ঢাকা     সোমবার   ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ ||  আশ্বিন ১৩ ১৪২৭ ||  ১০ সফর ১৪৪২

যথাযথ প্রক্রিয়ায় সাকিবকে চান ডমিঙ্গো

ক্রীড়া প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১১:০৪, ১২ আগস্ট ২০২০   আপডেট: ১০:৩৯, ২৫ আগস্ট ২০২০
যথাযথ প্রক্রিয়ায় সাকিবকে চান ডমিঙ্গো

অক্টোবরে শ্রীলঙ্কা সফরে সাকিব আল হাসানকে দলে দেখতে চান বাংলাদেশ জাতীয় দলের কোচ রাসেল ডমিঙ্গো। তবে নিষেধাজ্ঞায় থাকা এ ক্রিকেটারকে যথাযথ প্রক্রিয়ায় দলে ফেরাতে চান ডমিঙ্গো।
জুয়াড়ির কাছ থেকে পাওয়া তথ্য গোপন করায় গত অক্টোবরে এক বছরের জন্য আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে নিষিদ্ধ হন সাকিব। নিষেধাজ্ঞায় এ থাকা ক্রিকেটার মাঠে ফিরতে পারবেন আগামী ২৯ অক্টোবর।

অক্টোবরেই বাংলাদেশের শ্রীলঙ্কা সফর। টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের তিনটি ম্যাচ খেলতে বাংলাদেশ যাবে দ্বীপরাষ্ট্রে। ১৪ অক্টোবর প্রথম ম্যাচ হওয়ার কথা রয়েছে। টেস্ট সিরিজের পর দুই দল তিনটি টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলবে। মূলত টি-টোয়েন্টি সিরিজে সাকিবকে ফেরানোর সম্ভাবনা রয়েছে।

তবে নিষেধাজ্ঞায় থাকা ক্রিকেটার শাস্তি ভোগের পরপরই দলে আসতে পারবে কি না তা নিয়ে ধোঁয়াশায় বিসিবি। বিসিবির শীর্ষ পরিচালক ও কর্মকর্তাদের জানা নেই কোন প্রক্রিয়ায় সাকিবকে দলে ঢোকানো যাবে কিংবা সাকিবকে প্রস্তুত করতে কোন পরিকল্পনায় এগিয়ে যাবে ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগ।

ডমিঙ্গোর বার্তা পরিস্কার। শতভাগ ফিট, ম্যাচ খেলার জন্য উপযোগী প্রস্তুতি এবং আইসিসির গাইডলাইন মেনে সাকিবকে দলে দেখতে চান তিনি। ডমিঙ্গো বলেন,‘সাকিবের এক বছরের নিষেধাজ্ঞা এবং অন্যান্যদের ছয়-সাত মাস মাঠের বাইরে থাকা প্রায় একই রকম। আমরা আশা করছি সব খেলোয়াড় ফিট থাকবে। আমাদের দলে খেলার জন্য একটা ফিটনেস স্ট্যান্ডার্ড মেইন্টেইন করতে হয়। এজন্য সাকিবকে সেই প্রস্তুতির মঞ্চ দিতে হবে। কোনো ধরণের প্রস্তুতি ছাড়া দীর্ঘ সময় পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরা কঠিন। এজন্য তাকে ম্যাচ খেলার সুযোগ তৈরি করে দিতে হবে। সে বিশ্বসেরা ক্রিকেটার। দ্রুতই সে দলে ফিরবে। কিন্তু তার ফিটনেস খুব গুরুত্বপূর্ণ।’

ডমিঙ্গোর মতে, সাকিবকে অনানুষ্ঠানিক ম্যাচ খেলে দলে আসা উচিত। তাতে ফিটনেস নিয়ে সাকিব নিজেও পূর্ণ ধারণা পাবেন এবং নিজের স্কিল ঘাটতি পুষিয়ে নিতে পারবেন। সাকিবকে ফেরানোর প্রক্রিয়া নিয়ে শিগগিরই আলোচনায় বসার কথা রয়েছে বিসিবির নির্বাচক প্যানেল ও টিম ম্যানেজমেন্টের। ডমিঙ্গো বলেন,‘সাকিবকে ফেরানোর প্রক্রিয়া নিয়ে আমরা নির্বাচকদের সঙ্গে বসব। ২৯ অক্টোবরের আগে তার আনুষ্ঠানিক ম্যাচ খেলার সুযোগ নেই। এজন্য অনানুষ্ঠানিক ম্যাচ ভরসা। হতে পারে সেটা আন্ত স্কোয়াডের ম্যাচ। কিন্তু নিষেধাজ্ঞার সময়ে সে দলের সঙ্গে থেকে অনুশীলন ও ম্যাচ খেলতে পারবে কিনা তা দেখতে হবে।’ 

পরিবারসহ সাকিব আছেন যুক্তরাষ্ট্রে। করোনার প্রকোপ শুরু হওয়ার আগে যুক্তরাষ্ট্রে উড়াল দেন সাকিব। জানা গেছে, সাকিব আগস্টের শেষ সপ্তাহে দেশে ফিরবেন। অনুশীলনের জন্য নিজের শৈশবের বিদ্যাপীঠ সাভারের বিকেএসপিতে আসার পরিকল্পনা করেছেন দেশসেরা এই অলরাউন্ডার।

ঢাকা/ইয়াসিন

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়