RisingBD Online Bangla News Portal

ঢাকা     বুধবার   ২৮ অক্টোবর ২০২০ ||  কার্তিক ১৩ ১৪২৭ ||  ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

ধ্রুবতারা ধ্রুবর আফসোসের ‘২’

ক্রীড়া প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২১:৫৬, ১৭ অক্টোবর ২০২০   আপডেট: ০৯:৩৯, ১৮ অক্টোবর ২০২০
ধ্রুবতারা ধ্রুবর আফসোসের ‘২’

ম্যান অব দ্য ম্যাচের পুরস্কার পেয়েছেন ৫০ হাজার টাকা। সেরা ব্যাটসম্যানের জন্য আরো ২৫ হাজার টাকা। তবুও বিমর্ষ আফিফ হোসেন ধ্রুব। মুখে হাসি নেই। নেই কোনো উল্লাস, উদ্দীপনা।

জৈব সুরক্ষা বলয়ে থাকার কারণে পুরস্কার বিতরণী মঞ্চে নিজের পুরস্কার একাকী গ্রহণ করতে হয়েছে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকলে ঊর্ধ্বতন কারো হাত থেকে নিতেন। সঙ্গে পেতেন অভিনন্দন। কারো কাছ থেকে হয়ত শুনতেন আক্ষেপ জাগানিয়া, ‘হার্ড লাক।’

ম্যাচের নায়ক হয়েছেন, সেরা ব্যাটসম্যানও হয়েছেন; তারপরও হার্ড লাক! মিরপুর শের-ই-বাংলায় এমন মঞ্চ আফিফের জন্য প্রস্তুত হয়েছিল যে, তাকে দুর্ভাগা বলতেই হবে। মাত্র ২ রানের জন্য সেঞ্চুরি মিস করেছেন তিনি। ১০৭ বলে ১২ চার ও ১ ছক্কায় ৯৮ রানের ঝলমলে ইনিংস খেলেছেন এ বাঁহাতি ব্যাটসম্যান।

দল যখন খাদের কিনারায় তখন ব্যাটিংয়ে এসেছিলেন নাজমুল হোসেন শান্ত একাদশের এ ব্যাটসম্যান। এরপর উইকেটের চারিপাশে মনোমুগ্ধকর সব শটে নিজের সামর্থ্য জানান। তাকে সঙ্গ দেন মুশফিকুর রহিম। ১৪৭ রানের জুটি গড়েন চতুর্থ উইকেটে।

কিন্তু মুশফিকের ভুল এক ডাকে শেষ আফিফের তিন অঙ্ক ছোঁয়ার স্বপ্ন। স্পিনার মিরাজের বল লেগ সাইডে টোকা দিয়ে সিঙ্গেল নিতে ডাক দিয়েছিলেন মুশফিক। তাতে সাড়া দেন আফিফ। কিন্তু শর্ট মিড উইকেটে মাহমুদউল্লাহর ক্ষীপ্রতায় মুশফিক ফিরিয়ে দেন সতীর্থকে। তখন বড্ড দেরী হয়ে যায়। মাহমুদউল্লাহর থ্রোতে বল লুফে মিরাজ ভাঙেন উইকেট। আফিফ আউট ৯৮ রানে।

তাইতো ম্যাচসেরার মঞ্চে আফিফ বলেন, ‘একটু আফসোস তো হচ্ছেই। ২ রানের জন্য সেঞ্চুরি হয়নি। তারপরও দল জেতায় খুশি।’

সেঞ্চুরি পাননি আফিফ। কিন্তু তার দল জিতেছে বিশাল ব্যবধানে। মাহমুদউল্লাহদের আমন্ত্রণে ব্যাটিংয় নেমে ৮ উইকেটে তারা করে ২৬৪ রান। সেই রান তাড়া করতে নেমে ১৩৩ রানে গুটিয়ে যায় মাহমুদউল্লাহ, লিটনরা।

১৩১ রানের জয়ে দলের মুখে চওড়া হাসি। কিন্তু ধুমকেতু হয়ে এসে  ধ্রুবতারার জায়গা দখল করা আফিফ হাসতে পারছেন না মন খুলে। ওই ২ রান বড়ই আফসোসের। অনেক আক্ষেপেরও।

ঢাকা/ইয়াসিন/কামরুল

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়