ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৪ মাঘ ১৪২৬, ২৮ জানুয়ারি ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

কোহলি মাস্টারক্লাসে রানের পাহাড় টপকাল ভারত

ক্রীড়া ডেস্ক : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-১২-০৬ ১১:০১:০৭ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-১২-০৭ ১২:০৪:০৭ এএম

বিরাট কোহলি আরও একবার দেখালেন কেন তাকে ‘চেজমাস্টার’ বলা হয়! 

শুরুর দিকে টাইমিং হচ্ছিল না ঠিকঠাক। ম্যাচ যত গড়াল কোহলি ফিরে পেলেন তার ছন্দ। খেললেন অবিশ্বাস্য কিছু শট। কবজির মোচড়ে বল আছড়ে ফেললেন গ্যালারিতে। রান তাড়ায় দেখালেন তার আরেকটি মাস্টারক্লাস। অধিনায়কের অসাধারণ এক ইনিংসে ওয়েস্ট ইন্ডিজের রানের পাহাড় টপকাল ভারত।

হায়দরাবাদের রাজীব গান্ধী স্টেডিয়ামে শুক্রবার প্রথম টি-টোয়েন্টি ভারত জিতেছে ৬ উইকেটে। আগে ব্যাট করতে নেমে ৫ উইকেটে ২০৭ রান করেছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। কোহলির ক্যারিয়ার সেরা অপরাজিত ৯৪ রানের সুবাদে ভারত সেটি পেরিয়ে যায় ৮ বল বাকি থাকতেই।

বড় লক্ষ্য তাড়ায় আক্রমণাত্মক শুরু করেছিলেন দুই ওপেনার লোকেশ রাহুল ও রোহিত শর্মা। রোহিত অবশ্য বেশিক্ষণ টেকেননি। চতুর্থ ওভারে রোহিতকে (৮) ফিরিয়ে ৩০ রানের উদ্বোধনী জুটি ভাঙেন বাঁহাতি স্পিনার খারি পিয়েরে।

দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে ভারতকে জয়ের পথে এগিয়ে নেন রাহুল ও কোহলি। দুজন গড়েন ঠিক ১০০ রানের জুটি। ৪০ বলে ৫ চার ও ৪ ছক্কায় ৬২ রান করা রাহুলকে ফিরিয়ে এ জুটিও ভাঙেন পিয়েরে।

রাহুলকে পারলেও কোহলিকে থামাতে পারেনি ওয়েস্ট ইন্ডিজ। জেসন হোল্ডারকে ছক্কায় উড়িয়ে ভারত অধিনায়ক ফিফটি পূর্ণ করেন ৩৫ বলে।

শেষ পাঁচ ওভারে ভারতের দরকার ছিল ৫৪ রান। কেশরিক উইলিয়ামসের করা ১৬তম ওভারেই কোহলি ও ঋষভ পন্ত তোলেন ২৩ রান। অবশ্য পরের ওভারে শেলডন কটরেল মাত্র ৫ রান দিয়ে তুলে নেন পন্তের উইকেট।

পরের ওভারে শ্রেয়াস আইয়ার ফিরলেও দলকে জিতিয়ে তবেই মাঠ ছাড়েন কোহলি। উইলিয়ামসকে লং অফের ওপর দিয়ে চোখ ধাঁধানো ছক্কায় উড়িয়ে ভারত অধিনায়ক ম্যাচ শেষ করেন রাজকীয় ভঙ্গিমায়।

মাত্র ৫০ বলে সমান ৬টি করে চার ও ছক্কায় এই ফরম্যাটে নিজের ক্যারিয়ার সেরা ৯৪ রানে অপরাজিত ছিলেন কোহলি। ম্যাচসেরার পুরস্কারও উঠেছে তার হাতেই।

এর আগে টস জিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ব্যাটিংয়ে পাঠিয়েছিলেন কোহলি। ব্যাটিংয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজের শুরুটা ভালো হয়নি। দ্বিতীয় ওভারেই দীপক চাহারের শিকার হয়ে ফেরেন লেন্ডল সিমন্স।

ঝড় তোলেন আরেক ওপেনার এভিন লুইস। ১৭ বলে ৩ চার ও ৪ ছক্কায় ৪০ রান করা লুইসকে থামান ওয়াশিংটন সুন্দর। ঝড় তোলার আগে ব্রান্ডন কিংকে (৩১) ফেরান রবীন্দ্র জাদেজা।

এরপর তাণ্ডব চালান শিমরন হেটমায়ার ও অধিনায়ক কাইরন পোলার্ড। চতুর্থ উইকেট জুটিতে এই দুজন ৪২ বলে যোগ করেন ৭১ রান। ১৮তম ওভারে তিন বলের মধ্যে দুজনকেই ফেরান লেগ স্পিনার যুজবেন্দ্র চাহাল।

৪১ বলে ২ চার ও ৪ ছক্কায় হেটমায়ার করেন ৫৬ রান। ১৯ বলে এক চার ও ৪ ছক্কায় ৩৭ রান আসে পোলার্ডের ব্যাট থেকে।

শেষ দিকে দলের স্কোর দুইশ পার করার কৃতিত্ব হোল্ডারের। ৯ বলে এক চার ও ২ ছক্কায় ২৪ রানে অপরাজিত ছিলেন ডানহাতি ব্যাটসম্যান। ৩৬ রানে ২ উইকেট নিয়ে ভারতের সেরা বোলার চাহাল।

রান বন্যার ম্যাচে শেষ পর্যন্ত ব্যবধান গড়ে দিল কোহলির অসধারণ এক ইনিংস।

 

ঢাকা/পরাগ