RisingBD Online Bangla News Portal

ঢাকা     মঙ্গলবার   ২০ অক্টোবর ২০২০ ||  কার্তিক ৫ ১৪২৭ ||  ০৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

নিজস্ব ভবন পেলো পানি উন্নয়ন বোর্ড

হাসান মাহামুদ || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২০:৩৫, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০   আপডেট: ১০:০৯, ১ অক্টোবর ২০২০
নিজস্ব ভবন পেলো পানি উন্নয়ন বোর্ড

রাজধানীর পান্থপথে নির্মাণ করা হয়েছে ‘পানি ভবন’

পানিসম্পদের সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনা ও টেকসই উন্নয়নের লক্ষ্যে প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে নিজস্ব ভবন। এতদিন বিদ্যুৎ ভবনে পানি উন্নয়ন বোর্ডের কার্যক্রম চলছিল। নিরবচ্ছিন্ন পানি ব্যবস্থাপনার লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পরামর্শে পান্থপথে নির্মাণ করা হয়েছে ‘পানি ভবন’। আগামীকাল বৃহস্পতিবার নবনির্মিত এ ভবন উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী।

পানিসম্পদ মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, প্রধানমন্ত্রী আগামীকাল সকাল ১০টায় ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে পানি ভবনের উদ্বোধন করবেন। ২০১৫ সালের ৩১ জানুয়ারি পানি ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রায় ২৬১ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত হয়েছে ১২ তলা বিশিষ্ট এ ভবন।

দীর্ঘ দিন ধরে ঢাকার বিভিন্ন স্থানে ভাড়া করা ভবনে সংশ্লিষ্ট অফিস ও দপ্তরগুলো চালাতো পানি উন্নয়ন বোর্ড। এজন্য কোটি কোটি টাকা ভাড়া পরিশোধ করতে হতো। এখন থেকে আর ভাড়ার টাকা দিতে হবে না। এতে সরকারি অর্থ সাশ্রয় হবে।

পানিসম্পদ উপমন্ত্রী এ কে এম এনামুল হক শামীম বলেছেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যখন দেখলেন, পানি নিয়ে সারা বিশ্বে সমস্যা, আর সেই পানি উন্নয়ন বোর্ডের নিজস্ব ভবন নেই, তখন তিনি এ ভবন নির্মাণের নির্দেশ দেন। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনার উদ্দেশ্য ছিল—দক্ষতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে কর্মীদের সুষ্ঠু কর্মপরিবেশ দেওয়া। নিজস্ব ভবন নির্মাণের ফলে প্রতি বছর ৫ কোটি ৩০ লাখ টাকা ভাড়া সাশ্রয় হবে।’

পানি উন্নয়ন বোর্ডের নিজস্ব প্রকৌশলীদের নকশায় প্রায় ৪ লাখ ২০ হাজার বর্গফুট বিশিষ্ট এ ভবন নির্মাণে সময় লেগেছে প্রায় সাড়ে চার বছর। কেন্দ্রীয় শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত পানি ভবনে সোলার প্যানেল, সুয়েজ ট্রিটমেন্ট প্ল্যান্ট, রেইন ওয়াটার রিজার্ভারের মতো পরিবেশবান্ধব ব্যবস্থাসহ ৫৩৬ জন ধারণ ক্ষমতার মিলনায়তন, ৪ হাজার ৫০০ বর্গফুটের হেলিপ্যাড, ৩৭৬টি গাড়ি পার্কিংয়ের সুবিধা ও অত্যাধুনিক অগ্নিনির্বাপণ ব্যবস্থা আছে।

এই কমপ্লেক্সে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্মৃতিবিজড়িত পুকুরটি সংরক্ষণ করা হয়েছে। এর আয়তন ২১ হাজার ৪৮৪ বর্গফুট। এছাড়া, ২০ হাজার ৬২৫ বর্গফুটের একটি জলাধার নির্মাণ করা হয়েছে।

পানি ভবনে আছে ৩৫ হাজার বর্গফুট বেজমেন্ট। সেমি বেজমেন্টের উচ্চতা ১০.৮২ ফুট, ফ্লোর উচ্চতা (নিচ তলা) ১৩.৭৫ ফুট, ফ্লোর উচ্চতা (অন্যান্য তলা) ১২.২৫ ফুট, ভবনের মোট উচ্চতা ১৭৪ ফুট (সিভিল এভিয়েশন কর্তৃক অনুমোদিত উচ্চতা ১৭৪ ফুট)। অডিটোরিয়ামের দৈর্ঘ্য ১০০ ফুট এবং প্রস্থ ৫১ ফুট, মোট এরিয়া ৫১০০ বর্গফুট (প্রায়), উচ্চতা ২১ ফুট।

সার্ভিস ভবন ৩ তলাবিশিষ্ট। এর দৈর্ঘ্য ১০০ ফুট এবং প্রস্থ ৬০ ফুট, প্রতি ফ্লোরের মোট এরিয়া ৬০০০ বর্গফুট (প্রায়), উচ্চতা ১৪ ফুট।

প্রধান জলাধারের দৈর্ঘ্য ২৭৫ ফুট, প্রস্থ ৭৫ ফুট, মোট এরিয়া ২০৬২৫ বর্গফুট (প্রায়)। পুকুরের দৈর্ঘ্য ১৬৪ ফুট, প্রস্থ ১৩১ ফুট, মোট এরিয়া ২১৪৮৪ বর্গফুট (প্রায়)। হেলিপ্যাডের এরিয়া ৪৫০০ বর্গফুট (প্রায়)। ভবনের বেজমেন্ট এবং সেমি বেজমেন্টে পার্কিং সংখ্যা ১৭৬টি, ভবনের বাইরে খোলা জায়গায় পার্কিং সংখ্যা ২০০টি, কমন টয়লেট ৪৮টি, রুমের সাথে অ্যাটাচড টয়লেট ৭০টি, ভবনে লিফট ৮টি। ভবনের ১১ তলায় কেন্দ্রীয় শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা রয়েছে। ভবনের সোলার প্যানেল ৪০ কিলোওয়াট (অন গ্রিড টাইপ) এবং জেনারেটর ৪টি প্রতিটি ৬৫০ কেভিএ ক্ষমতাসম্পন্ন।

উল্লেখ্য, ১৯৫৪ এবং ১৯৫৫ সালে উপর্যুপরি ভয়াবহ বন্যার পর জাতিসংঘের অধীনে গঠিত ক্রুগ মিশনের সুপারিশক্রমে সেচ ব্যবস্থা ও বন্যা নিয়ন্ত্রণসহ পানি সম্পদের উন্নয়ন এবং বিদ্যুৎ ব্যবস্থাপনায় পূর্ব পাকিস্তান পানি ও বিদ্যুৎ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (ইপিওয়াপদা) গঠিত হয়। ১৯৭২ সালে ইপিওয়াপদার ‘পানি উইং’ নিয়ে ‘বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড’ (বাপাউবো) নামে স্বতন্ত্র সংস্থা সৃষ্টি হয়।

ঢাকা/হাসান/রফিক

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়