ঢাকা     শনিবার   ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ ||  আশ্বিন ৪ ১৪২৭ ||  ৩০ মহরম ১৪৪২

মাঠে ফিরতে তর সইছে না সাব্বিরের

ক্রীড়া প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৭:২৭, ৯ আগস্ট ২০২০   আপডেট: ১০:৩৯, ২৫ আগস্ট ২০২০
মাঠে ফিরতে তর সইছে না সাব্বিরের

সবকিছু ঠিকই চলছিল। হঠাৎ যেন সব থমকে দিল প্রাণঘাতী মহামারি করোনাভাইরাস। ছোট্ট একটি জীবাণুর সঙ্গে লড়াই করছে পুরো বিশ্ব। করোনার প্রকোপে গত মার্চ থেকে বন্ধ খেলাধুলা। খেলোয়াড়দের সময় কেটেছে ঘরবন্দি অবস্থায়।

তবে আশার খবর হলো, করোনার প্রকোপের মাঝেই সচল হতে যাচ্ছে দেশের ক্রীড়াঙ্গন। ক্রিকেটাররা স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঐচ্ছিক অনুশীলনে ফিরেছেন। নিজ শহর রাজশাহীতে এর আগে ফিটনেস ট্রেনিংয়ের পাশাপাশি ইনডোরে টুকটাক ব্যাটিং অনুশীলন করেছিলেন সাব্বির।

এবার ঢাকায় এসে পুরোদমে ট্রেনিং শুরু করেছেন এ ডানহাতি ব্যাটসম্যান। দুইদিন হলো মিরপুরের সবুজ গালিচায় ও ইনডোরে অনুশীলন করছেন সাব্বির। আজ (রোববার) দুপুরে ২টা থেকে ৫০ মিনিট ব্যাটিং অনুশীলন করার পর রানিং ও জিম সেশন করেছেন জাতীয় দলের হয়ে ৬৬ ওয়ানডে ম্যাচ খেলা সাব্বির।

তবে এই হার্ডহিটার ব্যাটসম্যান মুখিয়ে আছেন ম্যাচ খেলার জন্য। ২২ গজ কাপাতে তর সইছে না এ হার্ডহিটারের। সাব্বির রোববার বলেন, ‘অনেক দিন ধরে আন্তর্জাতিক ও ঘরোয়া ক্রিকেট বন্ধ আছে। করোনার কারণেই আমরা গৃহবন্দি। সব খেলোয়াড়রাই অপেক্ষায় আছে কবে খেলা শুরু হবে। মাঝে বিরক্তিও চলে এসেছে। অনেক দিন তো পার হয়ে গেছে।’

তিনি আরও যোগ করেন, ‘ইংল্যান্ড ও পাকিস্তান এখন খেলছে। ওয়েস্ট ইন্ডিজও কিছুদিন আগে খেলেছে। দেখে ভালো লেগেছে যে, খেলা তো শুরু হয়েছে। আমাদের দেশে কিংবা অন্যান্য দেশে সব কিছু ঠিকঠাক থাকলে ‍খুব দ্রুত আমরাও আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলব।’

‘খুবই উজ্জীবিত হয়ে আছি খেলার জন্য। এখন অনুশীলন করছি নিজেকে ফিট ও ভালো রাখার জন্য। আশা করছি খেলা শুরু হলে ভালো কিছু করতে পারব ইনশাআল্লাহ।’- যোগ করেন সাব্বির।

করোনাকালীন নিজের প্রস্তুতি ও অনুশীলন নিয়ে সাব্বির আরো বলেন, ‘আমি ২৫ মার্চ রাজশাহী চলে গিয়েছিলাম। ওখানে অনুশীলনের সুযোগ পাইনি। করোনার কারণে ঘরেই ছিলাম। পরিবারের সঙ্গে হোম কোয়ারেন্টাইনে ছিলাম। বাসায় কিছু জিম ওয়ার্ক করেছি। আস্তে আস্তে রাজশাহীর ইনডোরে কাজ করেছি। ওখানে যখন কেউ থাকত না তখন একা গিয়ে অনুশীলন করেছি। এছাড়া ক্লেমনের একটি জিম আছে। সেখানে একাই সন্ধ্যায় বা সকালে জিম করেছি। এছাড়া ইনডোরে ব্যাটিং-বোলিং করেছি।’

করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে না আসলেও বিসিবি ঐচ্ছিক অনুশীলনের সুযোগ করে দেওয়ার জন্য এবং পর্যাপ্ত সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করায় কৃতজ্ঞ সাব্বির। তার ভাষ্যে, ‘প্রায় চার মাস পর মিরপুর হোম অব ক্রিকেটে এলাম। অনুভূতি প্রকাশ করতে পারব না। তবে খুব ভালো লাগছে। বিসিবি থেকে একটি নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার জন্য। সেগুলো মেনে চলছি। খুব ভালো সুযোগ সুবিধা। ওয়ান বাই ওয়ান অনুশীলন হচ্ছে। সবাই সবার সময় ধরে রাখছে।’

ঢাকা/ইয়াসিন/কামরুল

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়