ঢাকা, শনিবার, ২৭ চৈত্র ১৪২৬, ১১ এপ্রিল ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

খেলার কারণে দল থেকে বাদ পড়িনি: আল আমিন

ক্রীড়া প্রতিবেদক : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০২-২৭ ৯:৪১:৩২ এএম     ||     আপডেট: ২০২০-০২-২৭ ২:২৩:৪৫ পিএম

এক সময় আল-আমিন ছিলেন দলের অবিচ্ছেদ্য অংশ। কিন্তু পারফরম্যান্সে ধারবাহিকতা না থাকায় হারিয়ে যান আল-আমিন। পাশাপাশি মাঠের বাইরের বিতর্কিত ঘটনায় জড়িয়ে বাদ পড়েন এ ডানহাতি পেসার, আসেন শাস্তির আওতায়ও।

নিজের ভুল শুধরে আল-আমিন ফিরেছেন মাঠের ক্রিকেটে। ভালো পারফর্ম করে আবার ফিরেছেন জাতীয় দলে। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে ডাক পাওয়া এ খেলোয়াড় মিরপুরে গতকাল ঐচ্ছিক অনুশীলন করেছেন। সেখানে আল-আমিন কথা বলেছেন গণমাধ্যমে। তার কথা শুনেছে রাইজিংবিডি,

প্রথমে টি-টোয়েন্টি, পরে টেস্টে এবার ওয়ানডে দলে ডাক পেলেন। কি ভাবছেন সুযোগটি নিয়ে?

আল-আমিন হোসেন: ক্যারিয়ার যখন শুরু করেছিলাম, টানা চলতে থাকলে এতদিনে দলে যথেষ্ট প্রতিষ্ঠিত থাকতাম। মাঝে মোটামুটি বিরতি গেছে। তার পরও চেষ্টা করেছি। এখন সুযোগ এসেছে। সবসময় চেষ্টা করি সুযোগ কাজে লাগাতে। টেস্ট ও টি-টোয়েন্টিতে সুযোগ পেয়েছি, দুটিতেই মোটামুটি ভালো করেছি। ওয়ানডেতে আরেকটি সুযোগ এসেছে। একাদশে জায়গা পেলে চেষ্টা করব ভালো করার।

কোচ বলেছেন সাদা বলে আল আমিনকে মনোযোগী হতে। আপনার চিন্তা কি?

আল-আমিন হোসেন: শুধু সাদা বলের চিন্তা করলে তো বিসিএল ফাইনাল খেলতে যেতাম না! সাদা বলের অনুশীলনই করতাম। যারা টেস্টে ছিল না, কোচের সঙ্গে সাদা বলে অনুশীলন করেছে। আমারও করার কথা ছিল। কিন্তু বিসিএল ফাইনাল খেলতে গিয়েছি। এখন টিম ম্যানেজমেন্টে যারা থাকেন, তাদের নানা রকম ভাবনা থাকে কাকে কিভাবে কাজে লাগাবে। আমার চিন্তা-ভাবনা, আমি সব বলে খেলতে চাই। যেখানে সুযোগ আসবে, ভালো করার চেষ্টা করব।

নিজেকে কিভাবে তৈরি করছেন?

আল-আমিন হোসেন: আমাকে সবসময় প্রস্তুত থাকতে হবে। সাদা বল বা লাল বল নিয়ে তো আলাদা করে ভাবলে হবে না। একজন ক্রিকেটারের সবসময় প্রস্তুত থাকা উচিত। বাংলাদেশে যখন-তখন সুযোগ আসে। টেস্টে এখন আমাকে বিবেচনা করছে না। হয়তো আবার বিবেচনা করবে। কারও ইনজুরি বা কোনো কারণে সুযোগ আসতে পারে। সেসব মাথায় রেখেই নিজেকে ফিট ও প্রস্তুত রাখি।

আপনার ক্যারিয়ার বেশ লম্বা। কিন্তু কখনোই বেশি সময়ের জন্য থিতু হতে পারেননি?

আল-আমিন হোসেন: মাঝখানে সুযোগ পাইনি। থিতু হওয়ার সময় পাইনি। এখন যতটুকু সুযোগ পাচ্ছি, নিজের সেরাটা দিচ্ছি। এজন্যই হয়তো যারা দায়িত্বে আছেন, সুযোগ দিচ্ছেন।

এবার থিতু হতে পারবেন?

আল-আমিন হোসেন: আসলে আমি মনে হলে তো হবে না। আমার কাজ দিয়ে মনে করাতে হবে। দেখেন, যে সময় গোলাপি বলে টেস্ট হলো, ভালোই করেছি। পরে আর সুযোগ পাইনি। টি-টোয়েন্টিতে সুযোগ পাচ্ছি, ভালোই করছি। এখন ওয়ানডেতে আমার সুযোগ। যদি ভালোভাবে সুযোগ পাই, কাজে লাগানোর চেষ্টা করব। দলে থিতু হওয়ার চেষ্টা করব।

মাঝের সময়টা তো আপনার জন্য কঠিনই ছিল?

আল-আমিন হোসেন: আমি যখন বাদ পড়েছি, খেলার কারণে সম্ভবত বাদ পড়িনি। কিছু ইস্যু ছিল। সেগুলো ঠিক করার চেষ্টা করেছি। ভুল করলেই কেবল ভুল বোঝা যায়। মানুষ ভুল থেকেই শেখে। এটা শৃঙ্খলার ইস্যু হতে পারে, ক্রিকেটের ইস্যু হতে পারে। শেখার তো কোনো শেষ নেই।

আগের চেয়ে এখনকার দলে টিকে থাকা কঠিন?

আল-আমিন হোসেন: এখানে পরিবর্তন করতে হবে আমাকে। আমি নিজেকে কতটুকু প্রস্তুত রাখছি বা আমি কতটা ভালো করছি, তার ওপর নির্ভর করবে দলে থাকা বা না থাকা। তিন-চার বছর আগে যে পারফরম্যান্স করেছি, তার চেয়ে অবশ্যই ভালো করতে হবে দলে থাকতে হলে। ওই ব্যাপারটি মাথায় রেখেই অনুশীলন করি। সুযোগ পেলে ভালো করার চেষ্টা করি।


ঢাকা/ইয়াসিন/কামরুল