ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৪ মাঘ ১৪২৬, ২৮ জানুয়ারি ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

কোহলি-পোলার্ডের পাল্টাপাল্টি বক্তব্যে উত্তাপ

ক্রীড়া ডেস্ক : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-১২-১৬ ১২:০৯:২৬ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-১২-১৬ ১:৩২:৫৮ পিএম

বিরাট কোহলি ও কাইরন পোলার্ড পুরস্কার বিতরণী মঞ্চে দাঁড়িয়ে। দুজন কেউই কাউকে দেখছেন না! কথা বলা তো অনেক দূরের বিষয়। 

এমনিতেই বিরাট কোহলির মেজাজ খারাপ!ম্যাচ হারলে কারোরই ভালো লাগার কথা না। প্রতিপক্ষ ওয়েস্ট ইন্ডিজ স্রেফ উড়িয়ে দিয়েছে তাদের।  সব মিলিয়ে ধোনির ডেরায় কোহলি কাটিয়েছেন বাজে দিন।  প্রথম ইনিংসের পরই কোহলি মেজাজ হারান।  ব্যাটিংয়ে নিজে রান পাননি। দলের অবস্থাও ভালো না। এমন সময়ে রবীন্দ্রর জাজেদার রান আউট তার কষ্ট বাড়ায়।

আম্পায়ার তাকে শুরুতে আউট দেননি।  জায়ান্ট স্ক্রিনে রিপ্লে দেখে সিদ্ধান্ত পাল্টান। সাহায্য চান তৃতীয় আম্পায়ারের।  এরপরই জাজেদা আউট।  এমন অভূতপূর্ব সিদ্ধান্তে কোহলি নিজের মেজাজ ধরে রাখতে পারেননি। 

ভারতের ইনিংসের ৪৭.৪ ওভারের ঘটনা। জাদেজা সিঙ্গেল নিতে দৌড়েছিলেন। নন-স্ট্রাইকিং এন্ডের উইকেটে বল থ্রো করেন ফিল্ডার রোস্টন চেজ। আম্পায়ার প্রথমে নট আউট দেন। কিন্তু জায়ান্ট স্ক্রিনে যখন ওই ঘটনার রিপ্লে দেখানো হয়, তখন দেখা যায় জাদেজা সময় মতো ক্রিজে পৌঁছতে পারেননি। এর পরে ওয়েস্ট ইন্ডিজের অধিনায়ক কাইরন পোলার্ডের আবেদনে সাড়া দিয়ে আম্পায়াররা সাহায্য চান তৃতীয় আম্পায়ারের। তৃতীয় আম্পায়ার এরপর জাদেজাকে রান আউট দেন। 

এই ঘটনা নিয়ে ম্যাচের পর ক্ষোভ দেখান ভারতের অধিনায়ক কোহলি।  তিনি বলেন,‘ফিল্ডার আবেদন করেছে। আম্পায়ার নট আউট দিয়েছে। ঘটনা সেখানেই শেষ।  রিপ্লে দেখে আবার ক্রিকেটার অ্যাপিল করেছে, তারপর আম্পায়ার সিদ্ধান্ত নিচ্ছে, এমন ঘটনা আমি অন্তত ক্রিকেটে দেখিনি। আম্পায়াররা একবার গিয়ে রিপ্লেটা দেখলে, আশা করি ব্যাপারটা বুঝতে পারবেন।’ 

কোহলির মতে ওই সময়ে জাদেজা রান আউট না হলে স্কোরবোর্ডে আরও ১৫-২০ রান যোগ হতো। ম্যাচের ফলও ভিন্ন হতে পারত।  আগে ব্যাটিং করে ভারত ৮ উইকেটে ২৮৭ রান তোলে। ওয়েস্ট ইন্ডিজ জবাব দেয় দুই সেঞ্চুরিতে। শিমরন হেটমায়ারের সেঞ্চুরির পর শাই হোপ পান সেঞ্চুরি। তাতে স্রেফ উড়ে যায় ভারত।

প্রশ্ন উঠছে, এত দেরিতে কি এই ভাবে সিদ্ধান্ত বদলাতে পারেন আম্পায়াররা? সরাসরি এ নিয়ে উত্তর দেননি পোলার্ড। দিনশেষে মাঠে সঠিক সিদ্ধান্ত হওয়ায় খুশি তিনি,‘আমার জন্য দিন শেষে গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে সিদ্ধান্তটা সঠিক ছিল কি না। আমরা শুরুতেই অ্যাপিল করেছিলাম কিন্তু উনি তখন সময় নেননি। এরপর সঠিক সিদ্ধান্তই হয়েছে।’

 

ঢাকা/ইয়াসিন