ঢাকা, সোমবার, ৬ মাঘ ১৪২৬, ২০ জানুয়ারি ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

ডিজিটাল মেলা শুরু বৃহস্পতিবার

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০১-১৫ ৬:২২:১৬ পিএম     ||     আপডেট: ২০২০-০১-১৫ ৬:২২:১৬ পিএম

আগামীকাল বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হতে যাচ্ছে তিন দিনব্যাপী ডিজিটাল বাংলাদেশ ফেয়ার-২০২০।

বুধবার বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

প্রধানমন্ত্রীর তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় এদিন সকাল ১০টায় মেলার উদ্বোধন করবেন।

শাটল বাস

বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) অনুষ্ঠেয় এ মেলায় যাওয়া-আসার সুবিধার্থে দর্শনার্থীদের জন্য শাটল বাস সার্ভিস চালু করছে মেলা কর্তৃপক্ষ।

ঢাকা শহরের বিভিন্ন এলাকা থেকে প্রতিদিন সকাল ১০টা ও দুপুর ১টায় বাসগুলো মেলার উদ্দেশে ছেড়ে আসবে। মেলা শেষে রাত ৮টায় দর্শনার্থীদের নিয়ে বাসগুলো আবার নিজ নিজ রুটে ফিরে যাবে।

মেলার শাটল বাস সার্ভিসের রুটগুলো যথাক্রমে উত্তরা, মালিবাগ, মতিঝিল, আজিমপুর ও মিরপুর।

উত্তরা রুটে প্রতিদিন সকাল ১০টা ও দুপুর ১টায় বাস ছাড়া হবে আবদুল্লাহপুর থেকে। এরপর জসিমউদ্দীন, এয়ারপোর্ট, কুড়িল বিশ্বরোড ও মহাখালী হয়ে বাসটি মেলার ভেন্যু বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে পৌঁছাবে।

মালিবাগ রুটে মালিবাগ থেকে ছেড়ে রামপুরা, বনশ্রী, নতুন বাজার ও যমুনা ফিউচার পার্ক হয়ে বাসগুলো মেলা কেন্দ্রে আসবে।

একইভাবে মতিঝিল শাপলা চত্বর থেকে ছেড়ে দৈনিক বাংলা মোড়, জিরো পয়েন্ট, বিটিআরসি, বিটিসিএল, ফার্মগেট হয়ে শাটল বাস মেলা স্থলে আসবে।

আজিমপুর রুটে নিউ মার্কেট, সায়েন্সল্যাব, জিগাতলা, শংকর, ধানমন্ডি-২৭ ঘুরে বাস আসবে মেলাকেন্দ্রে।

মিরপুর রুটে বাস ছাড়া হবে মিরপুর-১২ থেকে। এরপর মিরপুর-৬, ঢাকা কমার্স কলেজ, সনি সিনেমা হল ও কাজীপাড়া হয়ে বাসটি মেলার ভেন্যু বিআইসসিতে পৌঁছাবে।

৫-জি অভিজ্ঞতা:

মেলায় প্রথমবারের মতো বাংলাদেশের সাধারণ মানুষকে ৫-জি অভিজ্ঞতা দিতে যাচ্ছে হুয়াওয়ে। যা মেলার মূল আকর্ষণ। এছাড়াও নতুন নতুন প্রযুক্তির চমকপ্রদ নানা অভিজ্ঞতা অর্জনের সুযোগ থাকছে। সেসব অভিজ্ঞতা অর্জনে আগ্রহী দর্শনাথীদের সুবিধার্থেই রাজধানীর পাঁচটি রুটে এই শাটল বাস সার্ভিস চালু করা হচ্ছে।

মেলায় আগত দর্শনার্থীরা হুয়াওয়ের প্যাভিলিয়নে সরাসরি ৫-জি স্পিড ও লো-ল্যাটেন্সি অভিজ্ঞতা নিতে পারবেন। এছাড়া আকর্ষণ হিসেবে আনা হয়েছে বিশেষ একটি রোবট। যাকে হাতের ইশারায় পরিচালনা করে খেলা যাবে ফুটবল।

পাশাপাশি আরো একটি প্লে-জোন থাকবে। যেখানে সবাই ৫-জি প্রযুক্তির মাধ্যমে রিয়েল-টাইম ভি-আর উপভোগ করতে পারবেন। ৫-জি ভি-আর পরার সঙ্গে সঙ্গে অংশগ্রহণকারী নিজেকে খুঁজে পাবেন স্কিইরত অবস্থায়।

 

ঢাকা/ইয়ামিন/সাইফ