ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০৪ জুন ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

‘পিতৃত্বের স্বাদ এত কঠিন হবে আগে বুঝিনি’

ক্রীড়া ডেস্ক : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০৪-০২ ৬:১০:৫৯ পিএম     ||     আপডেট: ২০২০-০৪-০২ ৬:১০:৫৯ পিএম

করোনায় স্থবির পুরো বিশ্ব যেন এক অলিখিত লকডাউন সময় কাটাচ্ছে। মাঠে কোনো খেলা নেই। বাইরে বেরুনোর নিষেধাজ্ঞা আছে। তাই ক্রিকেটাররা পরিবারের সঙ্গে সময় কাটাচ্ছেন।

দক্ষিণ আফ্রিকান ক্রিকেটার তাবরাইজ শামসির জন্য এই লকডাউন অবশ্য আনন্দের। করোনা আফ্রিকায় ছড়িয়ে যাওয়ার আগে দিয়ে ৭ মার্চ তাঁর প্রথম সন্তান হয়। এরপরেই সবকিছু হয়ে পড়ে অবরুদ্ধ। ছেলে মোহাম্মদ ইব্রাহিমের সঙ্গে তাই লকডাউনের পুরোটা সময় কেটে যাচ্ছে বলে জানিয়েছেন শামসি। তবে বাবা হওয়ার মধ্যে কেবল আনন্দ নয়, জ্বালাও আছে বলে জানিয়েছেন শামসি।

সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে শামসি বলেন, ‘আমার লকডাউন সব ক্রিকেটারের আগে শুরু হয়েছে। আমার প্রথম সন্তান ইব্রাহিম পৃথিবীতে এসেছে ৭ মার্চ। এরপরে সব লকডাউন হয়ে যায়। সে আসলে সঠিক এক সময়ে এসেছে।’

সন্তান হওয়ায় একঘেয়ে সময় কাটাতে হচ্ছে না তাকে। বরং সন্তানের জন্য এখন অনেক কাজ করতে হচ্ছে তাকে। এমনটাই বলেন শামসি, ‘আমি ভেবেছিলাম লকডাউনে বিরক্তিকর সময় কাটবে। কিন্তু এখন দেখা যাচ্ছে, আমার সন্তানের জন্য আমি নিজেকে দেওয়ার মতোই তেমন সময় পাই না। এমনকি আমি আর আমার স্ত্রী পর্যাপ্ত ঘুমাতেও পারি না। আমি কখনো ভাবিনি পিতৃত্বের স্বাদ এত কঠিন হবে। এটা সারাক্ষণই চলতে থাকে। দিনের ৯০ ভাগ সময় সন্তানের পেছনে দিতে হয়। তবে আমি এই বিষয়টা উপভোগও করছি।’

সদ্য বাবা হওয়াতে কি রকম চাপে থাকতে হয়? এমন প্রশ্নের উত্তরে শামসি বলেন, ‘আমার জীবনে অনেক নতুন অভিজ্ঞতা দিচ্ছে সে। যদিও আমি এখনো তার ডায়পার পরিবর্তন করিনি, কারণ আমার এটা ভয় লাগে। তবে তার জামা-কাপড়, বোতল পরিষ্কার করা। এসব ঠিক করে দেওয়ার কাজ করে থাকি। রাতে আমার স্ত্রী তার জ্বালাতন সহ্য করে। আর দিনে আমার কাঁধে থাকে সে দায়িত্ব।’

শুধু ক্রিকেট মাঠ নয়, নিজের পরিবার, সন্তান সামলানোতেও শামসি হয়ে উঠছেন সিদ্ধহস্ত। লকডাউন এমন অচেনা অভিজ্ঞতায় ফেলবে ভাবেনি এই প্রোটিয়া। তবে সন্তানের বদৌলতে লকডাউনের সময়টা বিরক্তিকর যাচ্ছে না শামসির বরং তিনি উপভোগই করছেন প্রতিটি সময়।


ঢাকা/কামরুল