ঢাকা     সোমবার   ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ ||  আশ্বিন ১৩ ১৪২৭ ||  ১০ সফর ১৪৪২

ইতিহাস গড়া ম্যাচে মেসিকে স্পর্শ করলেন নেইমার

ক্রীড়া ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১২:৪৯, ১৩ আগস্ট ২০২০   আপডেট: ১০:৩৯, ২৫ আগস্ট ২০২০
ইতিহাস গড়া ম্যাচে মেসিকে স্পর্শ করলেন নেইমার

চ্যাম্পিয়নস লিগ যেন প্যারিস সেইন্ট জার্মেইর (পিএসজি) জন্য ছিল আক্ষেপের আরেক নাম। টানা তিন মৌসুমে বার্সেলোনা, রিয়াল মাদ্রিদ এবং ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের মতো জায়ান্ট ক্লাবগুলোর কাছে শেষ ষোলোতে বিদায় নিয়েছিল ফরাসি চ্যাম্পিয়নরা।

বুধবার (১২ আগস্ট) রাতে পর্তুগালের এস্তাদিও দ্য লুজ স্টেডিয়ামেও যেন ফিরে আসছিল একই গল্প। তবে পিএসজির তারকা স্ট্রাইকার নেইমারের অসাধারণ পারফরম্যান্সে আতালান্তাকে ২-১ গোলে হারায় থমাস টুখেলের শিষ্যরা, ২৫ বছরের আক্ষেপ ঘুচিয়ে জায়গা করে নেয় চ্যাম্পিয়নস লিগের সেমিফাইনালে। ফরাসি চ্যাম্পিয়নদের এই ইতিহাস গড়া ম্যাচে নেইমার স্পর্শ করলেন বার্সেলোনার সাবেক সতীর্থ লিওনেল মেসির এক কীর্তি।

বল পায়ে গোল পাননি নেইমার। তবে মাঠে আতালান্তার রক্ষণকে নিয়ে করেছেন ছেলেখেলা। ম্যাচে ১৬টি ড্রিবল এসেছে নেইমারের পা থেকে। চ্যাম্পিয়নস লিগের কোনো ম্যাচে গত এক যুগে যা সর্বোচ্চ। এর আগে ২০০৮ সালে ম্যানইউয়ের বিপক্ষে বার্সেলোনার হয়ে এমন কীর্তি গড়েছিলেন মেসি। এর আগে ২০০৩ সালে ইন্টার মিলানের হাভিয়ের জানেত্তি দিনামো কিয়েভের বিপক্ষে এমন কীর্তি গড়তে সমর্থ হয়েছিলেন।

এদিকে প্রথমার্ধে দুটি সহজ সুযোগ মিস করা সত্ত্বেও দুর্দান্ত খেলে ম্যাচে ৯.৬ রেটিং পয়েন্ট নিয়ে ম্যান অব দ্য ম্যাচের পুরস্কার ঠিকই বাগিয়ে নিয়েছিলেন নেইমার। আর ম্যাচশেষে জানিয়েছেন, পিছিয়ে পড়া সত্ত্বেও ম্যাচে কখনো হেরে যাওয়ার মানসিকতা কাজ করেনি তার মধ্যে। সেমিফাইনালে খেলার বিশ্বাস ছিল এই ব্রাজিলিয়ান তারকার।

তার ভাষ্যে, ‘আমি ম্যাচে এক মুহূর্তের জন্যও বাদ পড়ে যাওয়ার কথা ভাবিনি। বাড়ি ফিরে যাওয়ার কথা মাথায় আসেনি। শুরু থেকে শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত আমরা কেবল সেমিফাইনালে যাওয়ার বিশ্বাস নিয়ে খেলে গিয়েছিলাম।’

ইতিমধ্যে ইতিহাস গড়া হয়ে গেছে। তবে এতে সন্তুষ্ট থাকতে চান না নেইমাররা। প্রথমবারের মতো চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনাল খেলে নতুন ইতিহাস রচনা করতে চান জানিয়ে নেইমার আরও যোগ করেন, ‘আমি ফাইনাল খেলতে চাই, আর এটা আমার মাথা থেকে কেউ সরাতে পারবে না। ক্লাবের হয়ে নতুন ইতিহাস রচনা করতে চাই আমরা। আমরা খুব খুশি। আমরা ইতিমধ্যে কঠিন পরিস্থিতির মুখোমুখি হয়েছি। আমাদের নিজেদের মধ্যে দারুণ সম্পর্ক। আমরা এক পরিবার হয়ে খেলছি। সবার মনে রাখা দরকার, আমাদের এবার বাদ দেওয়া অসম্ভব।’

শেষ চারে নেইমারদের প্রতিপক্ষ কারা হবে, সেটি নিশ্চিত হবে আজ রাতে। একই মাঠে দ্বিতীয় কোয়ার্টার ফাইনালে রাতে মুখোমুখি হবে আরবি লাইপজিগ এবং অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদ। সনি টেন ২ তে খেলাটি সরাসরি সম্প্রচার হবে রাত ১টায়। 

ঢাকা/কামরুল

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়