RisingBD Online Bangla News Portal

ঢাকা     মঙ্গলবার   ২০ অক্টোবর ২০২০ ||  কার্তিক ৫ ১৪২৭ ||  ০৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

ভ্রাম‌্যমাণ দোকান-হকারের দখলে ফুটওভার ব্রিজ, দুর্ভোগে পথচারীরা

আসাদ আল মাহমুদ || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১১:০৮, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০   আপডেট: ১১:৫৩, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০
ভ্রাম‌্যমাণ দোকান-হকারের দখলে ফুটওভার ব্রিজ, দুর্ভোগে পথচারীরা

রাজধানীর ব্যস্ততম এলাকায় পথচারীদের নিরাপদে ও নির্বিঘ্নে রাস্তা পারাপারের জন্য করা হয়েছে ফুটওভার ব্রিজ।  কিন্তু অধিকাংশ ফুটওভার ব্রিজ যেন পরিণত হয়েছে বাজারে।  এসব ব্রিজের একপাশের পুরোটাই  চলে গেছে হকার ও ভ্রাম‌্যমাণ দোকানিদের দখলে।  ফলে সাধারণ পথচারীদের দুর্ভোগে পড়তে হচ্ছে।

রাজধানীর পল্টন, শাহবাগ, ফার্মগেট, বাংলামটর, রায়েরবাগ, শনির আখড়ায় সরেজমিন দেখা যায়, ব্রিজে বসেছে বিভিন্ন পণ্যের দোকান।  মোবাইল ফোনে ব্যবহৃত এক্সেসরিস, বেল্ট, মানিব্যাগ, ওজন মাপার যন্ত্র, পানির পট, বিভিন্ন ধরনের ব্যাগ, গেঞ্জি, শার্ট, মোজা, ব্রাশ, টেবিল ক্লথ, কানের দুলের দোকান নিয়ে বসেছেন ভ্রাম্যমাণ বিক্রেতারা।  ক্রেতাদের দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য হাকডাক দিচ্ছে। এসব দোকানের কারণে পথচারীরা ব্রিজ দিয়ে সহজে হাঁটতে পারছিলেন না।

পথচারী মাহফুজুল ইসলাম বলেন, ফুটওভার ব্রিজে হকাররা দোকান নিয়ে বসায় ঠিকভাবে হাঁটা যায় না।  স্বাভাবিকভাবে হাঁটা-চলা করতে পারেন না পথচারীরা।  আর ব্রিজে হকার বসে বলে জায়গাও সরু হয়ে যায়।

শাহবাগ হাসপাতাল থেকে মেয়েকে নিয়ে ফুটওভার ব্রিজ পার হচ্ছিলেন শাফিয়া রহমান। তিনি বলেন, ব্রিজে ঠেলাঠেলি করে চলতে হয়। এখানে চারপাশের ফুটপাত সারা বছর হকারদের দখলে থাকে। ব্রিজে উঠলেই অস্বস্তিতে পড়তে হয়।  দিন দিন হকারের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। 

পল্টনে শফিকুল ইসলাম নামের এক হকার বলেন, ব্রিজে ব্যবসা করতে হলে নিয়মিত টাকা দিতে হয়।  লাইনম্যান এসে প্রতি দোকান থেকে দিনে ২০০ টাকা করে নেন।  ফুটওভার ব্রিজের দোকানদার মো. সাগর বলেন, প্রতিদিন সকাল সাড়ে ৯টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত দোকান করি।  পরিবার আছে।  টাকা আয়ের জন্য বসেছি। 

এ বিষয়ে জানতে চাইলে পল্টন থানার এসআই আজাদুর রহমান বলেন, ফুটওভার ব্রিজ হাঁটার জন্য দেওয়া হয়েছে। এখানে কোনো দোকান বসতে দেওয়া হবে না।  দ্রুত তাদের (হকারদের) উচ্ছেদ করা হবে।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. আবু নাছের বলেন, ফুটপাতে অবৈধ দোকান ও ফুটওভার ব্রিজে দোকান উচ্ছেদ করতে শিগগিরই অভিযান চালানো হবে।

আসাদ/সাইফ

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়