Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     মঙ্গলবার   ১৩ এপ্রিল ২০২১ ||  চৈত্র ৩০ ১৪২৭ ||  ২৮ শা'বান ১৪৪২

২-০ গোলে হারল বাংলাদেশ

ক্রীড়া প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৩:০২, ১০ অক্টোবর ২০১৯   আপডেট: ০৫:২২, ৩১ আগস্ট ২০২০
২-০ গোলে হারল বাংলাদেশ

বিশ্বকাপ ও এশিয়ান কাপ বাছাইপর্বের দ্বিতীয় ম্যাচেও হার মেনেছে বাংলাদেশ। বৃহস্পতিবার ঘরের মাঠে কাতারের বিপক্ষে ২-০ গোলে হার মেনেছে বাংলাদেশ।

বাছাইপর্বে এটা কাতারের দ্বিতীয় জয়, আর বাংলাদেশের দ্বিতীয় হার। প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশ আফগানিস্তানের কাছে ১-০ গোলে হেরেছিল। এবার কাতারের কাছে ২-০ ব্যবধানে হারল। এর আগে কাতার প্রথম ম্যাচে আফগানিস্তানের বিপক্ষে ৬-০ গোলে জিতেছিল। আর ভারতের সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করেছিল।

বাংলাদেশও ড্র করার ইচ্ছা পোষণ করেছিল। কিন্তু সেটা হতে দেননি ইউসুফ আব্দুররিসাগ। তিনি ম্যাচের ২৮ মিনিটে গোল করে এগিয়ে নেন দলকে। আর ম্যাচের যোগ করা সময়ে (৯০+১) করিম বউদিয়াফ গোল করে ২-০ ব্যবধানের জয় নিশ্চিত করেন।

কাতারের বিপক্ষে ৫-১-৩-১ ফরম্যাটে খেলতে নেমে বাংলাদেশ বেশ কিছু পাল্টা আক্রমণ করেছে। কিন্তু গোলের দেখা পায়নি। উল্টো ম্যাচের ২৮ মিনিটে গোল হজম করে। এ সময় কাতারের ইউসুফ আব্দুরিসাগ ইউসুফ গোলটি করেন। বাকি সময়ে আর কোনো গোল হয়নি। তাতে ১-০ গোলে এগিয়ে থেকেই মাঠ ছেড়েছে কাতার।

বিরতির পর বাংলাদেশের উপর চাপ প্রয়োগ করে খেলে তারা। একের পর এক আক্রমণ শানায়। কিন্তু জালের নাগাল পাচ্ছিল না। ৭০ থেকে ৮০ মিনিটের মধ্যে বাংলাদেশও অনেকগুলো আক্রমণ শানায়। নিশ্চিত কয়েকটি গোলের সুযোগ পেয়েও সেটা মিস করে তারা। উল্টো শেষ মুহূর্তে আরো একটি গোল হজম করে পরাজয়ের ব্যবধান বাড়ায়।

বিশ্বকাপ ও এশিয়ান কাপের বাছাইপর্বের ফিরতি ম্যাচে ১৫ অক্টোবর ভারতের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। ম্যাচটি কলকাতার বিখ্যাত সল্টলেকে অনুষ্ঠিত হবে।

বাংলাদেশের একাদশ :
আশরাফুল ইসলাম রানা (গোলরক্ষক), রহমত মিয়া, ইয়াসিন খান, জামাল ভুঁইয়া, বিপলু আহমেদ, নাবীব নেওয়াজ জীবন, সোহেল রানা, মোহাম্মদ ইব্রাহিম, রিয়াদুল হাসান, রায়হান হাসান ও সাদ উদ্দিন।

কাতারের একাদশ : 
সাদ আল শেব, আব্দেল করিম হাসান, আব্দেল আজিজ হাতিম, হাসান আল হায়দস, করিম বউদিয়াফ, মুসাব খিদির মোহামেদ, সালেম আল হাজরি, বাসাম হুশাম আলরাওয়ি, বউয়ালেম খৌকি, ইউসুফ আব্দুরিসাগ ইউসুফ ও আলমোয়েজ আলী আব্দুল্লাহ।

 

ঢাকা/আমিনুল

রাইজিংবিডি.কম

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়

শিরোনাম

Bulletলকডাউন: ১৪-২১ এপ্রিল। যা যা চলবে: ১. বিমান, সমুদ্র, নৌ ও স্থল বন্দর এবং তৎসংশ্লিষ্ট অফিস। ২. পণ্য পরিবহন, উৎপাদন ব্যবস্থা ও জরুরি সেবাদানের ক্ষেত্রে এ আদেশ প্রযোজ্য হবে না ৩. শিল্প-কারখানা ৪. আইনশৃঙ্খলা এবং জরুরি পরিসেবা, যেমন, কৃষি উপকরণ (সার, বীজ, কীটনাশক, কৃষি যন্ত্রপাতি ইত্যাদি), খাদ্যশস্য ও খাদ্যদ্রব্য পরিবহন, ত্রাণ বিতরণ, স্বাস্থ্যসেবা, কোভিড-১৯ টিকা প্রদান, বিদ্যুৎ, পানি, গ্যাস/জ্বালানি, ফায়ার সার্ভিস, বন্দরগুলোর (স্থল, নদী ও সমুদ্রবন্দর) কার্যক্রম, টেলিফোন ও ইন্টারনেট (সরকারি-বেসরকারি), গণমাধ্যম (প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়া), বেসরকারি নিরাপত্তা ব্যবস্থা, ডাক সেবাসহ অন্যান্য জরুরি ও অত্যাবশ্যকীয় পণ্য ও সেবার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট অফিসসমূহ, তাদের কর্মচারী ও যানবাহন এ নিষেধাজ্ঞার আওতা বর্হিভূত থাকবে। ৫. ওষুধ ও নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি ক্রয়, চিকিৎসা সেবা, মৃতদেহ দাফন/সৎকার ৬. খাবারের দোকান ও হোটেল-রেস্তোরাঁয় দুপুর ১২টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা এবং রাত ১২টা থেকে ভোর ৬টা পর্যন্ত কেবল খাদ্য বিক্রয়/সরবরাহ করা যাবে। ৭. কাঁচাবাজার এবং নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি সকাল ৯টা থেকে বেলা ৩টা পর্যন্ত উন্মুক্ত স্থানে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ক্রয়-বিক্রয় করা যাবে || যা যা বন্ধ থাকবে: ১. সব সরকারি, আধাসরকারি, সায়ত্ত্বশাসিত ও বেসরকারি অফিস, আর্থিক প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে ২. সব ধরনের পরিবহন (সড়ক, নৌ, অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক ফ্লাইট) বন্ধ থাকবে ৩. শপিংমলসহ অন্যান্য দোকান বন্ধ থাকবে