RisingBD Online Bangla News Portal

ঢাকা     শুক্রবার   ০৪ ডিসেম্বর ২০২০ ||  অগ্রাহায়ণ ২০ ১৪২৭ ||  ১৭ রবিউস সানি ১৪৪২

ক্রস-বর্ডার ই-কমার্স সুবিধা চেয়েছেন নারী উদ্যোক্তারা

বিজ্ঞান-প্রযুক্তি ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ০৭:২১, ১২ ডিসেম্বর ২০১৯   আপডেট: ০৫:২২, ৩১ আগস্ট ২০২০
ক্রস-বর্ডার ই-কমার্স সুবিধা চেয়েছেন নারী উদ্যোক্তারা

ঘরে বসেই নানান কারু ও চারু পণ্য তৈরি করছেন দেশের নারীরা। তাদের তৈরি হস্তশিল্প সহজেই বিশ্ববাজারে পৌঁছে দিতে ক্রস-বর্ডার ই-কমার্স সুবিধা চেয়েছেন নারী উদ্যোক্তারা। ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করে তারা যেন অনলাইনে তাদের পণ্য বিপণন করতে পারেন সেজন্য সহজ ও নিরাপদ পরিবহন ব্যবস্থা নিশ্চিত করা ও ওয়্যার হাউস সাপোর্টে চেয়েছেন তারা।

এই দাবি পূরণে ই-কমার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ই-ক্যাব) বাণিজ্য মন্ত্রণালয় এবং ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সঙ্গে সর্বাত্মকভাবে কাজ করছে বলে জানিয়েছেন ই-ক্যাব সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মাদ আব্দুল ওয়াহেদ তমাল।

রাজধানীর হোটেল সোনারগাঁওয়ে আয়োজিত একটি ওয়ার্কশপের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেয়ার সময় তিনি বলেন, অনলাইন ব্যবসায় শুরু হওয়ার পর থেকেই বিশ্ববাজার সকলের জন্যই উন্মুক্ত হয়ে গেছে। আমাদের জন্যও ব্যবসায়ের একটি অবারিত দুয়ার খুলে গেছে। এর ফলে নারীর ক্ষমতায়নের পথও প্রশস্ত হয়েছে। এখন ঘরে বসেই হাতে তৈরি পণ্য বিভিন্ন ধরনের ই-কমার্স প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করে আমেরিকায় বিক্রি করা যাচ্ছে। আবার ইউরোপ বা যুক্তরাজ্যের প্রবাসীরা স্থানীয় অনলাইন থেকে আত্মীয়-স্বজনদের জন্য পণ্য কিনে দিতে পারছেন। এটা আমাদের জন্য একটি বড় সুযোগ। তাই এখনই আমাদেরকে ক্রস বর্ডার ই-কমার্স বিষয়ে শেখার বিষয়ে মনযোগী হতে হবে। কেননা বিশ্ববাজার সেদিকেই যাচ্ছে।

‘ন্যাশনাল ইনসেপশন ওয়ার্কশপ অন ই-কমার্স ক্যাপাসিটি বিল্ডিং ফর উইমেন-লিড এমএসএমই’এস ইন সাউথ এশিয়া’ শীর্ষক এই অনুষ্ঠানে তিনি আরো বলেন, ক্রস বর্ডার ই-কমার্সের জন্য আমাদের কিছু নীতিমালা বিষয়ক ইস্যু রয়েছে। এখনো বিদেশে পণ্য পাঠানোটা ততটা সহজ নয়। এজন্য আমরা পোস্ট অফিসের সঙ্গে কাজ করছি। আশা করছি, অল্প কিছুদিনের মধ্যেই আমরা ডাকঘরের মাধ্যমেই বিদেশে স্বল্প খরচে এবং দ্রুততার সঙ্গে এই সেবা দিতে সক্ষম হবো। ই-কমার্স বৈদেশিক ব্যবসায়ে ই-ক্যাব সব ধরনের সহায়তা করতে প্রস্তুত রয়েছে। অ্যামাজন ও ই-বের মাধ্যমে বিদেশে পণ্য বিক্রি করা যাবে।

জাতিসংঘের ইকোনেমিক অ্যান্ড সোশ্যাল কমিশন ফর এশিয়া অ্যান্ড দ্য প্যাসিফিক (এসক্যাপ) এবং এনহেন্সড ইনাগুরেটেড ফ্রেম ওয়ার্ক (ইআইএফ) আয়োজিত এই আলোচনা সভা সঞ্চালনা করেন এসক্যাপ এর ড. রাজেন সুদেশ রত্ন। প্যানেল আলোচনায় অন্যান্যের মধ্যে অংশ নেন সাউথ এশিয়ান উইমেন ডেভেলপমেন্ট ফোরামের ভাইস চেয়ার নাসরিন ফাতেমা আওয়াল, ডাব্লিউএনডি প্রেসিডেন্ট নাদিয়া বিনতে আমিন, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের ডাব্লিউটিও সেল এর ডিরেক্টর হামিদুর রহমান ও উবিনিগ প্রেসিডেন্ট ফরিদা আক্তার।

 

ঢাকা/ফিরোজ

রাইজিংবিডি.কম

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়