ঢাকা, মঙ্গলবার, ৭ মাঘ ১৪২৬, ২১ জানুয়ারি ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

ফিরে আসা যায় এভাবেও!

ক্রীড়া ডেস্ক : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-১২-০৭ ৯:০৬:৩৩ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-১২-০৭ ১১:০৩:০৫ পিএম

এমন একটি দিনের জন্য প্রায় এক দশকের অপেক্ষা! এ সময়ে কেটেছে কতো বিনিদ্র রজনী! কতো উথাল পাতাল- ভিজছে স্মৃতির মেলায়!

তবুও হাল ছাড়েন না! দৃঢ় মনোবল, জেদ আর দৃঢ় প্রতিজ্ঞ থেকে করে গেছেন নিজের কাজ। তাতে ফল মিলল পাক্কা এক দশক পর। বলছিলাম পাকিস্তানের ব্যাটসম্যান ফাওয়াদ আলমের কথা।

পাকিস্তানের হয়ে সাদা পোশাকে ম্যাচ খেলেছিলেন সেই ২০০৯ সালে। এক দশক পর বাঁহাতি ব্যাটসম্যান আবার ডাক পেলেন পাকিস্তান দলে। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ঘরের মাঠে দুই টেস্ট খেলবে পাকিস্তান। দুই টেস্টের দলে রাখা হয়েছে ফাওয়াদ আলমকে। অস্ট্রেলিযার মাটিতে দুই টেস্টে ৪৪ রান ইফতিকার আহমেদের পরিবর্তে তাকে ডাকা হয়েছে।

২০০৯ সালে টেস্ট ক্যারিয়ার শুরু করেছিলেন ফাওয়াদ। ৩৪ বছর বয়সি এ ক্রিকেটার অভিষেক টেস্টে পেয়েছিলেন সেঞ্চুরি। এরপর মাত্র টেস্ট খেলেন দুটি। শেষ কয়েক বছরে ঘরোয়া টুর্নামেন্টে অসাধারণ পারফরম্যান্স করে ফাওয়াদ আবার লাইম লাইটে আসেন। শেষ আট ইনিংসে কোয়াদ-ই-আজম ট্রফিতে তার রান ছিল ৯২,১,২৯*, ১০৭, ০, ৬৫, ২১১ এবং ১১৬।

ফাওয়াদকে দলে টানার বিষয়ে মিসবাহ বলেছেন,‘আমরা বয়সকে গোনায় ধরছি না। আমরা খেলোয়াড়ের সামর্থ্যে বিশ্বাসী। তারা নির্দিষ্ট কন্ডিশনে কেমন পারদর্শী সেটা বিবেচনায় আনছি। এ মুহূর্তে ৬ নম্বরে আমাদের অভিজ্ঞ কাউকে দরকার। ফওয়াদ ফিট আছে। তাই তাকে ডাকা হয়েছে।’

‘তার পারফরম্যান্স শুধুমাত্র এ মৌসুমেই ভালো হয়নি। সে তার পারফরম্যান্সের ধারাবাহিকতা রেখেছে। আগে কি হয়েছে তা আমি বলতে পারছি না। কিন্তু আমরা তার বর্তমান ফর্ম ব্যবহার করতে মুখিয়ে আছি।’ – যোগ করেন মিসবাহ।

২০০৯ সালে জাতীয় দল থেকে বাদ পড়ার পর ফাওয়াদ প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে ১৬৪ ইনিংস খেলেছেন। রান করেছেন ৭ হাজার ৯২২। ব্যাটিং গড় ৫৬.৫৮। এ সময়ে সেঞ্চুরি এসেছে ২৬টি, হাফ সেঞ্চুরি ৩৩টি। সর্বোচ্চ রান ২২৪।

বলার অপেক্ষা রাখে না ক্রিকেট ক্যারিয়ারের খুব গুরুত্বপূর্ণ সময়ে বাঁহাতি ব্যাটসম্যান বড় সুযোগ পেয়েছেন। অসাধারণ কিছু করে প্রত্যাবর্তন রাজসিক করতে পারেন কিনা সেটাই দেখার।

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে পাকিস্তান দল: আজহার আলী (অধিনায়ক), আবীদ আলী, আসাদ শফিক, বাবর আজম, ফাওয়াদ আলম, হ্যারিস সোহেল, ইমাম-উল-হক, ইমরান খান, কাশিফ ভাট্টি, মোহাম্মদ আব্বাস, মোহাম্মদ রিজওয়ান, নাসিম শাহ, শাহীন শাহ আফ্রিদি, শান মাসুদ, ইয়াসির শাহ ও উসমান শিনওয়ারি।


ঢাকা/ইয়াসিন