ঢাকা     রোববার   ০২ অক্টোবর ২০২২ ||  আশ্বিন ১৭ ১৪২৯ ||  ০৪ রবিউল আউয়াল ১৪১৪

করোনা টিকার দ্বিতীয় ডোজ পাওয়া নিয়ে সংশয়

মেসবাহ য়াযাদ || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৭:২৫, ১২ জুন ২০২১   আপডেট: ১৭:২৬, ১২ জুন ২০২১
করোনা টিকার দ্বিতীয় ডোজ পাওয়া নিয়ে সংশয়

বাংলাদেশে টিকার মজুদ ফুরিয়ে এসেছে। আগামীকাল চীন থেকে দ্বিতীয়বারের মতো উপহারের ৬ লাখ ডোজ টিকা আসার কথা রয়েছে। নতুন টিকার চালান এখনও না আসায় প্রথম ডোজ নেওয়া অনেকেই সময়মতো দ্বিতীয় ডোজ টিকা পাওয়া নিয়ে চিন্তিত হয়ে পড়েছেন। যথাসময়ে কি দ্বিতীয় ডোজ পাবেন, নাকি আদৌ পাবেন না, তা নিয়ে শঙ্কায় আছেন তারা?

শনিবার (১২ জুন) ঢাকার শেখ রাসেল গ্যাস্ট্রোলিভার হাসপাতালে গিয়ে দেখা গেছে, রেজিস্ট্রেশন অনুযায়ী দ্বিতীয় ডোজের নির্ধারিত তারিখ পার হওয়ার পরও তারা এসএমএস পাননি। টিকা নিতে এসে ফিরে যাচ্ছেন তারা। তাদের নিশ্চিত করে কিছু বলাও হচ্ছে না।

নতুন বাজার থেকে শেখ রাসেল গ্যাস্ট্রোলিভার হাসপাতালে আসা মেহরাব আলী বলেন, ‘আমার টিকা কার্ডে দ্বিতীয় ডোজের তারিখ দেওয়া আছে ৩১ মে। আজসহ চার-পাঁচ দিন এখানে আসার পরও কেউ নির্দিষ্ট করে কিছু বলতে পারছে না। কেবল বলছে, এসএমএস না পেলে টিকা দেওয়া যাবে না। কবে এসএমএস পাবো, বলেন?’

মগবাজার নয়াটোলা পার্কের পাশের মাতৃসদন কেন্দ্রে গিয়ে দেখা গেছে, লোকজন প্রতিদিন টিকা নিতে এসে ফিরে যাচ্ছেন। এমন বেশ কয়েকজনের সঙ্গে কথা হয় এ প্রতিবেদকের। পূর্ব রামপুরা হাজীপাড়া থেকে টিকার দ্বিতীয় ডোজ নিতে এসেছেন মুন্নী। তিনি রাইজিংবিডিকে বলেন, ‘গত ৭ জুন আমার দ্বিতীয় ডোজ নেওয়ার তারিখ ছিল। সেদিন এসেও টিকা পাইনি। আজ আসতে বলেছে, তাই এসেছি। এখন ওনারা বলছেন, টিকা নাই। আগামী সপ্তাহে খবর নিতে বলছেন। দ্বিতীয় ডোজ কি নিতে পারব না?’

মেহরাব আলী ও মুন্নীর মতো অনেক মানুষ প্রথম ডোজ নেওয়ার পর দ্বিতীয় ডোজের অপেক্ষায় আছেন। এমন মানুষের সংখ্যা ১৪ লাখের কিছু বেশি বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন। বিভিন্ন দেশ থেকে দ্রুততম সময়ের মধ্যে টিকা কেনার চেষ্টা করা হচ্ছে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী, এখন পর্যন্ত প্রথম ডোজ টিকা পেয়েছেন ৫৮ লাখ ১৯ হাজার ৮৫৪ জন। দ্বিতীয় ডোজ টিকা পেয়েছেন ৩৩ লাখ ১৩ হাজার ৮২৪ জন। প্রথম ও দ্বিতীয় ডোজ মিলিয়ে এখন পর্যন্ত টিকা দেওয়া হয়েছে ৯১ লাখ ৩৩ হাজার ২৭৮ জনকে।

ভারতের থেকে কেনা এবং উপহার হিসাবে পাওয়া মিলিয়ে দেশে টিকা ছিল ১ কোটি ২ লাখ ডোজ। অর্থাৎ সরকারের হাতে এখন আছে প্রায় ১১ লাখ ডোজ টিকা। অন্যদিকে, দ্বিতীয় ডোজের টিকা পাননি এরকম মানুষ ১৪ লাখ ৬ হাজার ৩০ জন। অর্থাৎ ১৪ লাখের বেশি মানুষের জন্য প্রয়োজনীয় দ্বিতীয় ডোজের টিকা এ মুহূর্তে হাতে নেই।

ঢাকা/মেসবাহ/রফিক

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়