RisingBD Online Bangla News Portal

ঢাকা     রোববার   ২৪ জানুয়ারি ২০২১ ||  মাঘ ১০ ১৪২৭ ||  ০৮ জমাদিউস সানি ১৪৪২

মহামারি উপযোগী ৫ গ্যাজেট

বিজ্ঞান-প্রযুক্তি ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৯:৩৪, ১২ জানুয়ারি ২০২১   আপডেট: ১৯:৩৮, ১২ জানুয়ারি ২০২১
মহামারি উপযোগী ৫ গ্যাজেট

১১ জানুয়ারি থেকে আমেরিকার লাস ভেগাসে শুরু হয়েছে কনজ্যুমার ইলেকট্রনিক্স পণ্যের বিশ্বের বৃহত্তম প্রদর্শনী সিইএস-২০২১। করোনা মহামারির কারণে এবার অনলাইনে অনুষ্ঠিত হচ্ছে এই মেলা। চার দিনব্যাপী সিইএস মেলায় চোখ ধাঁধানো সব উদ্ভাবন নিয়ে হাজির হয়েছে বিশ্বের খ্যাতনামা ইলেকট্রনিক্স, টেলিকম, অটোমোবাইল এবং প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলো। এছাড়া এবার মহামারি সংক্রান্ত গ্যাজেটগুলো বেশ গুরুত্ব পাচ্ছে। 

কনজ্যুমার ইলেকট্রনিক্স শো বা সিইএস-২০২১ মেলায় গতকাল ১১ জানুয়ারি মহামারি উপযোগী নতুন উদ্ভাবিত বিভিন্ন গ্যাজেট প্রদর্শন করে নির্মাতা প্রতিষ্ঠানগুলো। এর মধ্যে থেকে কয়েকটি গ্যাজেট তুলে ধরা হলো এ প্রতিবেদনে। 

বায়ো বাটন: কয়েন আকৃতির এই জিনিস আদতে পরিধানযোগ্য ডিভাইস। করোনাভাইরাসের লক্ষণ শনাক্তে সহায়তা করে এটি। বায়ো বাটন নামক এই ডিভাইসটি বুকের মধ্যে লাগালে এটি ব্যবহারকারীর শরীরের তাপমাত্রা, শ্বাস-প্রশ্বাসের হার, হৃদস্পন্দনের হার, শারীরিক কার্যক্রমের স্তর এবং ঘুমের মান-এর মতো জরুরি বিষয়গুলো মনিটরিং করতে পারে। এসব মনিটরিংয়ের মাধ্যমে করোনাভাইরাসের লক্ষণ শণাক্ত করে বায়ো বাটন। এমনকি করোনা আক্রান্ত কেউ অসুস্থ বোধ না করলেও করোনার লক্ষণ ধরতে পারে ডিভাইসটি। সিইএস মেলায় নিজেদের অভিনব এই উদ্ভাবন প্রদর্শন করে বায়োইনটেলিসেন্স। এর জন্য ‘সেরা উদ্ভাবক সিইএস ২০২১’ অ্যাওয়ার্ড জিতেছে প্রতিষ্ঠানটি।

পেটিট কিউবো: বিড়াল আকৃতির এই গ্যাজেটটি ঘরের ভেতর ব্যক্তিগত সহচর হিসেবে কাজ করে। করোনাকালে একাকীত্ব কিংবা মানসিক দুশিন্তা কমাতেই এই রোবটিক বেড়াল উদ্ভাবন করা হয়েছে। আপনার কথার প্রতিক্রিয়ায় কিংবা কোলে নিলে এটি লেজ নাড়িয়ে ৮০টি ভিন্ন ধরনের রেসপন্স করতে পারে।

অ্যাকটিভ প্লাস মাস্ক: করোনার এ সময়ে ঘরের বাইরে ফেস মাস্ক আমাদের নিত্যসঙ্গী হয়ে উঠেছে। উন্নত কাপড় থেকে শুরু করেছে উন্নত প্রযুক্তি- নানা ধরনের মাস্ক তৈরি করে চলেছে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান। তবে এবারের সিইএস মেলায় মাস্ক নির্মাতা প্রতিষ্ঠান এয়ারপপ ‘অ্যাকটিভ প্লাস’ নামক বিশেষ ধরনের মাস্ক প্রদর্শন করেছে। এই মাস্ক বাতাসের গুণগতমান পরিমাপ করতে পারে। এজন্য মাস্কটিতে বিশেষ সেন্সর ব্যবহৃত হয়েছে। স্মার্টফোনের সঙ্গে মাস্কটিতে লিংক করলে এটি ব্যবহারকারীর প্রতি মিনিটের শ্বাস-প্রশ্বাস থেকে শুরু করে বাতাসের গুণগত মানও স্মার্টফোনে প্রদর্শন করে।  

ইউভি-সি এলইডি ডিসইনফেকশন লাইট: ল্যাপটপের কিবোর্ড জীবাণুমুক্ত রাখার সুবিধা দিতে টারগাস তৈরি করেছে ডিসইনফেকশন এলইডি লাইট। এই ইউভি-সি এলইডি লাইট কিবোর্ডের ৯৯ শতাংশ ব্যাকটেরিয়া ও ভাইরাস ধ্বংস করতে পারে। এটি ডেস্কটপ কম্পিউটারে ব্যবহার উপযোগী। প্রতি ৫ মিনিট পর পর স্বয়ংক্রিয়ভাবে এই ডিভাইসটি কিবোর্ডকে জীবাণুমুক্ত করতে পারে।

অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল ব্যাকপ্যাক: এবারের সিইএস মেলায় টারগাস অভিনব এই ব্যাকপ্যাকও প্রদর্শন করেছে। এটি জীবাণুপ্রতিরোধী ব্যাকপ্যাক। এতে ব্যাকটেরিয়া বা ভাইরাস সংক্রামক হয়ে উঠতে পারে না।

ঢাকা/ফিরোজ

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়