RisingBD Online Bangla News Portal

ঢাকা     বৃহস্পতিবার   ২৯ অক্টোবর ২০২০ ||  কার্তিক ১৪ ১৪২৭ ||  ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

অনিশ্চিত অপেক্ষার মাঝেও চলবে প্রস্তুতি

ক্রীড়া প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৯:১৬, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০   আপডেট: ১৯:৪৫, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০
অনিশ্চিত অপেক্ষার মাঝেও চলবে প্রস্তুতি

শ্রীলঙ্কা সফর হচ্ছে কি না বুধবারও (২৩ সেপ্টেম্বর) নিশ্চিত করতে পারেননি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী সুজন। তবে সফরটি নিয়ে অনিশ্চয়তা থাকলেও ক্রিকেটারদের প্রস্তুতি প্রক্রিয়া চলমান থাকবে বলে এই বোর্ড কর্মকর্তা নিশ্চিত করেছেন। 

২৭ ক্রিকেটারকে ছয়দিনের স্কিল ট্রেনিংয়ের জন্য ডেকেছে বিসিবি। ক্রিকেটাররা আইসোলেশনে থেকে মিরপুর শের-ই-বাংলায় ট্রেনিং করছেন নিয়মিত। পরিবার ছেড়ে তারা উঠেছেন হোটেল সোনারগাঁওয়ে। এদের মধ্যে পেসার আবু জায়েদ রাহীর করোনা ধরা পড়ায় তাকে রাখা হয়েছে কোয়ারেন্টাইনে। বাকিদের চলাচল সীমিত। 

ক্যাম্প শেষ হওয়ার কথা রয়েছে ২৬ সেপ্টেম্বর। এরপর কী করবেন তারা? শ্রীলঙ্কা সফর এর আগে নিশ্চিত হওয়ার সম্ভাবনাও নেই। দ্বীপরাষ্ট্র থেকে এখনও ক্রিকেট বোর্ডের কাছে সংশোধিত প্রস্তাব আসেনি। সেই প্রস্তাব পাওয়ার পর বিসিবি নিজেদের সিদ্ধান্ত নেবে। ২৭ সেপ্টেম্বর শ্রীলঙ্কা উড়াল দেওয়ার যে সূচি রয়েছে তা পিছিয়ে যাচ্ছে নিশ্চিত। 

বুধবার (২৩ সেপ্টেম্বর) মিরপুরে সংবাদ সম্মেলনে নিজামউদ্দিন বলেন, ‘এখন পর্যন্ত যেহেতু আমরা পাইনি (শ্রীলঙ্কার সংশোধিত প্রস্তাব), তাই এই মুহূর্তে ২৭ তারিখ ভ্রমণ করা চ্যালেঞ্জিং হবে। ভিসা ও অন্য জটিলতা তো রয়েছেই। সেক্ষেত্রে কোনও সমন্বয়ের প্রয়োজন হলে আমরা করে নেব।’

এজন্য ক্রিকেটারদের আইসোলেশন ও অনুশীলন চালু রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন নীতিনির্ধারকরা। প্রধান নির্বাহী আরও বলেন, ‘আমাদের কিছু অভ্যন্তরীণ পরিকল্পনা তো অবশ্যই আছে। এই সিরিজ যদি নাও হয় আমাদের ভিন্ন পরিকল্পনা আছে। এ ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত আসার আগ পর্যন্ত খেলোয়াড়দের অনুশীলন আমরা চালু রাখবো। অন্য যে বিষয়গুলো চলছে সেগুলো চলমান থাকবে। এরপর সিরিজ সংক্রান্ত কোনও সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হলে পরিকল্পনায় পরিবর্তন আসবে।’

শ্রীলঙ্কার কড়া কোয়ারেন্টাইন শর্ত ফিরিয়ে দেওয়ার এগারো দিন পরও সংশোধিত প্রস্তাব আসেনি। বিসিবির শীর্ষ কর্মকর্তাদের সঙ্গে মৌখিক আলোচনা হলেও আনুষ্ঠানিক চিঠি আসেনি। বিসিবি আর কতদিন অপেক্ষা করবে? বেশ কৌশলী উত্তর দিলেন নিজামউদ্দিন, ‘নির্দিষ্ট করে আমি এই মুহূর্তে কিছু বলতে চাচ্ছি না। আশা করছি খুব দ্রুতই তারা আমাদের বিষয়গুলো নিয়ে জানাবে।’ তিনি আরও যোগ করেন, ‘পুরো বিষয়টি কিন্তু শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটের ওপর নির্ভর করছে না, অনেকটা তাদের সরকার ও কোভিড-১৯ টাস্ক ফোর্সের সিদ্ধান্তের ওপর। আমরা যতটা জেনেছি শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করে আমাদের অবস্থান নিয়ে বোঝানোর চেষ্টা করছে।’

জানা গেছে, নিজেদের দেওয়া দাবির ৫০ শতাংশ পূরণ হলেও বিসিবি সফর করতে রাজি। এজন্য শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটের সঙ্গে সমন্বয় করার ইঙ্গিতও দিয়েছেন প্রধান নির্বাহী, ‘আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের অন্তর্ভুক্ত সিরিজটি আয়োজনের ব্যাপারে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট ও বিসিবি। সিরিজ আয়োজনে আমাদের দুই বোর্ডেরই চেষ্টা চলছে। সমন্বয়ের প্রয়োজন হলে আমরা করবো। সে ব্যাপারে আমাদের প্রাথমিক আলোচনাও হয়েছে। সেক্ষেত্রে আমরা চেষ্টা করছি যত দ্রুত সম্ভব শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট আমাদের যেন ফিডব্যাকটা দেয়। সেভাবেই আমরা পরিকল্পনা করতে পারবো।’

বিসিবি কর্মকর্তা যখন এ সফর নিয়ে অনিশ্চয়তা কাটাতে পারছিলেন না, তখনও অনুশীলনে ছিলেন ক্রিকেটাররা। এদিন অনুশীলনে থাকতে পারেননি চার ক্রিকেটার- করোনায় আক্রান্ত হওয়া রাহী ও আইসোলেশনে থাকা ইবাদত ছিলেন না অনুমিতভাবেই। লিটন দাস ও সাইফ হাসান ছিলেন বিশ্রামে। বাকি ২৩ ক্রিকেটার মিরপুরে ঘাম ঝরিয়েছেন। তাদের প্রস্তুতিতে নেই কোনও ঘাটতি। নিবেদনে প্রত্যেকেই পাবেন একশতে একশ।

ঢাকা/ইয়াসিন/ফাহিম

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়