Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     বুধবার   ০৪ আগস্ট ২০২১ ||  শ্রাবণ ২০ ১৪২৮ ||  ২৩ জিলহজ ১৪৪২

ঈদযাত্রায় বাসে দ্বিগুণ ভাড়া, উপেক্ষিত স্বাস্থ্যবিধি

আসাদ আল মাহমুদ || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৬:১০, ১৯ জুলাই ২০২১   আপডেট: ১৮:২৩, ১৯ জুলাই ২০২১
ঈদযাত্রায় বাসে দ্বিগুণ ভাড়া, উপেক্ষিত স্বাস্থ্যবিধি

ফাইল ফটো

ঈদযাত্রায় রাজধানী ছাড়ছে মানুষ। যাত্রীর চাপ থাকায় দিগুন ভাড়া আদায় করা হচ্ছে। এছাড়া পাশের সিট খালি না রেখেই সব আসনে যাত্রী পরিবহন করতে দেখা গেছে বেশ কিছু বাস কোম্পানিকে।

সোমবার  রাজধানীর সায়েদাবাদ ও ফুলবাড়িয়া  বাস টার্মিনালে মিললো এচিত্র। করেনাকালিন স্বাস্থ্যবিধি অধিকাংশই মানছেন না। বেশিরভাগের মুখেই মাস্ক নেই।

বেলা সাড়ে ১১টার  দিকে ঢাকা থেকে লক্ষ্মীপুর রুটে ছেড়ে যাওয়া ইকোনো পরিবহন পাশের সিট খালি না রেখেই বর্ধিত ভাড়া আদায় করে। এনিয়ে বাসের যাত্রীদের সঙ্গে কন্ডাক্টরের বচসার ঘটনাও ঘটছে।

নুরুজজামান  ও মোরশেদ আলম  ইকোনো পরিবহনের পাশাপাশি সিটে বসা। জানতে চাইলে  অভিযোগ করে তারা বলেন,  টিকিট সংগ্রহের সময় কাউন্টার থেকে  বলা হয়েছিল পাশের সিট খালি থাকবে। বাসে উঠে দেখি পাশের সিটে যাত্রী । আগে সাড়ে ৩০০ টাকা এখন ৫০০ টাকা রাখা হয়েছে। 

যোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের একটি মনিটরিং টিমকে সামনে দেখে তাড়াহুড়ো করে একুশে পরিবহনের একটি বাস যেন দৌড়ে পালিয়ে গেল। বাসের সব আসনেই যাত্রী পরিপূর্ণ ছিল। চালকের পুরাতন  ময়লা যুক্ত মাস্ক থাকলেও হেলপারের মুখে কোনো মাস্ক ছিল না।

এ বিষয়ে ইকোনো পরিবহনের কাউন্টার ম্যানেজার কামাল হোসেন  বলেন, আমরা এক সিটে একজন যাত্রী নিচ্ছি। আজ বিকেল থেকে যাত্রী চাপ বাড়বে তখন  বিকল্প ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

লাল সবুজ পরিবহনের নোয়াখালীর যাত্রী মাহবুবুর রহমান তুহিন বলেন  বলেন, অধিকাংশ  বাসেই পাশের সিট খালি রাখছে না। ঢাকা থেকে নোয়াখালী পর্যন্ত লাল সবুজ পরিবহনের আগের ভাড়া ছিল ৩৫০ টাকা, এখন আদায় করা হচ্ছে ৬০০ টাকা।

সায়েদাবাদ বাস টার্মিনাল থেকে  চট্টগ্রাম, সিলেট, হবিগঞ্জ ও মৌলভীবাজার রুটে যাওয়া পরিচিত পরিবহন কোম্পানির বাসসহ অন্যদের পাশের সিট খালি রেখে যাত্রী পরিবহন করতে দেখা গেছে।

এদিকে ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম - সিলেট রুটের হানিফ পরিবহনের পাশের সিট খালি রাখলেও যাত্রীদের মধ্যে স্বাস্থ্য সচেতনতায় শিথিলতা দেখা গেছে। অনেক যাত্রী সঠিকভাবে মাস্ক পরেননি।

হানিফ পরিবহনের কাউন্টার ম্যানেজার নুরুর হক বলেন, স্বাস্থ্যবিধি মানতে যাত্রীদের সতর্ক করা হচ্ছে।   বাড়তি ভাড়ায়  চট্টগ্রামে ৬০০ ও সিলেটে যেতে নেওয়া হচ্ছে ৭০০ টাকা।

এদিকে ফুলবাড়ি বাস টার্মিনালে বাড়তি ভাড়া নেওয়া হচ্ছে এবং পাশের সিটে যাত্রী নেওয়া হচ্ছে। নবাবপুর একটি  দোকানে কাজ করেন মো.আবুল কালাম । পরিবার নিয়ে তিনি যাবেন গোপালগঞ্জ । তিনি বলেন, রাস্তার ঝামেলা এড়াতে সকাল ১০টায় ইমাদ পরিবহনের টিকেট সংগ্রহ করি।  আগে ৩০০ টাকার ভাড়া ৫০০ টাকা নিয়েছে। সকাল ১০ টায় গাড়ি ছাড়ার কথা থাকলেও গাড়ি সাড়ে বারোটার সময় ছেড়েছে।

ইমাদ পরিবহনের কাউন্টার ম্যানেজার মামুন হোসেন বলেন,   পিরোজপুর, গোপালগঞ্জ রুটে বাস  চলাচল করে।  সকাল থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত মোট ২০টি বাস ছেড়ে যাবে। সব বাসেরই টিকিট  বিক্রি হয়ে গেছে।

পরিবার নিয়ে মাদারীপুর যাবেন  রফিকুল ইসলাম। তিনি বলেন, গুলিস্তান থেকে মাওয়া ঘাট  ভাড়া ছিল ৭০টাকা।  এখন ১০০ টাকা করে নিচ্ছে।  প্রতি সিটে দুইজন করে।  কোন স্বাস্থ্যবিধির মানা হচ্ছে না।  আমরা জিম্মি কি করবো বাধ্য হয়ে যাচ্ছি।  সরকারের এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়া উচিত।

ফুলবাড়ীয়ায় ডিএমপির (ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ) উপ-পরিদর্শক বোরহান মিয়া বলেন,  যাত্রী ও চালক ড্রাইভার স্বাস্থ্যবিধি  না মানা ও মাস্ক না পরায় ১০ জনকে জরিমানা করা হয়েছে। যেসব পরিবহন যাত্রীদের কাছে বাড়তি ভাড়া নিচ্ছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

ঢাকা/আসাদ/এমএম

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়