RisingBD Online Bangla News Portal

ঢাকা     বৃহস্পতিবার   ২৯ অক্টোবর ২০২০ ||  কার্তিক ১৪ ১৪২৭ ||  ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

বাল্যকালের ক্লাবে রোনালদোকে অন্যরকম স্বীকৃতি

ক্রীড়া ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২২:৫২, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০  
বাল্যকালের ক্লাবে রোনালদোকে অন্যরকম স্বীকৃতি

যেখানে ফুটবল ক্যারিয়ার শুরু, সেই ক্লাবের পরবর্তী প্রজন্মের কাছে উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত হিসেবে স্বীকৃতি পেলেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। পর্তুগিজ ক্লাব স্পোর্তিং লিসবন আনুষ্ঠানিকভাবে তাদের সাবেক খেলোয়াড়ের নামে অ্যাকাডেমির নামকরণ করেছে।

রোনালদোর পেশাদার যাত্রার শুরু ২০০২ সালে হোসে আলভালাদে স্টেডিয়ামে। প্রিমেইরা লিগায় সবচেয়ে সম্ভাবনাময়ী তরুণ খেলোয়াড় হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠা করতে বেশি সময় লাগেনি। এক বছর পর প্রাক-মৌসুমের এক প্রীতি ম্যাচে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড কর্মকর্তাদের নজরে আসেন এবং দেড় কোটি ডলারে ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে চলে যান।

১৮ বছর বয়সী রোনালদো ম্যানইউর জার্সিতে অর্জন করেন তারকাখ্যাতি। তিনটি প্রিমিয়ার লিগ, একটি চ্যাম্পিয়নস লিগ এবং পাঁচ ব্যালন ডি’অরের প্রথমটি পান সেখানে। ২০০৯ সালে রিয়াল মাদ্রিদ তাকে নিয়ে যায় এবং তার দারুণ সব পারফরম্যান্সে চারটি চ্যাম্পিয়নস লিগ জেতে স্প্যানিশ জায়ান্টরা। ক্লাবের সর্বকালের শীর্ষ গোলদাতা হয়ে ৯ বছর পর স্পেন ছেড়ে জুভেন্টাসে যোগ দেন ২০১৯ সালে। ৩৫ বছর বয়সেও ক্লান্তির ছাপ নেই তার, দুটি সিরি আ জিতেছেন। নতুন মৌসুমেও শুরু হয়েছে গোল করে।

পুরো ইউরোপ কাঁপাচ্ছেন রোনালদো। তার এই অবদানকে স্মরণীয় করতে বাল্যকালের ক্লাব তাদের সবচেয়ে ‘বিখ্যাত সন্তানকে’ স্বীকৃতি দিলো ক্লাব একাডেমির নতুন নামকরণে। সোমবার পর্তুগিজ ক্লাবের ওয়েবসাইট বিবৃতিতে জানায়, ‘এটা অনেক সম্মানের যে, স্পোর্তিং ক্লাব দে পর্তুগাল ঘোষণা করছে ক্লাব অ্যাকাডেমিকে এখন থেকে ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো অ্যাকাডেমি (অ্যাকাদেমিয়া ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো) ডাকা হবে।’

মাদেইরা দ্বীপে জন্ম নেওয়া রোনালদো ১৯৯৭ সালে মাত্র ১২ বছর বয়সে স্পোর্তিংয়ে যোগ দেন। ২০০২ সালে তার সিনিয়র ফুটবলে অভিষেক হয় একই ক্লাবে। তার নামটিকে আজীবন স্মরণীয় করে রাখতে এই উদ্যোগ, ‘এই অ্যাকাডেমি তাদের সবচেয়ে সেরা প্রতীকের নামকে আমৃত্যু বাঁচিয়ে রাখবে এবং তা হবে সব প্রজন্মের প্রতিভাদের জন্য অনুকরণীয়।’

স্পোর্তিং এর আগে তাদের হোম স্টেডিয়াম এস্তেদিও হোসে আলভালাদেরের নামকরণ রোনালদোর নামে করতে চেয়েছিল। অবশ্য এরই মধ্যে মাদেইরার একটি বিমানবন্দরে নাম করা হয়েছে পাঁচবারের ব্যালন ডি’অর জয়ীর নামে।

ঢাকা/ফাহিম

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়