RisingBD Online Bangla News Portal

ঢাকা     সোমবার   ২৫ জানুয়ারি ২০২১ ||  মাঘ ১১ ১৪২৭ ||  ১০ জমাদিউস সানি ১৪৪২

গণপরিবহনে স্বাস্থ্যবিধি বাধ‌্যতামূলক, কঠোর হচ্ছে বিআরটিএ

হাসিবুল ইসলাম মিথুন  || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৭:৫৬, ৩ ডিসেম্বর ২০২০  
গণপরিবহনে স্বাস্থ্যবিধি বাধ‌্যতামূলক, কঠোর হচ্ছে বিআরটিএ

দেশে চলছে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ। আর এই সময়ে গণপরিবহনে  মাস্ক পরাসহ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার ওপর জোর দিচ্ছে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ)।  করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে পরিবহন মালিক  ও সংগঠনগুলোকে বিআরটিএ-এর  নির্দেশনা সংবলিত চিঠি দেওয়া হয়েছে।  যাত্রী-বাসের চালক, হেলপার, কন্ডাক্টররা  স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলছেন কি না, তা পর্যবেক্ষণের জন্য নির্বাহী ম‌্যাজিস্ট্রেটও মোতায়েন করা হয়েছে। 

রাজধানীর সড়কগুলো ঘুরে দেখা গেছে, নগরীর গণপরিবহনগুলোতে যাত্রী ওঠা-নামায় কোনো ধরনের স্বাস্থ্যবিধি মানা হচ্ছে না। আবার  চালক, হেলপার, কন্ডাক্টররাও কোনো নিয়ম না মেনেই নির্ধারিত আসনের চেয়ে বেশি যাত্রী তুলছেন।  

বিআরটিএ-এর উপ-পরিচালক (আইন) মোহাম্মদ আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ‘সম্প্রতি আমরা পরিবহন মালিক, হাইওয়ে পুলিশ, বিভিন্ন জেলার  ডিসি-এসপিদের সঙ্গে  বৈঠক করেছি। বৈঠকে বলা হয়েছে, পরিবহনগুলোতে যেন আগের মতোই যথাযথভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা হয়।’   

মোহাম্মদ আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ‘বৈঠকের পর পরিবহন মালিক ও পরিবহন সংশ্লিষ্ট সংগঠনগুলোকে  চিঠি দিয়েছি। চিঠিতে বলা হয়েছে,  চালকরা যেন ঠিকভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে গাড়ি চালান। গাড়িতে অবশ্যই হ্যান্ড স্যানিটাইজার রাখতে হবে। গাড়ি জীবাণুনাশক স্প্রে দিয়ে বার বার জীবাণুমুক্ত করতে হবে। আর সব চেয়ে বেশি নজর দিতে বলেছি মাস্ক পরার বিষয়ে। যাত্রী থেকে শুরু করে ড্রাইভার ও হেল্পার; সবাইকে বাধ্যতামূলকভাবে মাস্ক পরতে হবে। না হলে ম্যাজিস্ট্রেটরা জরিমানা করবেন।’ 

‘করোনার দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবিলায় অর্ধেক যাত্রী নেওয়ার নিয়ম আবার চালু হবে কি না’, এমন প্রশ্নের জবাবে  মোহাম্মদ আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ‘দেশের পরিস্থিতি এখনো অতটা খারাপ হয়নি। যেভাবে যাত্রী নিয়ে গাড়ি চলাচল করছে, সেভাবেই আপাতত চলবে। আর ভিন্ন কোনো  সিদ্ধান্ত নিতে গেলে অনেক বৈঠক করতে হয়। অনেক ভেবে চিনতে এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। তাই এখন পর্যন্ত এমন চিন্তা আমাদের নেই।’

বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির মহাসচিব খন্দকার এনায়েত উল্যাহ বলেন, ‘ভ্যাকসিন না আসা পর্যন্ত মাস্কই করোনা প্রতিরোধের  বড় হাতিয়ার। একইসঙ্গে সবাইকে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। আর পরিবহনে যেহেতু মানুষ বেশি চলাচল করে, তাই এখানে অবশ্যই স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে।’  

খন্দকার এনায়েত উল্যাহ আরও বলেন, ‘আমরা বিআরটিএ-এর চিঠি পেয়েছি। চিঠি পেয়ে আমরা পরিবহন মালিকদের বলে দিয়েছি, তারা যেন তাদের ড্রাইভার ও হেল্পারদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে বাস চলাচল করতে বলেন। এছাড়া, মাস্ক পরার বিষয়েও  কঠোর নির্দেশনা দিয়েছি।’ মাস্ক ছাড়া যেন কোনো যাত্রী গাড়িতে উঠতে না পারে, সে ব‌্যাপারে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে বলেও তিনি জানান। 

ঢাকা/ হাসিবুল/এনই 

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়