ঢাকা, শনিবার, ৪ মাঘ ১৪২৬, ১৮ জানুয়ারি ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

যেভাবে পাকিস্তান সফরে যুক্ত হলো একমাত্র ওয়ানডে

ক্রীড়া প্রতিবেদক : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০১-১৫ ৯:৫৩:২৫ এএম     ||     আপডেট: ২০২০-০১-১৫ ৫:৩১:০৩ পিএম

এফটিপি সূচি অনুযায়ী পাকিস্তান সফরে তিনটি টি-টোয়েন্টি ও দুটি টেস্ট খেলার কথা ছিল বাংলাদেশের। তবে নতুন করে বাড়তি একটি ওয়ানডেও যুক্ত করা হয়েছে।

কিভাবে যুক্ত হলো একমাত্র ওয়ানডে ম্যাচটি? উত্তর খুঁজেছে রাইজিংবিডি।

দুবাইয়ে আইসিসির হেড কোয়ার্টারে মঙ্গলবার বৈঠকে বসেছিলেন পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি এহসান মানি ও বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। দুই বোর্ড প্রধানের বৈঠকে পাকিস্তান সফর চূড়ান্ত হয়।

দুই বোর্ড প্রধানই নিজেদের বক্তব্যে জানান, পারস্পরিক সমঝোতায় গ্রহণযোগ্য একটি সমাধান হয়েছে। তবে এফটিপির বাইরে ওয়ানডে কিভাবে যুক্ত হলো তা নিয়ে আনুষ্ঠানিক কোনো ব্যাখ্যা আসেনি। 

দুই টেস্ট বাংলাদেশ খেলবে দুই মাসে। প্রথমটি ৭ ফেব্রুয়ারি রাওয়ালপিন্ডিতে। দ্বিতীয়টি ৩ এপ্রিল করাচিতে। এর আগে তিনটি টি-টোয়েন্টি হবে চলতি মাসেই। ফলে তিন মাসে বাংলাদেশ তিনবার পাকিস্তান সফরে যাবে।

প্রথম টেস্ট ও দ্বিতীয় টেস্টের মাঝে দীর্ঘ বিরতি। এ সময়ে ঘরের মাঠে জিম্বাবুয়েকে আতিথেয়তা দেবে বাংলাদেশ। সফরকারীদের আতিথেয়তা দেওয়ার পরও প্রায় ২০ দিনের বিরতি। এ বিরতির আগে ‘ওয়ার্ম আপের’ প্রয়োজন অনুভব করছে দুই বোর্ডই। দ্বিতীয় টেস্টের আগে একটি ওয়ানডে খেলার প্রস্তাব দেয় পিসিবি। টেস্ট খেলতে এমনিতেই যাবে পাকিস্তান, তাই দীর্ঘদিন পর ওয়ানডের সুযোগটিও হাতছাড়া করেনি বিসিবি। আইসিসিও দুই বোর্ডের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে।

বাংলাদেশ সরকার ক্রিকেট দলকে দীর্ঘ মেয়াদে পাকিস্তানে থাকার অনুমতি দেয়নি। যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রনালয় থেকে যে অনুমতিপত্র পেয়েছে তাতে স্পষ্ট করা আছে, স্বল্পমেয়াদে পাকিস্তান সফরের ছাড়পত্র দেয়া হচ্ছে। তিন ভাগে সফর করলেও কোনোবারই দশদিনের বেশি পাকিস্তান থাকা লাগছে না ক্রিকেটারদের।

প্রথম দফায় ২৪, ২৫ ও ২৭ জানুয়ারি লাহোরে হবে তিনটি টি-টোয়েন্টি।

এরপর প্রথম টেস্টের জন্য আবার পাকিস্তান যাবে বাংলাদেশ। ৭ ফেব্রুয়ারি থেকে আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ম্যাচটি হবে রাওয়ালপিন্ডিতে।

তৃতীয় দফায় আবার পাকিস্তান গিয়ে বাংলাদেশ খেলবে একমাত্র ওয়ানডে ও দ্বিতীয় টেস্ট। ৩ এপ্রিল করাচিতে হবে ওয়ানডে। একই মাঠে ৫ এপ্রিল থেকে হবে টেস্ট।

এর আগে বাংলাদেশ একবারই পূর্ণাঙ্গ সিরিজ খেলতে গিয়েছিল পাকিস্তান। ২০০৩ সালে ৩ টেস্ট ও ৫ ওয়ানডে খেলেছিল বাংলাদেশ। ২০০৭ সালে শুধুমাত্র খেলেছিল ৫ ওয়ানডে।

প্রসঙ্গত, টি-টোয়েন্টি খেলার জন্য আগামী ২২ জানুয়ারি বাংলাদেশ দল উড়াল দেবে পাকিস্তানে। তবে ঢাকা থেকে পাকিস্তানের সরাসরি কোনো ফ্লাইট নেই। ফলে, দুবাই হয়ে পাকিস্তান যাবে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল।


ঢাকা/ইয়াসিন/কামরুল