ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ২৮ মে ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

‘কারো পাকিস্তান ক্রিকেটের সততা নিয়ে কথা বলা উচিত নয়’

ক্রীড়া ডেস্ক : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০৪-১০ ৫:৪৬:০৫ পিএম     ||     আপডেট: ২০২০-০৪-১০ ৮:৩৯:১০ পিএম

সম্প্রতি পাকিস্তানি ক্রিকেটার মোহাম্মদ হাফিজ দলে স্পট ফিক্সারদের সুযোগ না দেওয়ার দাবি তোলেন। তাঁর সঙ্গে একমত হয়ে ফিক্সারদের কঠোর শাস্তির কথা বলেছিলেন কিংবদন্তি জাভেদ মিয়াদাদ। তিনি রীতিমতো ফিক্সারদের ফাঁসির দাবি পর্যন্ত তুলেছিলেন।

তবে এমন দাবির সঙ্গে দ্বিমত জানিয়েছেন পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক সালমান বাট। যিনি নিজেও ফিক্সারদের তালিকায় জায়গা করে নিয়েছিলেন। ২০১০ সালে ইংল্যান্ড সফরে সালমান বাট, মোহাম্মদ আমির ও মোহাম্মদ আসিফ তিনজনই জুয়াড়িদের প্রস্তাবে সাড়া দেন।

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যানচেস্টার টেস্টে তিনজনই স্পট ফিক্সিং করেন। ফলে বিভিন্ন মেয়াদের শাস্তি পান তারা। জেলেও থাকতে হয় তাদের। বর্তমানে আবার ক্রিকেটে ফিরেছেন তিনজনই। সম্প্রতি শারজিল খানও ফিক্সারদের খাতায় নাম লেখান। আর স্পট ফিক্সিংয়ের দায়ে শাস্তি পান। পরবর্তীতে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের কাছে ক্ষমা চেয়ে চিঠি লিখে মুক্তি পান।

এরপরে হাফিজ ও মিয়াদাদ সরব হোন। এ নিয়ে ৩৫ বছর বয়সী সালমান বাট বলেন, ‘আমি আসলেই বুঝতে পারি না, সবাই কেন এই বিষয় নিয়ে কথা বলে। এটা নিয়ে মতামত দেওয়া কি খুব জরুরী? আমার মতে শুধু আইসিসি আর পিসিবি এ বিষয় নিয়ে মতামত ও সিদ্ধান্ত নিতে পারে। খেলোয়াড়দের সততা নিয়ে প্রশ্ন তুললে সেটা কেবল পিসিবিই পারে। অন্য কেউ নয়।’


ঢাকা/কামরুল