সদস্য থাকার কথা। কিন্তু চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে ২ জন অবসরে চলে গেছে।  এর পর গত ছয় মাসেও ওই ২ পদে লোক নিয়োগ করা হয়নি।  তবে,  এই জুলাই মাসেই শূন‌্য পদগুলোয় লোক নিয়োগ দেওয়া হতে পারে বলে ইউজিসি-সূত্রে  জানা গেছে।

জানা গেছে, ইউজিসির ৩ সদস‌্যের মধ‌্যে রয়েছেন বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রফেসর ড. ইঞ্জিনিয়ার দিল আফরোজা বেগম,  খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য মোহাম্মদ আলমগীর এবং ইউনিভার্সিটি অব লিবারেল আর্টস বাংলাদেশ-এর ডিপার্টমেন্ট অব কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রফেসর ড. সাজ্জাদ হোসেন।   

শূন‌্য ২ পদে লোকবল নিয়োগ প্রসঙ্গে  ইউজিসির সদস্য ড. মুহাম্মদ আলমগীর বলেন, ‘২ পদ খালি।  তাই ৩ জনকে বাড়তি কাজ করতে হচ্ছে। করোনার সময়ে এসে কাজের ধরনও বদলে গেছে। ফলে  এক জনকেই একাধিক দপ্তর সামলাতে হচ্ছে।  তবে, আশা করি, এই মাসের মধ্যেই শূন‌্যপদ দুটি পূরণ হয়ে যাবে। ’

জানতে চাইলে ইউজিসির সদস্য ড. দিল আফরোজা বেগম বলেন,  ‘প্রত‌্যেক দপ্তরের জন্য একজন সদস্য দরকার। কিন্তু এখন মাত্র তিন জন রয়েছি। ’ তিনি আরও বলেন, ‘পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের সমস্যা এক ধরনের, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের সমস্যা আরেক ধরনের।  এসব সমস‌্যার সমাধান এখান থেকে করে দেওয়া হচ্ছে।  ফলে প্রতিদিনই নতুন নতুন সমস্যায় পড়ছি। সেগুলোরও সমাধান করতে হচ্ছে। ’

ড. দিল আফরোজা আরও বলেন, ‘শুধু শিক্ষার মানোন্নয়ন নয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন দুর্নীতির তদন্তের বিষয়গুলোও দেখতে হচ্ছে। অথচ বিশ্ববিদ্যালয় দুর্নীতিগুলো নিয়ে দুদক কিংবা ক্রাইম ডিভিশন সহায়তা করতে পারে। কিন্তু তারা করে না। ফলে সেই তদন্তের পেছনেই ছুটতে হয় অনেক সময়।’

এসব বিষয়ে জানতে চাইলে ইউজিসি চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. কাজী শহীদুল্লাহ বলেন, ‘সদস্য কম থাকায় অনেক জরুরি কাজের গতি কমে গেছে।   ইউজিসিতে যে পরিমাণে কাজের পরিধি বেড়েছে, সে পরিমাণে জনবল নেই। তাই জটিলতাও তৈরি হচ্ছে।   শূন‌্য ২ পদে লোক নিয়োগ দিতে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে প্রস্তাব পাঠিয়েছি।  আশা করি, এক সপ্তাহের মধ্যে নতুন ২ সদস্য নিয়োগ দেওয়া হবে।’

ইউজিসি চেয়ারম্যান আরও বলেন, ‘সদস‌্য সংখ‌্যা ৫ জন যথেষ্ট নয়। এই সংখ‌্যা আরও বাড়ানো উচিত। ’ এই লক্ষ‌্যে প্রধানমন্ত্রীর কাছে প্রস্তাবনা পাঠানো হয়েছে বলেও তিনি জানান।

উল্লেখ‌্য, ১৯৭৩ সালে দেশে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের সংখ্যা ছিল মাত্র ৬। এখন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের সংখ্যা ৪৯। ১৯৭৩ সালে কোনো বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়  না থাকলেও বর্তমানে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ১০৬।


ইয়ামিন/এনই

রাইজিংবিডি.কম

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়