ঢাকা     বুধবার   ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০ ||  আশ্বিন ৮ ১৪২৭ ||  ০৫ সফর ১৪৪২

পিরলোর সর্বনাশ হয়ে গেল: গাত্তুসো

ক্রীড়া ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২১:০৮, ৯ আগস্ট ২০২০   আপডেট: ১০:৩৯, ২৫ আগস্ট ২০২০
পিরলোর সর্বনাশ হয়ে গেল: গাত্তুসো

২০০৬ সালে ইতালির বিশ্বকাপজয়ী দলে দুইজন ছিলেন সতীর্থ। বলছি জেনারো গাত্তুসো এবং আন্দ্রে পিরলোর কথা। এরমধ্যে গাত্তুসো ইতিমধ্যে ইতালিয়ান ক্লাব নাপোলির কোচিংয়ের দায়িত্ব পালন করছেন। এবার কোচিংয়ের জগতে পা রাখলেন পিরলোও।

মাউরিসিও সারিকে বরখাস্তের ঘোষণা দেওয়ার পর জুভেন্টাস ক্লাব ২৪ ঘণ্টা সময় নেয়নি নতুন কোচ নিয়োগ দিতে। ক্লাবের কিংবদন্তি আন্দ্রে পিরলোকে নতুন কোচ হিসেবে পরিচয় করে দেয় ইতালিয়ান এই জায়ান্ট ক্লাব।

নতুন চাকরির শুরুতে সাবেক সতীর্থ গাত্তুসো থেকে উষ্ণ অভিবাদন মেলেনি পিরলোর। বরং ঘুম হারামের গল্প শুনিয়ে পিরলোকে কোচিং জীবনে স্বাগতম জানিয়েছেন নাপোলি কোচ। জানিয়েছেন সর্বনাশই হয়ে গেলো পিরলোর। গাত্তুসোর ভাষ্যে,

‘তার সর্বনাশই হয়ে গেল। এই চাকরিটা এমনই। জুভেন্টাসের মতো ক্লাবে শুরু করতে পেরে ও ভাগ্যবান। কিন্তু কোচিং এমন একটা পেশা যেখানে অসাধারণ খেলোয়াড় যথেষ্ট নয়। অনেক পড়াশোনা করতে হবে, কঠোর পরিশ্রম করতে হবে এবং সর্বোপরি ভালো ঘুম হবে না।’

পিরলোকে উদ্দেশ্য করে গাত্তুসো আরও বলেন, ‘খেলোয়াড় ও কোচের ভূমিকা একদমই ভিন্ন। একদমই ভিন্ন পেশা এবং বই থেকে এসব শেখা যায় না। এই কাজে প্রথমে নামতে হয় এবং কাজ করতে হয়। এটা কঠিন এক জগৎ।’

জুভেন্টাসের দায়িত্ব পাওয়া পিরলো একেবারেই আনকোরা কোচিং লাইনে। ২০১৭ সালে পেশাদার ফুটবল ছাড়া এই ইতালিয়ান গত সপ্তাহে ক্লাবটির অনূর্ধ্ব-২৩ দলের দায়িত্ব পেয়েছিলেন। এবার মূল দলের দায়িত্ব তার কাঁধে।

অপরদিকে গাত্তুসো ২০১৩ সালে অবসরের পর থেকে কোচিংয়ের সাথে যুক্ত। ইতিমধ্যে সিওন, পার্লেমোসহ বেশ কয়েকটি ক্লাবের দায়িত্ব পালনের পর ২০১৭ সালে নিয়েছিলেন এসি মিলানের দায়িত্ব। গত ডিসেম্বরে পেয়েছিলেন নাপোলির দায়িত্ব।

ঢাকা/কামরুল

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়